শনিবার 19 জানুয়ারী 2019 - ৬, মাঘ, ১৪২৫

হেফাজত আমীরের অভিমত রাষ্ট্রীয় নীতির সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়: শিক্ষা উপমন্ত্রী 

১২ জানুয়ারী, ২০১৯ ১৪:২৩:৪৬

চট্টগ্রাম প্রতিবেদক: মেয়েদের স্কুল-কলেজে না পড়ানোর আহ্বানকে ‘হেফাজত আমীরের’ ব্যক্তিগত অভিমত বলে মন্তব্য করে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, ‘এই বক্তব্য একান্তই ‘হেফাজত আমীরের’ ব্যক্তিগত অভিমত। এই বক্তব্য রাষ্ট্রীয় নীতির সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়।’

শনিবার (১২ জানুয়ারি) সকালে চট্টগ্রাম নগরীর চশমাহিলের বাসায় সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় এক প্রশ্নের জবাবে উপমন্ত্রী এই প্রতিক্রিয়া জানান। শুক্রবার চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলায় দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম মাদ্রাসার ১১৮ তম বার্ষিক মাহফিলে মাদ্রাসার পরিচালক শফী’র দেওয়া একটি বক্তব্য ও ভিডিও বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়। সেখানে বলা হয়, মেয়েদেরকে স্কুল-কলেজে না দিতে এবং দিলেও সর্বোচ্চ ক্লাস ফোর বা ফাইভ পর্যন্ত পড়ানোর জন্য ওয়াদা নিয়েছেন আহমদ শফী। পরে বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও আলোচনা শুরু হয়।

হেফাজতে আমীরের নাম উল্লেখ না করে উপমন্ত্রী নওফেল বলেন, ‘যিনি এই মন্তব্যটা করেছেন, তিনি তার ব্যক্তিগত অভিমত দিয়েছেন। বাংলাদেশের শিক্ষানীতি প্রণয়ন, শিক্ষা ব্যবস্থাপনা বা পরিচালনা অথবা শিক্ষা খাতে কোনো নির্বাহী দায়িত্বে তিনি নেই। যেহেতু তিনি কোনো ধরনের সিদ্ধান্ত গ্রহণের অবস্থানে নেই, তিনি অভিমত দিলেই সেটা রাষ্ট্রীয় নীতিতে অন্তর্ভুক্ত বা প্রতিফলিত হবে, এমন চিন্তা করবার অবকাশ নেই। সমাজে এরকম অনেকেই অনেক ধরনের অভিমত দেন।’

নওফেল বলেন, দেশের যে কোনো নাগরিকেরই বাকস্বাধীনতা আছে। তার মনের ভাবনা প্রকাশ করার অধিকার আছে। তবে আমি সম্মানের সাথে বলব, আমরা সকলেই যারা বাকস্বাধীনতার চর্চা করছি, আমরা যেন এই বিষয়টা মাথায় রাখি যে- সংবিধান অনুসারে আমাদের সকলের সমান অধিকার নিশ্চিত করা হয়েছে। আমরা যেন বৈষম্যমূলক মন্তব্য না করি।’

পাঠ্যপুস্তকে সাম্প্রদায়িকীকরণ দেশের জন্য বিপদজনক বলেও মন্তব্য করেছেন পাঁচদিন আগে উপমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেওয়া তরুণ সংসদ সদস্য নওফেল।

তিনি বলেন, পাঠ্যপুস্তককে সাম্প্রদায়িকীকরণ বা বিভাজন সৃষ্টি করা, কোমলমতিদের মানসিকতায় এসব বিভাজন দিয়ে দেওয়া, দীর্ঘমেয়াদে সমাজের স্থিতিশীলতা নষ্ট করবে। পড়াশোনা যদি সাম্প্রদায়িকীকরণ করা হয় তাহলে অদূর ভবিষ্যত নয়, নিকট ভবিষ্যতও আমাদের জন্য বিপদজনক হয়ে পড়বে।

তিনি আরও বলেন- আওয়ামী লীগ ধর্মনিরপেক্ষ রাজনৈতিক আদর্শে বিশ্বাস করে। বাংলাদেশের সংবিধান ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র গঠন করতে আমাদের বাধ্য করেছে। আমরা অবশ্যই ইসলামের অনুশাসন মেনে চলব, সনাতন ধর্মাবলম্বীরা তাদের অনুশাসন মেনে চলবেন। কিন্তু অসাম্প্রদায়িক, ধর্মনিরপেক্ষ কারিকুলাম অত্যন্ত প্রয়োজন। পাশাপাশি ধর্মীয় শিক্ষার মানোন্নয়নও খুবই প্রয়োজন। এতে সমাজে অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি হবে না।

পাঠ্যপুস্তক থেকে প্রগতিশীল লেখকদের গল্প-কবিতা বাদ দেওয়া প্রসঙ্গে নওফেল বলেন, ‘যারা এই কাজ করেছিলেন, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আমরা এখন থেকে সতর্ক থাকব, যাতে এই ধরনের কার্যকলাপ আর না হয়।’

পিইসি-জেএসসি পরীক্ষার আদৌ প্রয়োজন আছে কিনা, জানতে চাইলে তিনি বলেন, পিইসি পরীক্ষা একটা পাবলিক পরীক্ষায় পরিণত হয়ে গেছে। এখন এটা কিভাবে নিরসন করা যায়, সেই চেষ্টা করা হচ্ছে। তবে প্রাইমারি স্কুল লেভেলের একটা সার্টিফিকেটেরও প্রয়োজন আছে।

চট্টগ্রাম মহানগরীতে নতুন সরকারি স্কুল স্থাপনের প্রয়োজনীয়তার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘জেলা প্রশাসনের সঙ্গে আমি কথা বলেছি। তারা বলছে, জায়গা সংকটের কারণে নতুন করে সরকারি স্কুল স্থাপন করা প্রায় অসম্ভব। তার চেয়ে নগরীর নামীদামী স্কুলগুলো সরকারিকরণ করা ভালো হবে বলে ফিল্ড লেভেল থেকে অভিমত এসেছে।’

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনায় জনপ্রতিনিধিদের অন্তর্ভুক্তিতে রাজনীতিকরণের সুযোগ থাকে মন্তব্য করে নওফেল বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ততা ভালো, কিন্তু আবার রাজনীতিকরণের একটা সমস্যা সৃষ্টি হয়ে যায়। কারণ একজন জনপ্রতিনিধির কাছে ভর্তি সংক্রান্ত, নিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়ে মানুষের তদবির থাকে। একজন জনপ্রতিনিধির এসব তদবির অগ্রাহ্য করাটা খুবই কঠিন। ফিল্ড ওপিনিয়ন বলছে, সেক্ষেত্রে কর্মকর্তা দ্বারা যদি একটা মিশ্রণ করা হয়, তাহলে পাবলিক ডিমান্ড এবং প্রফেশনাল ম্যানেজমেন্টের মধ্যে সামঞ্জস্য আসবে। এই বিষয়ে অবশ্য আমরা একমত।

এই প্রসঙ্গে উপমন্ত্রী নওফেল জানান, দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই তদবিরের চাপে পড়েছেন তিনি। শুরুতেই মেয়াদ শেষ হওয়া একটা প্রকল্পের ৬ হাজার শিক্ষকের একটা ফাইল নিয়ে, তাদের জন্য তদবির করতে একজন প্রতিনিধি গেছেন তার কাছে।

তবে নওফেল মনে করেন, সামগ্রিক শিক্ষা ব্যবস্থায় গত ১০ বছরে একটা বৈপ্লবিক পরিবর্তন হয়ে গেছে। এরপরও যেসব দুর্বলতা চিহ্নিত করা গেছে, সেগুলোর উন্নয়নে সবার সহযোগিতা চেয়েছেন নওফেল।

মতবিনিময় সভায় নওফেলের সঙ্গে চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এম এ সালাম, চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সভাপতি কলিম সরওয়ার ও সাধারণ সম্পাদক শুকলাল দাশ, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি নাজিমউদ্দিন শ্যামল, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি গিয়াস উদ্দিন এবং শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক বেদারুল আলম চৌধুরী বেদার, স্বাচিপ নেতা ডা.শেখ শফিউল আজমসহ নেতাকর্মীরা ছিলেন।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল চট্টগ্রামের সাবেক মেয়র প্রয়াত এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর ছেলে। চট্টগ্রাম-৯ (কোতোয়ালী-বাকলিয়া) আসন থেকে তিনি এবার প্রথম সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।



এ সম্পর্কিত খবর

দুর্বৃত্তদের দেওয়া আগুনে শিশুসহ দুই জনের মৃত্যু

দুর্বৃত্তদের দেওয়া আগুনে শিশুসহ দুই জনের মৃত্যু

ভোলা প্রতিনিধি: ভোলার লালমোহন চরভূতা ইউনিয়নে দুর্বৃত্তদের দেওয়া আগুনে দগ্ধ হয়ে এক নারী ও এক

রোদে পোড়া শরীর, নায়িকাদের রুপে বিলীন

রোদে পোড়া শরীর, নায়িকাদের রুপে বিলীন

নিজস্ব প্রতিবেদক: গত ১৫ জানুয়ারি থেকে সংরক্ষিত মহিলা আসনের মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু করেছে আওয়ামীলীগ।

ডাকসু নির্বাচনে ৫ রিটার্নিং কর্মকর্তা নিয়োগ

ডাকসু নির্বাচনে ৫ রিটার্নিং কর্মকর্তা নিয়োগ

এওয়ান নিউজ: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচনের আচরণবিধি প্রণয়নে ৭


লালমোহনে ঘুমন্ত গৃহবধুকে পুড়িয়ে হত্যার অগিযোগ, দগ্ধ- ২

লালমোহনে ঘুমন্ত গৃহবধুকে পুড়িয়ে হত্যার অগিযোগ, দগ্ধ- ২

ভোলা প্রতিনিধি: ভোলার লালমোহন উপজেলায় চরভ‚তা ইউনিয়নে ঘুমন্ত গৃহবধু সুরমাকে (২৬) পুড়িয়ে হত্যা করার অভিযোগ

"বড্ড বেরসিক আমি"

মিলি সুলতানা : এক পরিচিত জন আমার কাছে জানতে চাইলেন, পৃথিবীর সেরা হিসেবে স্বীকৃত এমন

জাল ভিসা থেকে বাঁচতে কী করবেন?

জাল ভিসা থেকে বাঁচতে কী করবেন?

এওয়ান নিউজ ডেস্ক: ভ্রমণে জন্য এক দেশ থেকে অন্য দেশে যাওয়ার জন্য ভিসার বিকল্প নেই।


'রাজনীতি না করে অভিনেত্রীদের এমপি হতে চাওয়া ইতিবাচক নয়'

'রাজনীতি না করে অভিনেত্রীদের এমপি হতে চাওয়া ইতিবাচক নয়'

বিনোদন ডেস্ক: সংরক্ষিত নারী আসনে মনোনয়নের জন্য ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের ফরম কেনার হিড়িক লেগেছে চলচ্চিত্র

‘বেস্ট সেলিং ব্রান্ড’ হলো আতঙ্ক: জাতিসংঘ মহাসচিব

‘বেস্ট সেলিং ব্রান্ড’ হলো আতঙ্ক: জাতিসংঘ মহাসচিব

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:বিশ্বজুড়ে ব্যাপক বিস্তৃত আতঙ্ক ও অবিশ্বাসের ভয়াবহতা সম্পর্কে সতর্ক করেছেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তনিও গুতেরাঁ।

ট্রাম্প-কিমের মধ্যে আবারও বৈঠক হতে যাচ্ছে

ট্রাম্প-কিমের মধ্যে আবারও বৈঠক হতে যাচ্ছে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরীয় নেতা কিম জং-উনের মধ্যে আবারও বৈঠক হতে



আরো সংবাদ

বিজয় উৎসবে শেখ হাসিনা

বিজয় উৎসবে শেখ হাসিনা

১৯ জানুয়ারী, ২০১৯ ১৫:৪৭

ঐক্যফ্রন্টের গন্তব্য কি?

ঐক্যফ্রন্টের গন্তব্য কি?

১৯ জানুয়ারী, ২০১৯ ১২:৩৪


দুপুরে আওয়ামী লীগের বিজয় সমাবেশ

দুপুরে আওয়ামী লীগের বিজয় সমাবেশ

১৯ জানুয়ারী, ২০১৯ ১১:১৭





পূরণ হচ্ছে বিএনপির শূন্যপদগুলো!

পূরণ হচ্ছে বিএনপির শূন্যপদগুলো!

১৮ জানুয়ারী, ২০১৯ ১৬:১৯



এবার বিরোধী দলও বানাচ্ছে সরকার!

এবার বিরোধী দলও বানাচ্ছে সরকার!

১৮ জানুয়ারী, ২০১৯ ১১:৩৪


ব্রেকিং নিউজ






নোয়াখালীতে আবারও গণধর্ষণ

নোয়াখালীতে আবারও গণধর্ষণ

১৯ জানুয়ারী, ২০১৯ ১৬:০০



বিজয় উৎসবে শেখ হাসিনা

বিজয় উৎসবে শেখ হাসিনা

১৯ জানুয়ারী, ২০১৯ ১৫:৪৭

"বড্ড বেরসিক আমি"

১৯ জানুয়ারী, ২০১৯ ১৫:২১