এমএসএনের ট্রিপল সেঞ্চুরির দিনে সুয়ারেজের সেঞ্চুরি

এওয়ান নিউজ ডেস্ক: সময়টা ভালো যাচ্ছিল না বার্সেলোনার। স্প্যানিশ লা লিগায় গত ম্যাচে সেভিয়ার সঙ্গে ড্র করেছিল কাতালান ক্লাবটি। তবে বুধবার রাতে লিওনেল মেসি, লুইস সুয়ারেজ ও নেইমারের সমন্বয়ে গঠিত এমএসএন জুটি একসঙ্গে জ্বলে ওঠায় স্বরূপে ফিরেছে লুইস এনরিকের দল। কোপা ডেল রের শেষ ষোলোর দ্বিতীয় লেগে অ্যাতলেটিক বিলবাওকে ৩-১ গোলে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে জায়গা করে নেয় বার্সা। ন্যু-ক্যাম্পে এদিন ট্রিপল সেঞ্চুরি করেন এমএসএন। একইদিন এই ত্রিফলার একজন সুয়ারেজ বার্সার হয়ে গোলের সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন।

ঘরের মাঠে ন্যু-ক্যাম্পে প্রথমার্ধে এমএসএন-ত্রয়ীর দ্বিতীয়জন লুইস সুয়ারেজের গোলে এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই নেইমারের গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করে স্বাগতিকরা। কয়েক মিনিট পর সাবোরিত টেক্সিডোরের গোলে ব্যবধান কমায় বিলবাও। তবে মেসির ফ্রি-কিক গোল সব শঙ্কা দূর করে লুইস এনরিকের দলকে কোয়ার্টারে নিয়ে যায়।

২০১৪-১৫ মৌসুম থেকে একসঙ্গে খেলছেন মেসি, সুয়ারেজ ও নেইমার। বুধবার রাতে এমএসএন-ত্রয়ী গোলের ট্রিপল সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন। প্রায় আড়াই মৌসুম খেলেই এই মাইলফলক স্পর্শ করেন দক্ষিণ আমেরিকার এই অ্যাটাকিং-ত্রয়ী।

এমএসএনের রেকর্ডের দিন মাইলফলক গড়েছেন সুয়ারেজও। বার্সেলোনার হয়ে সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে গোলের সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন তিনি। ১২০তম ম্যাচে তিন অঙ্কের ম্যাজিক ফিগার স্পরশ করেন উরুগুয়ে ফরোয়ার্ড।

বার্সেলোনার নাম্বার টেন এই সময় সর্বোচ্চ ১২৪ গোল করেছেন। অন্যদিকে কাতালান ক্লাবটির নাম্বার নাইন সুয়ারেজ করেছেন ঠিক ১০০ গোল। খুব খারাপ করেননি নেইমার। এই ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড করেন ৭৬ গোল। এই তিনজন একসঙ্গে খেলা শুরু করার পর বার্সার মোট গোলের প্রায় ৭০ শতাংশ আসে এমএসএনের পা থেকে। স্প্যানিশ লিগের দলগুলোর মধ্যে শুধু আলাভেসই এমএসএনকে গোলবঞ্চিত করতে পেরেছে।

গত বছরের অক্টোবরের পর থেকেই বার্সেলোনার হয়ে গোল পাচ্ছিলেন না নেইমার। প্রায় ১ হাজার মিনিট প্রতিপক্ষের জাল খুঁজে পাননি এই ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার। বিলবাওয়ের বিপক্ষে তাই বার্সা পেনাল্টি পেলে নেইমারকেই বল এগিয়ে দেন মেসি। আর স্পট-কিক থেকে গোল করে আনন্দে মাতেন নেইমার।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY