এবার কানের লালগালিচায় কালোদের জয়জয়কারের প্রতিচ্ছবি


বিনোদন ডেস্ক: যে যেভাবে ইচ্ছে নাচতে শুরু করেছে। প্রত্যেকের গায়ে বিচিত্র পোশাক। অথচ কানের লালগালিচায় ছেলেদের টাক্সেডো আর বো-টাই পরে আসা নিয়ম। মার্কিন নারী নির্মাতা ড্যানিয়েল লেসোভিৎজের প্রথম ছবি ‘পোর্ট অথরিটি’র কৃষ্ণাঙ্গ অভিনয়শিল্পীরা সেই রেওয়াজ ভেঙে দিলেন।উৎসবের ৭২তম আসরের পঞ্চম দিন (১৯ মে) বিকালে দেখা গেলো অন্যরকম এই দৃশ্য। আদতে এটি এবারের আয়োজনে কালোদের জয়জয়কারের প্রতিচ্ছবি।

আফ্রিকান বংশোদ্ভুত প্রথম নারী নির্মাতা হিসেবে কানের মূল প্রতিযোগিতা বিভাগে জায়গা পেয়ে ইতিহাস গড়েছেন মাতি দিওপ। ফরাসি-সেনেগালিজ এই পরিচালকের ছবি ‘আটলান্টিক’ লড়ছে স্বর্ণ পামের জন্য। ২০০৯ সালে নিজের বানানো স্বল্পদৈর্ঘ্য প্রামাণ্যচিত্র অবলম্বনে তিনি এটি তৈরি করেছেন। এতে দেখানো হয়েছে সাগরপাড়ি দিয়ে স্পেনে যাওয়ার সময় সেনেগালের এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়। ‘আটলান্টিক’-এর পটভূমি নারীর দৃষ্টিকোণ থেকে সাজানো। সমালোচকরা ছবিটির ভূয়সী প্রশংসা করেছেন। এর বেশিরভাগ অভিনয়শিল্পী কৃষ্ণাঙ্গ ও আনকোড়া। তাদের কয়েকজনকে বেছে নেওয়া হয়েছে সেনেগালের দাকারের সড়ক থেকে। অভিনেতা ইব্রাহিম এমবায়ে ভেবেছিলেন, এটি বড়জোড় সেনেগালের টিভি পর্যন্ত যাবে!

‘আটলান্টিক’-এর মাধ্যমে অভিনেত্রী থেকে প্রথমবার চলচ্চিত্র পরিচালনায় এসেছেন মাতি দিওপ। তার বেড়ে ওঠা চলচ্চিত্রের আবহে। তিনি হলেন সেনেগালের পথিকৃৎ নির্মাতা জিবরিল দিওপ মামবেতির ভাইঝি। জিবরিলের ‘তুকি বুকি’র প্রিমিয়ার হয় ১৯৭৩ সালের কান উৎসবে। সংগীতশিল্পী ওয়াসিস দিওপের মেয়ে মাতির বয়স এখন ৩৬ বছর।

মাতির মতো পশ্চিম আফ্রিকার দেশ মালির বংশোদ্ভুত ফরাসি নির্মাতা লেজ লি প্রথম ছবি বানিয়েই কানের মূল প্রতিযোগিতা বিভাগে জায়গা করে নিয়েছেন এবার। তার ‘লে মিজারেবলস’ দেখে সমালোচকরা মুগ্ধ। ৩৯ বছর বয়সী এই নির্মাতাকে বলা হচ্ছে ফ্রান্সের ‘স্পাইক লি’!‍ ইতোমধ্যে অ্যামাজন স্টুডিও যুক্তরাষ্ট্রে এ ছবির স্বত্ব কিনে নিয়েছে। লেজ লি তার একই নামের একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি অবলম্বনে পূর্ণদৈর্ঘ্য কাহিনিচিত্রটি বানিয়েছেন। এর গল্প ২০০৫ সালে প্যারিসে এক দাঙ্গায় অনুপ্রাণিত।
প্যাভিলিয়ন আফ্রিক

আঁ সাঁর্তে রিগার বিভাগে নির্বাচিত মার্কিন নারী নির্মাতা অ্যানি সিলভারস্টাইনের প্রথম ছবি ‘বুল’-এর গল্প আফ্রিকান একজন বয়স্ক বুলফাইটারকে ঘিরে। ভিলেজ ইন্টারন্যাশনালে ‘প্যাভিলিয়ন আফ্রিক’-এ আফ্রিকান সিনেমা ও মহাদেশটির নির্মাতাদের জয়গান দেখা যাচ্ছে প্রতিদিন। এবারই প্রথম আফ্রিকার ১৫টি দেশের নির্মাতারা এক তাঁবুর নিচে একত্রিত হলেন।এদিকে শনিবার (১৭ মে) উৎসবের চতুর্থ দিনেও সকাল থেকে মাঝরাত অবধি বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের নতুন নতুন ছবির প্রদর্শনী হয়েছে।
দ্য ওয়াইল্ড গুজ লেক

প্রতিযোগিতা বিভাগ
গ্র্যান্ড থিয়েটার লুমিয়েরে উৎসবের পঞ্চম দিন বিকাল সাড়ে ৪টায় ডিয়াও ইনান পরিচালিত ‘দ্য ওয়াইল্ড গুজ লেক’ ছবির উদ্বোধনী প্রদর্শনী হয়। এর গলে।প দেখা যায়, অপরাধ জগতের এক নেতা মুক্তি পেতে পালাচ্ছে। এক মেয়ে স্বাধীনতার জন্য ঝুঁকির পথে পা বাড়ায়। তারা চূড়ান্ত এক জুয়ায় নামে। হয়তো সেটাই তাদের শেষ দিন।

শনিবার গ্র্যান্ড থিয়েটার লুমিয়েরে রাত ১০টায় ছিল রোমানিয়ান নির্মাতা কর্নেলিউ পরমবয়ুর ‘দ্য হুইসলারস’। এর গল্প রোমানিয়ান পুলিশ কর্মকর্তা ক্রিস্টিকে ঘিরে। মাফিয়াদের তথ্যদাতা সে। বংশগত সুরেলা ভাষা শিখতে লা গোমেরা দ্বীপে যেতে হয় তাকে। রোমানিয়ায় সে পুলিশি নজরদারিতে থাকে। এ কারণে কোড ভাষা ব্যবহার করে সয়েতকে কারাগার থেকে বের করে আনতে সন্ত্রাসীদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখে। ৩ কোটি ইউরো কোথায় লুকানো আছে তা কেবল এই কয়েদি জানে।

আগের দিন প্রতিযোগিতা বিভাগে প্রিমিয়ার হওয়া অস্ট্রিয়ান নারী নির্মাতা জেসিকা হজনারের ‘লিটল জো’ গ্র্যান্ড থিয়েটার লুমিয়েরে সকাল ৯টায়, সাল দ্যু সোসানতিয়েমে দুপুর ২টায় ও পালে দে ফেস্তিভাল ভবনের বাইরে অলিম্পিয়া প্রেক্ষাগৃহে রাত ৮টায় আবারও দেখানো হয়।
জোয়ান অব আর্ক

আঁ সার্তে রিগার
‘পোর্ট অথরিটি’ দেখানো হয় সকাল সাড়ে ৮টা ও রাত পৌনে ৮টায়। এর গল্পে দেখা যায়, যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক সিটির বাসস্ট্যান্ড পোর্ট অথরিটিতে ওয়াই ও পল একে অপরের প্রেমে পড়ে। কিন্তু একসময় পল আবিষ্কার করে, ওয়াই একজন ট্রান্সজেন্ডার। তখন ওয়াই’র প্রতি তার ভালোলাগা প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে ওঠে।

উৎসবের পঞ্চম দিন সকাল ১১টা ও দুপুর ২টায় ছিল ফরাসি নির্মাতা ব্রুনো দুমোর ‘জোয়ান অব আর্ক’। পরাধীন ফ্রান্সের মুক্তিদাত্রী বীরকন্যা ও রূপকথাতুল্য নেত্রীর সত্যি ঘটনা নিয়ে এর গল্প।
শনিবার বিকাল ৫টায় ছিল স্প্যানিশ নির্মাতা আলবের্ত চেরার ‘লিবার্টি’র উদ্বোধনী প্রদর্শনী। ফরাসি বিপ্লবের ঠিক আগে ১৭৭৪ সালে জার্মানির স্বাধীনতাকামী চিন্তাবিদদের প্রচারণা নিয়ে এর গল্প। এই তিনটি ছবির প্রদর্শনী হয়েছে সাল দুবুসি থিয়েটারে।
লিবার্টি

এ বিভাগে উৎসবের চতুর্থ দিন প্রিমিয়ার হওয়া ফরাসি নারী নির্মাতা মুনিয়া মেদুরের ‘পাপিশা’ শনিবার দুপুর ২টায় আর মার্কিন নির্মাতা মাইকেল অ্যাঞ্জেলো কভিনোর ‘দ্য ক্লাইম্ব’ সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় আবারও দেখানো হয় সাল বাজিনে।
ফ্যামিলি রোম্যান্স, এলএলসি

প্রতিযোগিতা বিভাগের বাইরে
স্পেশাল স্ক্রিনিংয়ে নির্বাচিত জার্মান সিনেমা-গুরু ওয়ারনার হারজগের ‘ফ্যামিলি রোম্যান্স, এলএলসি’ সাল দ্যু সোসানতিয়েমে দেখানো হয় রাত ৮টায়। এর গল্পে দেখা যায়, ১২ বছরের এক বালিকার নিখোঁজ বাবার ভূমিকায় অভিনয়ের জন্য ভাড়া করা হয় একজন ব্যক্তিকে।

মিডনাইট স্ক্রিনিংয়ে শনিবার দিবাগত রাত সোয়া ১২টায় গ্র্যান্ড থিয়েটার লুমিয়েরে ছিল গ্যাসপার নো পরিচালিত ‘লুক্স এতেরনা’। আউট অব কম্পিটিশনে উৎসবের চতুর্থ দিন প্রিমিয়ার হওয়া ডেনিশ নির্মাতা নিকোলাস উইন্ডিং রেফনের ‘টু ওল্ড টু ডাই ইয়াং-নর্থ অব হলিউড, ওয়েস্ট অব হেল’ শনিবার রাত ১০টায় আবারও দেখানো হয় সাল দ্যু সোসানতিয়েমে।

কান ক্ল্যাসিকস
পালে দে ফেস্তিভাল ভবনের সাল বুনুয়েল থিয়েটারে ধ্রুপদী ছবির এই আয়োজনে উৎসবের পঞ্চম দিন দুপুর দেড়টায় ছিল ১৯৫১ সালের কান উৎসবে গ্রাঁ প্রিঁ জয়ী ভিত্তোরিও ডি সিকার ‘মিরাকল ইন মিলান’। সন্ধ্যা ৬টায় দেখানো হয় স্প্যানিশ ফিল্ম গুরু লুই বুনুয়েলের ‘নাফারিন’ (১৯৫৮)।

চেকোস্লোভাকিয়ার নির্মাতা মিলোস ফোরম্যানের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বানানো ‘ফোরম্যান ভার্সাস ফোরম্যান’ প্রামাণ্যচিত্রের প্রদর্শনী হয় রাত সাড়ে ৮টায়। এতে রয়েছে চেক নিউ ওয়েভ থেকে শুরু করে তার হলিউড ক্যারিয়ারের গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়গুলো। রাত ১০টায় ছিল মিলোস ফোরম্যান পরিচালিত ‘লাভস অব অ্যা ব্লন্ড’ (১৯৬৫)।
গিভ মি লিবার্টি

ডিরেক্টরস ফোর্টনাইট
ফরাসি চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি আয়োজিত ডিরেক্টরস ফোর্টনাইট কানের প্যারালাল বিভাগ। এতে উৎসবের পঞ্চম দিন সকাল পৌনে ৯টা ও রাত সাড়ে ৮টায় ছিল রুশ নির্মাতা কিরিল মিখানোভস্কি পরিচালিত ‘গিভ মি লিবার্টি’। এর গল্প রুশ-আমেরিকান তরুণ ভিককে ঘিরে। দুর্ভাগ্য তার পিছু লেগে থাকে। যুক্তরাষ্ট্রের উইসকনসিন রাজ্যের একটি শহরে প্রতিবন্ধীদের জন্য একটি মেডিক্যাল ভ্যান চালায় সে। কিন্তু একদিন এক আফ্রিকান-আমেরিকানকে আনতে গিয়ে জীবন বদলে যায় তার।

শনিবার দুপুর ১২টা ও সন্ধ্যা পৌনে ৬টায় দেখানো হয় ফরাসি নির্মাতা নিকোলাস পারিজার পরিচালিত ‘অ্যালিস অ্যান্ড দ্য মেয়র’। এর গল্পে দেখা যায়, ফ্রান্সের লিওন শহরের মেয়র ৩০ বছর রাজনীতি করার পর অস্তিত্বের সংকটে পড়েন। নিজেকে পুরোপুরি শূন্য মনে হয় তার। মেয়রের সহযোগী তখন নিয়ে আসে মেধাবী তরুণী দার্শনিক অ্যালিসকে। মেয়রের সঙ্গে তার একটি সংলাপ হয়। তারা একে অপরের কাছাকাছি আসেন। ধীরে ধীরে দর্শন ও রাজনীতির সামঞ্জস্য থাকা প্রয়োজনীয়তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে থাকে।
দ্য অরফানেজ

আফগান নারী নির্মাতা শাহরাবানু সাদাতের ‘দ্য অরফানেজ’ প্রদর্শিত হয়েছে বিকাল ৩টায়। এর প্রেক্ষাপট আশির দশকের শেষ ভাগ। ১৫ বছরের কিশোর কুদরত কালোবাজারে সিনেমা হলের টিকিট বিক্রি করে আর কাবুলের সড়কে দিন কাটায়। সে বলিউডের ভক্ত। দিনের বেলায় প্রিয় ছবির দৃশ্যে নিজেকে কল্পনা করে ছেলেটি। একদিন পুলিশ তাকে সোভিয়েত এতিমখানায় দেয়। কিন্তু কাবুলের রাজনৈতিক পরিস্থিতি বদলাচ্ছে। তাই কুদরতসহ সব শিশু তাদের ঘরের জন্য প্রতিবাদী হয়ে ওঠে। এসব ছবির প্রদর্শনী হয়েছে জেডব্লিউ ম্যারিয়ট হোটেলের থিয়েটার ক্রজেতে।
ভাইভারিয়াম

স্যুমেন দ্যু লা ক্রিতিক
চলচ্চিত্র সমালোচকদের আয়োজনে কানের এই প্যারালাল বিভাগে শনিবার সকাল সোয়া ১১টা, বিকাল সোয়া ৫টা ও রাত সাড়ে ১০টায় ছিল আইরিশ নির্মাতা লরক্যান ফিনেগানের ‘ভাইভারিয়াম’। এর গল্প এক দম্পতিকে ঘিরে। প্রথম বাড়ি খুঁজতে গিয়ে অদ্ভুত হাউজিং ডেভেলপমেন্টে এক রহস্যজনক আবাসন প্রতিনিধির ফাঁদে পড়ে তারা। এতে অভিনয় করেছেন জেসি আইজেনবার্গ ও ইমোজেন পুটস।

দুপুর সোয়া ২টা ওরাত ৮টায় স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের স্পেশাল স্ক্রিনিং হয়। উৎসবের চতুর্থ দিন প্রিমিয়ার হওয়া জেরেমি ক্ল্যাপার অ্যানিমেটেড ছবি ‘আই লস্ট মাই বডি’ শনিবার সকাল সাড়ে ৮টায় আবারও দেখানো হয়। সব প্রদর্শনী হয়েছে হোটেল মিরামারে।

এসিড
কান উৎসবের আরেক প্যারালাল বিভাগ এসিডে স্টুডিও থার্টিনে সকাল সাড়ে ১১টায় ও আর্কেডস প্রেক্ষাগৃহে রাত ৮টায় ছিল আনাবেল অ্যাটানাজিও পরিচালিত ‘মিকি অ্যান্ড দ্য বিয়ার’। আলেকসঁন্দ থ্রি থিয়েটারে দুপুর ২টায় ছিল বারবারা সারাসোলা-ডে পরিচালিত ‘সাংগ্রে ব্ল্যাঙ্কা’। এছাড়া উৎসবের দ্বিতীয় দিন প্রদর্শিত আলেন রাউস্ট পরিচালিত ‘অ্যাজ হ্যাপি অ্যাজ পসিবল’ শনিবার বিকাল সাড়ে ৪টায় আলেকসঁন্দ থ্রি থিয়েটারে আবারও দেখানো হয়।


footer logo

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের  কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।