মিয়ানমারের সকল পণ্য বিশ্বমুসলিমকে বর্জন করার আহ্বান

প্রাইভেট মাদরাসা অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ-এর মানববন্ধনে নেতৃবৃন্দ

নিজস্ব প্রতিবেদক: মিয়ানমারের মুসলমানদের নির্মম গণহত্যা, নারী ও শিশুদের গণধর্ষণ ও পৈশাচিক বর্বরতার প্রতিবাদে প্রাইভেট মাদরাসা অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশের উদ্যোগে আজ মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাব চত্ত্বরে মানববন্ধন চত্ত্বরে মানববন্ধন কর্মসুচী পালন করে। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন দলিপাড়া জামিয়া ইমদাদিয়া উত্তরার মুহতামিম, শাইখুল হাদীস আল্লামা শেখ আজীমুদ্দিন দা.বা.। সভাপতিত্ব করেন প্রাইভেট মাদরাসা অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশের চেয়ারম্যান হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ। মানববন্ধনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জাতীয় ওলামা মাশায়েখ আইম্মা পরিষদ উত্তরা জোনের সভাপতি মুফতি ওয়াহিদুল আলম, সংগঠনের মহাসচিব মুফতি নিয়ামতুল্লাহ আমিন, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা শামছুদ্দোহা, মুফতি উসমান আশরাফী, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আব্দুল জব্বার, মুহাম্মদ শাহাবুদ্দিন আহমদ খন্দকার, মুফতি আবুল হাসান, মাওলানা উবায়দুল্লাহ মানসুর, হাফেজ মাওলানা আবু ইউসুফ প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে শাইখুল হাদীস আল্লামা শেখ আজীমুদ্দিন বলেন, মিয়ানমারের মুসলমানদের নৃশংসভাবে গণহত্যা, তাদের বাড়ী-ঘরে আগুন, মসজিদ-মাদরাসা ধ্বংস করে চরম বর্বরতার পরিচয় দিয়েছে এবং মানবাধিকার লঙ্ঘন করছে। এর জন্য জাতিসংঘ, ওআইসিসহ বিশ্বর মানবাধিকার সংগঠনগুলোকে ঐক্যবদ্ধভাবে মিয়ানমার সরকারকে চাপ দিতে হবে প্রয়োজনে মিয়ানমারের সাথে সকল কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করতে হবে।

সভাপতির বক্তবে মাওলানা মাসুম বিল্লাহ বলেন, মিয়ানমারের সরকারী বাহিনীর ত্রিমুখি নৃশংসতায় দিশেহারা রোহিঙ্গা মুসলমানরা। মানবতা আজ বিপন্ন, রোহিঙ্গাদের আর্তচিৎকারে ভারী হয়ে উঠছে আকাশ-বাতাস, রক্ত-ক্ষরণ হচ্ছে বিশ্বের ১৬০ কোটি মুসলমানের হৃদয়। ফুঁসে উঠছে মুসলিম জাতি। রোহিঙ্গা মুসলিম হত্যা বন্ধে জাতিসংঘ ও ওআইসি বলিষ্ট ভুমিকা রাখার আহ্বান জানাচ্ছি। তিনি বলেন, বাংলাদেশ সরকারকে নির্যাতিত রোহিঙ্গা মুসলমানদের আশ্রয় দিতে হবে। প্রয়োজনে সীমান্ত খুলে দিতে হবে। তিনি মিয়ানমারের সকল পণ্য বিশ্বমুসলিমকে বর্জন করার আহ্বান জানান।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY