বিশ্বনবির আদর্শ বাস্তবায়নে শান্তি প্রতিষ্ঠা সম্ভব : রওশন এরশাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক: বর্তমান বিশৃঙ্খল ও দ্বন্দ্বমুখর আধুনিক বিশ্বে রাসুল (সা.) এর শিক্ষা ও আদর্শ ধারণ করে তা অনুসরণ ও বাস্তবায়নের মাধ্যমে শান্তি ও কল্যাণ প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ। পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবি উপলক্ষে দেয়া এক বাণীতে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আধুনিক বিশ্বে সর্বকালের, সর্বযুগের সর্বশ্রেষ্ঠ মহামানব হযরত মুহম্মদ (সা.) মানবতার মুক্তি ও কল্যাণের পথনির্দেশিকা নিয়ে মানব জাতির নিকট সর্বশেষ নবি হিসেবে মহান আল্লাহর পক্ষ থেকে প্রেরিত হয়েছিলেন। তার ওপর নাজিলকৃত মহাগ্রন্থ আল-কুরআন মানবজাতির মুক্তির পথনির্দেশিকা।

বাণীতে তিনি আরও বলেন, বিশ্বনবি এমন এক সময় পৃথিবীর বুকে আবির্ভূত হয়েছিলেন যখন আরবের রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, নৈতিক ও ধর্মীয় অবস্থা অধপতনের চরম সীমায় নেমে গিয়েছিল। তার আগমনে শিরক, পৌত্তলিকতা, জাহেলিয়াত ও বর্বরতা দূরীভূত হয়। তার শুভাগমনে বিশ্বের সৌভাগ্যের দ্বার উন্মুক্ত হয়।

রওশন এরশাদ বলেন, বিশ্বের ইতিহাসে সর্বপ্রথম লিখিত সংবিধান ‘মদিনা সনদ’ এ জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সবার ন্যায্য অধিকার ও মর্যাদা প্রতিষ্ঠার সার্বজনীন ঘোষণা রয়েছে। তাই মানব জাতির প্রতিটি ক্ষেত্রে মহানবির শিক্ষা আজ অনুসরণীয়।

1 COMMENT

LEAVE A REPLY