মেয়ে পটাতেই পারলে এখন আপনার সাথে আড্ডা দেওয়া লাগত?


জি বাংলার কমেডি রিয়ালিটি শো মীরাক্কেলের নবম আসরে আমাদের দেশের হয়ে যে সবচেয়ে ভালো করেছেন তিনি এমদাদুল হক হৃদয়। তবে এ জন্য অনেক কষ্ট সইতে হয়েছে হৃদয়কে। কৌতুকের ভুবনে তাঁর আনাগোনা ছেলেবেলায়ই। স্কুল-কলেজে অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করতে গিয়ে দর্শকদের হাসাতে হতো। সে জন্য কৌতুকের বিকল্প নেই। তাই কৌতুক পড়তে, শুনতে মন চাইত। তখন নাটকও করতেন। ফলে অভিনয়ও কিছুটা রপ্ত হলো। কৌতুক বলাটি আরো ভালো করে শিখবেন ঠিক করে আবু হেনা রনির সঙ্গে যোগাযোগ করলেন। মীরাক্কেলের সাবেক চ্যাম্পিয়নের সংগঠন ‘বুনো পায়রা’র মাধ্যমে বেশ দক্ষও হলেন। শিখলেন কিভাবে পুরনো কৌতুককে নতুন করে তৈরি করতে হয়, কৌতুক বানানোর কৌশল। অনুশীলন, পরিবেশনও ছাড়েননি। এওয়ানের নতুন বছরের বিশেষ আয়োজনে থাকছে তার একটি ছোট্র সাক্ষাৎকার। তার কথার ভূবন থেকে ঘুরে এসেছেন নুরুল করিম:


hridoy
প্রশ্ন : কেমন আছেন?
উত্তর : খুব ভালো।
প্রশ্ন : আপনার ভালো জোকস শুনে যখন কেউ হাসে না, তখন আপনার অনুভূতি কেমন হয়?
উত্তর : অনুভূতি ভালোই হয়। কেননা নিজের মনকে এই বলে সান্ত্বনা দেই- আমার কথা কেউ হেসে উড়িয়ে দেয়নি।
প্রশ্ন : পারফরমেন্স শেষ করার পর আপনি থ্যাংক ইউ না বলে ওয়েলকাম বললে কেমন হতো?
উত্তর : ঠিক তেমন হতো, যেমনটা এই মুহূর্তে আপনাকে সাক্ষাৎকার না দিয়ে অন্য কোনো পত্রিকায় দিলে হতো।
প্রশ্ন : কেউ গান গেয়ে, কেউ কবিতা আবৃত্তি করে মেয়ে পটায়। আপনি কি কখনো জোকস বলে মেয়ে পটিয়েছেন?
উত্তর : মেয়ে যদি পটাতেই পারতাম, তাহলে কি এখন আপনার সাথে আড্ডা দেওয়া লাগত?
প্রশ্ন : ঢাকা শহরে জ্যামে বসে কী ভেবে টাইম পাস করেন?
উত্তর : জ্যাম রপ্তানি করার যদি কোনো সিস্টেম থাকত, তাহলে আমরা প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা আয় করতে পারতাম।
প্রশ্ন : কমেডিয়ান না হয়ে ডাক্তার হলে কী করতেন?
উত্তর : অপারেশন শেষে হাত-পা নাড়িয়ে থ্যাঙ্ক ইউ বলে জীবিত রোগীকেও মুমূর্ষু করে দিতাম!
প্রশ্ন : প্রেমে ছ্যাকা খেলে মানুষ কবি হয়। আর ক্রাশ খেলে?
উত্তর : কমেডিয়ান।
প্রশ্ন : জোকস শুনে মানুষ হাসে কেন?
উত্তর : কারণ, বাপ-মায়ের চড় থাপ্পরে নিমিষেই কাদিয়ে ফেলার যে পাওয়ার আছে, সেটা জোকসের মধ্যে নেই।
প্রশ্ন : পরী মণি, নুসরাত ফারিয়া কিংবা মাহিয়া মাহি- সুযোগ পেলে কার সাথে আইটেম গানের দৃশ্যে নাচতে চান?
উত্তর : সুযোগ যদি পেয়ে যাই, তাহলে শুধু নাচতে চাইব কেন? অন্যভাবে নিবেন না, গাইতেও চাইব।
প্রশ্ন : ছোট বেলায় কোন অপরাধের জন্য প্রায়ই শিক্ষকের বকাঝকা খেয়েছেন?
উত্তর : প্রশ্নের উত্তর অন্যভাবে দিচ্ছি। এই যেমন ধরুন-আপনি আমাকে জিজ্ঞেস করলেন, আপনার আব্বু আম্মু কী করেন? আমি উত্তর দিলাম-আমি জানি না; কারণ আমি রাতে খুব তাড়াতাড়ি ঘুমিয়ে যাই।
প্রশ্ন : স্ট্যান্ড আপ কমেডিয়ান না বলে সিট ডাউন কমেডিয়ান বলা হয় না কেন?
উত্তর : কারণ, স্ট্যান্ড আপ কমেডিয়ানদের জীবনে সিট ডাউন মোমেন্টের পরিধি খুব কম; তারা গোটা ছাত্রজীবনের বেশির ভাগ সময় বেঞ্চের উপরে কিংবা ক্লাসের বাইরে স্ট্যান্ড আপ করে কাটায়।
প্রশ্ন : প্রথম প্রেম ভোলা যায় না কেন?
উত্তর : কারণ, প্রথম প্রেমে কোনো ম্যাথমেটিকেল কোয়েকশন কিংবা রাসায়নিক বিক্রিয়ার সূত্র মনে রাখার ব্যাপার থাকে না।
প্রশ্ন : প্রেম না করার সবচে বড় পজেটিভ দিক কী?
উত্তর : স্বাধীনতা কী জিনিস তা হাড়ে হাড়ে অনুভব করা যায়।
প্রশ্ন : আপনার কোন বাজে অভ্যাস আপনার কাছে বাজে অভ্যাস মনে হয় না?
উত্তর : আড্ডা দেওয়া।
প্রশ্ন : মীরাক্কেলে যাবার পর থেকে আপনার উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন কী? যেটা আপনার চোখে নয়, মেয়েদের চোখে ধরা পড়ছে।
উত্তর : আমি যে এত স্মার্ট এবং কিউট সেটা মীরাক্কেলে না গেলে বুঝতাম না। অবশ্য এই পরিবর্তন আমার চোখে নয়, মেয়েদের চোখে ধরা পড়ছে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY