নায়লা নাঈমের বিজ্ঞাপনচিত্র অশ্লীল বলে বিতর্কের ঝড়

এওয়ান বিনোদন রিপোর্টার: নায়লা নাঈম ব্রেস্ট ক্যান্সার প্রতিরোধে সচেতনতামূলক একটি বিজ্ঞাপনে পরামর্শদাতা হিসেবে দেখা গেছে তাকে। গত শনিবার ইউটিউবে প্রকাশিত হয়েছে এ বিজ্ঞাপনচিত্রটি। নায়লা নাঈমের পরামর্শগুলো অশ্লীল বলে বিতর্ক শুরু হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে।

বিজ্ঞাপনে দেখা যায়, ‘ওয়ান-টু-থ্রি বলে প্রকাশ্যে শার্ট খুলে নায়লা বলছেন— ‘অক্টোবর মাস ব্রেস্ট ক্যান্সার অ্যাওয়ারনেস মান্থ। বাংলাদেশের মেয়েদের জীবনের সবচেয়ে বড় ঝুঁকির কারণ ব্রেস্ট ক্যান্সার। এই দেশে প্রতি বছর ২০ হাজারেরও বেশি নারী ব্রেস্ট ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়। এটাকে চেকমেট দেওয়া খুব সহজ।’

তিনটি উপায় বাতলে দিয়ে তিনি বলেন, “দেখতে হবে আপনার ব্রেস্ট এ কোনো অ্যাবনরমালিটি আছে কি না। ধরে বুঝতে হবে কোনো লাম্ব বা চাকা ফিল করা যায় কি না। খুব সহজ তিনটি স্টেপ, ‘দেখবেন, ধরবেন ও চেক করবেন।’ তাহলে আমরা ক্যান্সারকে পিক করতে পারব।”

বিজ্ঞাপনটির শেষের দিকে নায়লা বলেন, ‘আচ্ছা, আমার তো একজন চেকমেট দরকার। কে হবেন, আমার চেকমেট?’ এমন সংলাপকে অশ্লীল উল্লেখ করে ফেসবুকে অনেকেই মন্তব্য করছেন।

এ ধরণের বিজ্ঞাপনের জন্য মডেল, নির্মাতাসহ সংশ্লিষ্টদের গ্রেফতারের দাবি জানিয়ে নাট্যকর্মী প্রসেনজিত রায় বলেন, ‘এই বিজ্ঞাপনটির মাধ্যমে ব্রেস্ট ক্যান্সারের বিষয়ে সচেতনতা নয়, অশ্লীলতাকে প্রচার করা হয়েছে। এই বিজ্ঞাপনটির সঙ্গে সম্পৃক্ত সবাইকে গ্রেফতার করা উচিত।’

চেকমেট নামের একটি ফেসবুক পাতায় বিজ্ঞাপনটি প্রকাশের পর সেই পেইজটির মন্তব্য ঘরে দেখা গেছে সমালোচনার ঝড়। প্রায় সবাই বিজ্ঞাপনটির সমালোচনা করে, এটি ডিলেট করার কথা বলেছেন। এমন অশ্লীল-কুরুচীপূর্ণ বিজ্ঞাপনের সমালোচনার পরও বিজ্ঞাপনটি এখনো চেকমেটের ফেসবুক পাতায় দেখা যাচ্ছে।

এদিকে বিজ্ঞাপন প্রসঙ্গে নায়লা নাঈম বলেন, ‘মডেলিং আমার প্রফেশন। আমি জেনে বুঝেই এমন বিজ্ঞাপনে মডেল হয়েছি।’ সমালোচনার প্রসঙ্গ টানলে এই মডেল বলেন, ‘সমালোচকরা সমালোচনা করবে। তাই বলে তো কাজ করা বন্ধ করতে পারি না।’

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY