১০ টাকার চাল ওজনে কম দেওয়ায় ভুক্তভোগী-ডিলাদের সংঘর্ষে আহত ১০

কুমিল্লা প্রতিনিধি: কুমিল্লায় ১০ টাকার চাল বিতরণকালে ওজনে কম দেওয়ায় ভুক্তভোগী গ্রাহক ও ডিলার সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

চাল বিতরণে অনিয়মের প্রমাণ পাওয়ায় সংশ্লিষ্ট ডিলারের ডিলারশিপ বাতিল ও বিক্রয়কেন্দ্র সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফি সার মোহাম্মদ সাইদুল আরিফ।

জানা যায়, বুধবার দুপুরে নাঙ্গলকোট মৌকরা ইউনিয়নের সুরপুর গ্রামে ডিলার শহীদুল ইসলাম ওরপে বাবুল ১০ টাকায় চাল বিতরণ করছিলেন। এ সময় তিনি ওজনে কম দেন।

অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, ওজনে কম দেওয়ার ঘটনাটি চারদিকে ছড়িয়ে পড়লে কার্ডধারী হতদরিদ্ররা প্রতিবাদ করতে আসেন। এ সময় তাদের সঙ্গে ডিলারের সমর্থকরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন।

ওই ডিলার বুধবার ৭৭ জনের মাঝে চাল বিতরণ করেন। প্রত্যেককে ৩০ কেজি চাল দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ওজনের বিষয়টি সন্দেহ হওয়ায় ১০-১২ জন গ্রাহক চাল পুনরায় ওজন করেন। পরে দেখা যায় গ্রাহকপ্রতি ২/৪ কেজি চাল কম আছে।

হতদরিদ্র কার্ডধারী মো. জয়নাল আবদিন অভিযোগ করে বলেন, তিনি গ্রামের কয়েক ব্যক্তি ও অভিযোগকারীদের সঙ্গে নিয়ে ডিলার শহীদুল ইসলামের কাছে গিয়ে চাল কম দেওয়ার কারণ জানতে চান। এ সময় ডিলার শহীদুল ও তার সহযোগীরা খারাপ আচরণ করেন। এমনকি ৩০ কেজির চাউলের পরিবর্তে ২৬ কেজি চাউল দেওয়া হয়েছে। পরে এ নিয়ে সংঘর্ষ বাঁধে। সংঘর্ষে আহতরা হলেন পলাশ, জয়নাল আবদিন, আলমাছ, বাবুল, মুন্না, আনোয়ার, সাগরসহ অন্তত ১০ জন।

ডিলার শহীদুল ইসলাম (বাবুল) ওজনে চাল কম দেওয়ার বিষয়ে বলেন, ‘মেশিনে সমস্যার কারণে সঠিক ওজন করা যায়নি।’

এ ব্যাপারে ট্যাগ অফিসার ও সমবায় অফিসার মো. কেফায়েত উল্লাহ বলেন, আমাকে না জানিয়ে ডিলার চাল বিক্রি করছে, উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশে সরেজমিনে এসে ওজনে চাল কম দেওয়ার সত্যতা পেয়েছি।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY