মার্কিন নির্বাচন রুশ হ্যাকিংয়ে প্রভাবিত, মেনে নিলেন ট্রাম্প

অনলাইন ডেস্ক: প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারণা চলাকালে রাশিয়া সাইবার হামলায় লিপ্ত ছিল, গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর এ সিদ্ধান্ত মেনে নিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।রোববার ট্রাম্পের অন্যতম প্রধান সহযোগী, হোয়াইট হাউসের পরবর্তী চিফ অব স্টাফ রাইনস প্রিবাস এ কথা জানিয়েছেন।

ডেমোক্র্যাটিক পার্টির সংগঠনগুলোর সার্ভারে সাইবার হামলার পেছনে রাশিয়া আছে, ট্রাম্প এটি বিশ্বাস করেছেন বলে জানিয়েছেন প্রিবাস। তবে হ্যাকারদের রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন পরিচালনা করেছেন, গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর এমন সিদ্ধান্তে ট্রাম্প একমত হয়েছেন কিনা তা পরিষ্কার করেননি তিনি।

‘ফক্স নিউজ সানডে’ অনুষ্ঠানে প্রিবাস বলেন, এই ঘটনাটিতে রাশিয়ার ভূমিকা তিনি মেনে নিয়েছেন, তাই এটি আর ইস্যু নয়।২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারণা চালাকালে রাশিয়া সাইবার হামলা চালিয়েছে ও ডেমোক্র্যাটিক পার্টির ইমেইল ফাঁস করেছে এবং ট্রাম্প এটি মেনে নিয়েছেন, এই প্রথম রিপাবলিকান দলীয় নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্টের শীর্ষ সহযোগীদের কেউ এ কথা স্বীকার করলেন।

ওই সাইবার হামলার পেছনে রাশিয়া আছে এবং তাকে জয়ী হতে রাশিয়া সাহায্য করেছে, এতদিন এই অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে আসছিলেন ট্রাম্প। ওই হ্যাকিংয়ের পেছনে হয় চীন আছে অথবা তার ‘নিজের বিছানায় শায়িত ৪০০ পাউন্ড ওজনের কোনো হ্যাকার’ এ কাজ করেছে, এমন কথাই বলে আসছিলেন ট্রাম্প।

২০ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিবেন ট্রাম্প। এর আগে ৮ নভেম্বরের নির্বাচন প্রভাবিত করতে রাশিয়ার ভূমিকা সম্পর্কে গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর সিদ্ধান্ত মেনে নেওয়ার জন্য অন্যান্য রিপাবলিকান নেতারা তার ওপর চাপ সৃষ্টি করছিলেন।

শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থাগুলো এক প্রতিবেদনে বলেছে, ট্রাম্পের সমর্থনে ডেমোক্র্যাটিক প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনকে হেয় করতে সাইবার হামলাসহ প্রভাব সৃষ্টিকারী প্রচারণা পরিচালনা করেছেন পুতিন।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY