পাসপোর্ট বিতরণে প্রশংসিত মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাস

শেখ আরিফুজ্জামান, মালয়েশিয়া থেকে : কয়েক মাসের ব্যবধানে বদলে গেছে মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাসে পাসপোর্ট বিতরণের চিত্র। জানা গেছে, কয়েক মাস আগেও যেখানে ভোগান্তির কমতি ছিল না সেখানে লাইনে দাঁড়িয়ে অল্প সময়ের মধ্যে নতুন পাসপোর্ট তৈরি এবং অতি সহজে পাসপোর্ট গ্রহণ করতে পারছেন প্রবাসী বাংলাদেশীরা।

আট লাখেরও বেশি সংখ্যক বাংলাদেশির বসবাস মালয়েশিয়ায় থাকলেও দীর্ঘদিন যাবত বাংলাদেশ দূতাবাসের নামে অভিযোগের শেষ ছিল না। কিন্তু সম্প্রতি পাসপোর্ট বিভাগে নিযুক্ত ফার্ষ্ট সেক্রেটারি মশিউর রহমানের যোগদানের পর বদলে যেতে থাকে পাসপোর্ট বিভাগসহ নতুন করে পাসপোর্ট আবেদনের চিত্র। তাৎক্ষণিক সেবায় গড়ে প্রতিদিন ১২শর বেশি লোকের পাসপোর্ট সমস্যার সমাধান করা হচ্ছে।

সরেজমিনে দেখা যায় , আগে পাসপোর্ট উত্তোলনের জন্য স্লিপ জমা দেওয়ার পর ভাগ্যক্রমে একজন ব্যক্তির পাসপোর্ট পেতে যেখানে সারাদিন অপেক্ষা করতে হতো সেখানে তাৎক্ষণিক সেবা চালুর কারণে অল্প সময়ের মধ্যে পাসপোর্ট গ্রহণ করতে পারছে। আর এ তাৎক্ষণিক সেবায় পাসপোর্ট প্রদানের ক্ষেত্রে সহযোগিতা করছেন অফিস সহকারি সুশান্ত সরকার, সৈয়দ ইমতিয়াজ ও উম্মে হানি ।

দূতাবাসে পাসপোর্ট নিতে পেনাং রাজ্য থেকে আসা সাবিদ জাহান নামে এক ব্যক্তি এই প্রতিবেদককে বলেন, তার একই কোম্পানীর সহকর্মীরা কয়েক মাস আগে পাসপোর্ট সংগ্রহ করতে দূতাবাসে আসলে সারা দিন লেগে গিয়েছিল সেখানে আমরা একই কোম্পানির ১৮ জন ব্যক্তি ঘণ্টাখানেকের মধ্যে পাসপোর্ট হাতে পেয়ে অনেক খুশি। তারাতারি ফিরে যেতে পারলে কাল আর ক্লান্ত শরীর নিয়ে কাজে যাওয়া লাগবে না।

এদিকে একই চিত্র লক্ষ্য করা গেছে নতুন করে পাসপোর্ট তৈরির আবেদনের লাইনে। সকাল থেকে বাংলাদেশিরা তাদের পাসপোর্ট তৈরির জন্য লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন। রি- ইস্যু ও নতুন পাসপোর্ট আবেদনকারীদের আবেদন ফরমে কোন ত্রুটি আছে কিনা যাচাই করে অফিস সহকারি আরিফুল ইসলাম, সাইফুল ও নাইম আবেদনকারীদের ফিঙ্গারিং নিচ্ছেন।

তাৎক্ষণিক সেবার বিষয়ে গতকাল কথা হয় পাসপোর্ট বিভাগে নিযুক্ত ফার্ষ্ট সেক্রেটারি মশিউর রহমানের সঙ্গে। তিনি বলেন, আমরা শ্রমিকদের সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে সমাধানে যথাসাধ্য চেষ্টা করছি। এছাড়া মালয়েশিয়ার জহুর বারু, পেনাং, মালাক্কা, ক্যামেরুন হাইলেন্ডসহ দূরের প্রদেশগুলোতে মোবাইল ক্যাম্পিংয়ের মাধ্যমে পাসপোর্ট আবেদন ও ডেলিভারির ব্যবস্থা করা হচ্ছে যাতে শ্রমিকদের পাসপোর্ট করতে এবং পাসপোর্ট পেতে অসুবিধা না হয়।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY