পাঠ্যপুস্তকে ভুলের দায় শিক্ষামন্ত্রী এড়াতে পারেন না: জাতীয় ছাত্র কেন্দ্র

এওয়ান নিউজ, ঢাকা: বাংলাদেশ জাতীয় ছাত্র কেন্দ্রের সভায় অবিলম্বে নির্ভুল পাঠ্যপুস্তক শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দেওয়ার দাবি জানিয়ে বলা হয়, পঠ্যপুস্তক প্রণয়নে জড়িত কর্মকর্তা, কর্মচারী, ছাপাখানাসহ সংশ্লিষ্ট যাদের উদাসীনতায় কোটি শিক্ষার্থীর ভোগান্তি শিকার হচ্ছে তাদের বিরুদ্বে দৃষ্টান্তমূলক ও আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত। এই ভুলের দায় শিক্ষামন্ত্রী এড়াতে পারেন না।

সোমবার বিকেল সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ছাত্র কেন্দ্রের যুগ্ম সমন্বয়কারী সোলায়মান সোহেলের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন ছাত্র কেন্দ্রের ছাত্র কেন্দ্রে‘র যুগ্ম সমন্বয়কারী আলী নূর নাদিম, স্বরজিৎ কুমার দ্বিপ, গোলাম মোস্তাকিন ভুইয়া, নির্বাহী সদস্য আবুল হোসেন, সীমা আক্তার প্রমুখ।

সভায় বলা হয়, প্রাথমিক স্তরের পাঠ্যপুস্তকে নজিরবিহীন ভুল করা হয়েছে। এর মাধ্যমে শিশুদের উপর রাষ্ট্রীয় ফ্যাসিবাদী আচরণ করা হয়েছে। এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো ছাত্র সমাজের দায়িত্ব ও কর্তব্য।

সভাপতির বক্তব্যে সোলায়মান সোহেল বলেন, ২০১৭ সালের প্রাথমিক স্তরের পাঠ্যপুস্তকের বিভিন্ন অধ্যায়ে রয়েছে অসংখ্য ভুল। এছাড়া বইয়ের উপরের ও শেষের পৃষ্ঠায় যে সমস্ত কোটেশন ব্যবহার করা হয়েছে তা আওয়ামী লীগের নির্লজ্জ দলীয় প্রচারণা ছাড়া অন্য কিছুই নয়।

যেমন বলা হয়েছে, ‘শিক্ষা নিয়ে গড়বো দেশ, শেখ হাসিনার বাংলাদেশ’। এর মাধ্যমে অল্পবয়সী কোমলমতি শিশুদের অন্ধতা শেখানো হবে।তিনি বলেন, ফলে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের গিনিপিগ না বানিয়ে অবিলম্বে ভুলে ভরা ও দলীয় প্রচারণার বই বাতিল করে শিশু কিশোরদের দেহ মন বিকশিত করার পরিপূরক সিলেবাস নির্ধারণ করে নতুন করে বই সরবরাহ করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, পাঠ্যপুস্তক প্রণেতারা শিক্ষার্থীদের শিক্ষাজীবন নিয়ে যে উদাসীনতার পরিচয় দিয়েছেন, তা নজিরবিহীন। শিক্ষার্থীরা এসব বই থেকে ভুল শিক্ষা বেশি পাবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY