উন্নয়ন মেলা শুধুই জনগণের সঙ্গে প্রতারণা ছাড়া কিছুই নয়: রিজভী আহমেদ

উপজেলার নাম পরিবর্তন উদ্দেশ্যপ্রণোদিত

ফাইল ফটো

নিজস্ব প্র‌তি‌বেদক: উন্নয়নের নামে মেলা পালন করতে সারাদেশের জেলা উপজেলায় সরকারের দলবাজ কর্মকর্তা ও প্রশাসনের লোকদের বাধ্য করা হচ্ছে অভিযোগ করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, গণতন্ত্রকে পদদলিত করে আয়োজিত উন্নয়নের নামে মেলায় সাধারণ মানুষের কোনো সম্পৃক্ততা নেই। এ মেলা শুধুই জনগণের সঙ্গে প্রতারণা ছাড়া কিছুই নয়। সমারিক আইয়ুব খানও ১৯৬৮ সালে এধরণের উন্নয়নের দশক উৎসব করেছিলেন। তাতে শেষ রক্ষা হয়নি। তেমনি শেখ হাসিনাও সামরিক শাসক আইয়ুব খানসহ বিভিন্ন দেশের স্বৈরশাসকদের মডেলকে বেছে নিয়েছেন। তাই দেশের উন্নয়ন শুধু প্রধানমন্ত্রীর মুখে, আর সারাদেশে লবডঙ্কা।

মঙ্গলবার বেলা সোয়া ১১টায় নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

পিরোজপুর জেলাধীন জিয়াগর উপজেলার নাম পরিবর্তন করা রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত মন্তব্য করে বিএনপির এ নেতা বলেন, জিয়ানগর নামটি বাদ দেয়া আমাদের গৌরবোজ্জল মুক্তিযুদ্ধ ও সকল মুক্তিযোদ্ধাদেরকেই অপমান করা। শুধুমাত্র সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের নাম থাকার কারণেই এটি সরকারি আক্রমণের শিকার হয়েছে। বিএনপির পক্ষ থেকে আমি সরকারের এই প্রতিহিংসামূলক সিদ্ধান্তের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই পাশাপাশি অবিলম্বে জিয়ানগর নাম বদলে সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

আওয়ামী লীগ পুলিশ বাহিনীকে নিজেদের ইচ্ছা বাস্তবায়নের যন্ত্রে পরিণত করেছে মন্তব্য করে রুহুল কবির বলেন, দেশব্যাপী যখন অপরাধীরা দাপিয়ে বেড়াচ্ছে তখন সরকার ডিএমপিকে জনগণের রাজনৈতিক অধিকার দমনে ব্যবহার করছে। কারণ বাংলাদেশের পুলিশ এখন আওয়ামী লীগের পার্সনাল সিকিউরিটিতে পরিণত হয়েছে।

রিজভী বলেন, বিএনপি কি আওয়ামী লীগের অনুমতির অপেক্ষায় থাকবে এমন প্রশ্নের জবাবে রিজভী বলেন, আওয়ামী লীগ যেভাবে দি¦চারী আচরণ করছে যেভাবে ক্রসফায়ার, বিচারবির্হভুত হত্যা, গুম, খনের পথ বেছে নিয়েছে সেক্ষেত্রে বিএনপি একটি গণতান্ত্রি রাজনৈতিক দল হিসাবে মোকাবেলা করতে কিছু সময় লাগতে পারে।

বিএনপির নেতারা কর্মসূচি দিয়ে মাঠে নামে বলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের বক্তব্যের সমালোচনায় তিনি বলেন, কে নামেনি? যদি কেউ রাজপথে কর্মসূচি পালনে না নেমে থাকে তাহলে কিসের এতো ভয়, বিএনপিকে সমাবেশ করতে দিচ্ছেন না। নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করতে পুলিশকে লেলিয়ে দিচ্ছেন। একের পর এক মামলা দিচ্ছেন ।‘শত প্রতিক’লতার পরও একটি কথা স্পষ্ট বিএনপি আন্দোলনের মধ্যে দিয়েই তার অভিষ্ট লক্ষ্যে পৌছাবে।’

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY