শিল্পী আসিফ পাগল: মুশফিক

ফাইল ফটো

ক্রীড়া ডেস্ক: সম্প্রতি সংগীত শিল্পী ও বরিশাল বুলসের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর আসিফ আকবর তার ফেসবুকে বরিশাল বুলস বিপিএলে ম্যাচ ফিক্সিং করছে উল্লেখ করে স্ট্যাটাস দিয়েছেন যে, ‘আমার দল বরিশাল বুলসের দেশি ও বিদেশি খেলোয়াড়দের একটা অংশ ফিক্সিংয়ের সাথে জড়িত। আমি নিশ্চিত, প্রমাণ নেই। তবে বিসিবি ও আকসু যদি তীক্ষ্ম দৃষ্টি দেয়, তাহলে অবশ্যই তারা প্রমাণ খুঁজে পাবেন। আমার বিশ্বাস।’

বরিশাল বুলসকে নিয়ে আসিফের দেয়া এমন স্ট্যাটাসে ভীষণ ক্ষেপেছেন দলটির অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। আসিফের মতো একজন সেলিব্রেটি এমন বাজে কথা বলতে পারেন তিনি বিশ্বাসই করতে পারছেন না। মুশফিক এও বুঝতে পারছেন না, একথা যখন আসিফ লিখেছেন তিনি তখন সজ্ঞানে ছিলেন কী না।

‘এটা শোনার পরে এবং দেখার পরে নিজের চোখকেও বিশ্বাস করতে পারছিলাম না। উনি আমাদের দেশের একজন সেলিব্রেটি এবং শিক্ষিত একজন মানুষ। তার কাছ থেকে এরকম কথা আসবে বা উনি এমন কিছু লিখবেন, এটা আসলে খুবই বিরক্তিকর ও লজ্জার। কারণ একজন প্লেয়ার হিসেবে আপনি যদি দেখেন আমাদের দলের যে প্লেয়ারই হোক না কেন, দেশি অথবা বিদেশি আমরা সবাই কষ্ট করে খেলছি। এটাই আমাদের আয়ের উৎস। এটার সাথে যদি কেউ বেইমানি করে তার চাইতে খারাপ কিছু হতে পারে না।’ জানান মুশফিক।

‘উনি যে ওটা লিখেছেন, সেটা মাথা ঠিক অবস্থায় না কি বেঠিক অবস্থায় লিখেছেন সেটা আমি বুঝতে পারছি না। ওনাকে পেলে আমি জিজ্ঞেস করবো যে ভাই কোন অবস্থায় আপনার এমন মনে হয়েছে এবং কোন দেশি বা বিদেশি প্লেয়ার এটা করেছে। উনি লিখেছেন নিশ্চিত, কিন্তু ওনার কাছে প্রমাণ নাই। এটা কোন ধরনের ভাষা? এটাই বলে দেয় উনি সজ্ঞানে ছিলেন কী না।’ যোগ করেন মুশফিক।

মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে এসে আসিফের দেয়া ফেসবুক স্ট্যাটাসের প্রতিক্রিয়া তিনি এভাবেই জানান।

এ সময় আসিফকে পাগল উল্লেখ করে মুশফিক বলেন, ‘ওনার খেলার প্রতি দুর্বলতা আছে আমি সেটা জানি। এর আগেও তিনি অনেকভাবে খেলার সাথে জড়িত ছিলেন। তাই এরকম মানুষের কাছ থেকে এমন কিছু পাওয়া সেটা আসলেই লজ্জাজনক। তিনি বলতে পারতেন আমাদের যে খেলা হচ্ছে তাতে তিনি আপসেট। এটা আমিও বিশ্বাস করি আমাদের খেলায় পুরো বরিশালবাসি আপসেট। পাগল ছাড়া একজন সুস্থ মানুষের পক্ষে এটা করা সম্ভব না।’

বিশ্ব ক্রিকেটের জন্য আসিফের এমন কর্মকাণ্ডকে হুমকি জানিয়ে করে মুশফিক আরও বলেন, ‘একদিন পর পর খেলা, টিম হোটেলে গিয়ে দল নিয়ে মিটিং করতে হয়, দল নির্বাচন করতে হয়, রিকভারি করতে হয়, অনুশীলন করতে হয়, কোন অবস্থায় কোন বোলার বা ব্যাটসম্যানকে আনবো এসব নিয়ে ভাবতে ভাবতেই সময় পাই না। এরমধ্যে মানুষ কিভাবে সময় পায় এটা আমার মাথায় কাজ করে না। যারা এ ধরনের কাজ করেন বা এ জাতীয় কথা লেখেন তারা বিশ্ব ক্রিকেটের জন্য হুমকি স্বরুপ। শুধু বিপিএলেই নয় বিশ্ব ক্রিকেটের অন্যান্য আসরেও এ জাতীয় মানুষ থাকতে পারে।’

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY