সারাবিশ্বে অন্যান্য জাতি-গোষ্ঠী ধর্মসম্প্রদায়ের ওপর জুলুম-নির্যাতন চলছে: খালেদা জিয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক: আজ সারাবিশ্বে অন্যান্য জাতি-গোষ্ঠী ধর্মসম্প্রদায় এবং বিশেষভাবে মুসলমানদের ওপর অবর্ণনীয় জুলুম-নির্যাতন চলছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

বিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে বৃহস্পতিবার এক বাণীতে তিনি এসব কথা বলেন। খালেদা জিয়া বলেন, বিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে আমি দেশবাসীসহ মুসলিম বিশ্বের শান্তি ও কল্যাণ কামনা করছি। তাদের জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও মোবারকবাদ। টঙ্গীতে বিশ্ব ইজতেমা বিশ্ব মুসলমানের দ্বিতীয় বৃহত্তম জমায়েত। বিশ্ব ইজতেমায় অংশগ্রহণকারী দেশ-বিদেশের অগণিত ধর্মভিরু মানুষের অব্যাহত সুখ, শান্তি ও কল্যাণ কামনা করছি।

তিনি বলেন, ইহলৌকিক ও পারলৌকিক মুক্তির জন্য বিশ্ব ইজতেমায় বাংলাদেশসহ সারাবিশ্ব থেকে লাখো মানুষের সমাগম ঘটে ঢাকার অদুরে তুরাগ নদীর তীরে টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমা ময়দানে। মহান আল্লাহ’র নামে মুখরিত হয়ে ওঠে ইজতেমা ময়দান। মোমিন-মুসলমানদের এই ঐতিহাসিক জমায়েত উপলক্ষে আমি আল্লাহ’র দরবারে দোয়া করছি- বিশ্বের সকল মানুষ যেন সংঘাত ও হানাহানি থেকে মুক্ত হয়ে সুখী ও আনন্দময় জীবন-যাপন করতে পারেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, হত্যা ও পুড়িয়ে মারা হচ্ছে নারী-শিশুসহ মুসলিম সম্প্রদায়ের অগনিত মানুষকে। সম্প্রতি রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর নির্যাতন, বাড়ি-ঘর থেকে উচ্ছেদ এক বিভৎসরুপ লাভ করেছে। মুসলিম রোহিঙ্গাদের জানমালের নিরাপত্তা ও তারা যেন নিজ গৃহে শান্তিতে বসবাস করতে পারে সেজন্য আমি মহান রাব্বুল আলামীনের দরবারে মোনাজাত করছি।

অপর এক বাণীতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর আগামীকাল থেকে শুরু হওয়া বিশ্ব ইজতেমার সার্বিক সাফল্য কামনা করেছেন। তিনি দেশ বিদেশ থেকে আসা ইজতেমা ময়দানে লাখো লাখো মুসলমানরা যাতে নির্বিঘেœ নামাজ, জিকির-আজগার সম্পাদন করতে পারেন সেইজন্য মহান আল্লাহ’র দরবারে মোনাজাত করেন।

তিনি বলেন, “তুরাগ নদীর পাড়ে বিশ্ব ইজতেমা ধর্মপ্রাণ মুসলমানের আত্মিক উন্নতিসাধনের এক অনন্য সম্মিলন। মোমিন মুসলমানদের এই ঐতিহাসিক জমায়েতে আমি বিশ্বমুসলমানের নিরাপত্তা, কল্যান ও শান্তির জন্য মহান আল্লাহ’র কাছে প্রার্থনা করছি।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY