পাঁচ দফা দাবি নিয়ে টেলিভিশন শিল্পীদের আন্দোলন

বিনোদন প্রতিবেদক: আন্দোলন মানেই যেন স্লোগানে স্লোগানে মুখরিত সভাস্থান। অথচ ভিন্নচিত্র চোখে পড়ল টেলিভিশন শিল্পী ও কলাকুশলীদের পাঁচ দফা দাবি আদায়ের জন্য সমাবেশে।

ফেডারেশন অব টেলিভিশন প্রফেশনাল অর্গানাইজেশন (এফটিপিও)-এর আয়োজনে আজ বুধবার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মিলিত হয়েছেন শত শত টেলিভিশন শিল্পী ও কলাকুশলী।

সমাবেশের শুরুতে বেশ ক’টি সংগঠনের কর্মীরা স্লোগান দিতে দিতে শহীদ মিনারে প্রবেশ করেন। কিন্তু মূল অনুষ্ঠান শুরুর মুহূর্তে স্বাগত বক্তব্যে স্লোগান দিতে নিষেধ করেন এফটিপিও’র আহবায়ক মামুনুর রশীদ। এ সময় তিনি বলেন, ‘সমাবেশের শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে এখানে কোনো স্লোগান দেবেন না। শহীদ মিনারের পবিত্রতা নষ্ট হয় এমন কিছু্ করা থেকে সবাইকে বিরত থাকার আহবান জানাচ্ছি।’

pic-1

এরপর তিনি সমাবেশে বিতরণ করা লিফলেটে উল্লেখ করা এফটিপিও’র পাঁচ দফা দাবি তুলে ধরেন। এগুলো হলো-

১. দেশের বেসরকারি চ্যানেলে বাংলায় ডাবকৃত বিদেশি সিরিয়াল/অনুষ্ঠান প্রচার বন্ধ করতে হবে।

২. টেলিভিশন অনুষ্ঠান নির্মাণ ক্রয় ও প্রচারের ক্ষেত্রে ক্লায়েন্ট/এজেন্সির হস্তক্ষেপ ব্যতিত চ্যানেলের অনুষ্ঠান সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রিত হতে হবে।

৩. টেলিভিশন শিল্পের সর্বক্ষেত্রে এ.আই.টির নূন্যতম ও যৌক্তিক হার পুনঃনির্ধারণ করতে হবে।

৪. দেশের টেলিভিশন শিল্পে বিদেশি শিল্পী ও কলাকুশলীদের অবৈধভাবে কাজ করা বন্ধ করতে হবে। বিশেষ প্রয়োজনে কাজ করতে হলে সরকারের অনুমতি এবং সংশ্লিষ্ট সংগঠন সমূহে নিবন্ধিত হতে হবে।

৫. ডাউনলিংক চ্যানেলের মাধ্যমে বিদেশি চ্যানেলে দেশীয় বিজ্ঞাপন প্রচার বন্ধ করতে হবে।

সম্প্রতি টেলিভিশন চ্যানেলের বিনিয়োগকারীদের উদ্যোগে গঠিত মিডিয়া ইউনিটির সদস্যরা সমাবেশে এসে শিল্পী ও কলাকুশলীদের সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করলেই কেবল তাদের সঙ্গে থাকবেন বলে জানান এফটিপিও আহ্বায়ক।

এরপর বক্তব্য রাখেন এফটিপিও’র সদস্য সচিব গাজী রাকায়েত। তারপর সাম্প্রতিক সময়ে প্রয়াত শিল্পীদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। বক্তব্য রেখেছেন অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান ও আবুল হায়াত। সমাবেশ চলবে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY