সৌদি প্রিন্সের দণ্ড কার্যকর

এ ওয়ান নিউজ ডেস্ক: নিজ দেশের এক নাগরিককে গুলি করে মারার দায়ে মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত এক সৌদি প্রিন্সের দণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বরাতে বিবিসি জানিয়েছে, তিন বছর আগে সৌদি রাজধানী রিয়াদে ঝগড়া চলাকালে ওই ব্যক্তিকে গুলি করে মারেন প্রিন্স তুর্কি বিন সৌদ আল কবির।

সম্প্রতি রিয়াদে তার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। কী পদ্ধতিতে প্রিন্স তুর্কির মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে তার বিস্তারিত জানানো হয়নি, তবে সৌদি আরবে মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত ব্যক্তিদের সাধারণত শিরশ্ছেদ করা হয়।

চলতি বছর দেশটিতে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা ১৩৪তম ব্যক্তি হলেন প্রিন্স তুর্কি। সৌদি রাজ পরিবারের কারো মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা একটি বিরল ঘটনা। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়, নিজ দেশের নাগরিককে গুলি করে মারার কথা স্বীকার করেছিলেন প্রিন্স।

এই মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের কথা ঘোষণা করে মন্ত্রণালয়টি বলে, সরকার নিরাপত্তা বজায় রাখা এবং ন্যায় বিচার নিশ্চিত করতে ব্যগ্র। আল অ্যারাবিয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নিহতের পরিবার ‘রক্তের বদলে ক্ষতিপূরণ’ নিতে অস্বীকার করে মৃত্যুদণ্ডের আর্জি জানায়।

মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত হওয়া সৌদি রাজপরিবারের সদস্যদের মধ্যে প্রিন্স ফয়সাল বিন মুসাইদ আল সৌদের ঘটনা সবচেয়ে বেশি আলোচিত। ১৯৭৫ সালে তিনি তার চাচা বাদশা ফয়সালকে গুলি করে হত্যা করেছিলেন।

সৌদি আরবে মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্তদের অধিকাংশই খুনের বা মাদক পাচারের দায়ে দণ্ডিত হয়ে থাকেন। তবে চলতি বছরের জানুয়ারিতে ‘সন্ত্রাসবাদের’ অভিযোগে একদিনে প্রায় ৫০ জনকে ফাঁসি দেওয়া হয়েছিল, যাদের মধ্যে শিয়া সম্প্রদায়ের প্রখ্যাত ধর্মীয় নেতা নিমর আল নিমরও ছিলেন।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY