মঙ্গলবার 23 অক্টোবর 2018 - ৮, কার্তিক, ১৪২৫

শীত-কুয়াশায় হুমকির মুখে উত্তরের বোরো চাষ

১০ জানুয়ারী, ২০১৮ ১৭:৪৬:০৮

 / ডেস্ক নিউজ/

ক’দিন আগেই তৈরি বীজতলায় চারাগুলো বেড়ে উঠছিলো। এরমধ্যে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে শীতের পাশাপাশি দিনভর ঝড়ছে কুয়াশা। এতে বীজতলায় বেড়ে ওঠা চারাগুলো সবুজ থেকে লালচে আবরণ ধারণা করেছে। যা পরবর্তীতে শুকিয়ে মারা যাবে। তবে এগুলোর হাত থেকে বীজতলা রক্ষায় ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন কৃষক। কারণ বীজতলা রক্ষা করতে না পারলে আগামী বোরো চাষ হুমকির মুখে পড়বে। তাতে তাদের কপাল পুড়বে। আর বোরো চাষ নিশ্চিত করতে সার্বক্ষণিক পরামর্শ ও সহযোগিতা করে যাচ্ছেন কৃষি বিভাগের কর্মকর্তা-মাঠকর্মীরা। এমন অবস্থা উত্তরের আট জেলায়। তবে দিনাজপুর, ঠাকুরগাও ও পঞ্চগড়ের অবস্থা তুলনামূলক বেশি খারাপ।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, এরইমধ্যে কৃষকরা বোরো চাষের বীজতলা তৈরি করেছেন। বীজতলায় চারা বাড়তে শুরু করেছে। জানুয়ারির মাঝামাঝি থেকে এ চারা রোপণ করা হবে ফসলি জমিতে। 

দিনাজপুর জেলার ১৩ উপজেলার ১ লাখ ৭৩ হাজার ৬৫০ হেক্টর জমিতে বোরো চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। যার উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ধরা করা হয়েছে ৬ লাখ ৮৫ হাজার মেট্রিক টন। উৎপাদন ভালো হলে তা ৭ লাখ মেট্রিক টন ছাড়িয়ে যেতে পারে। 

দিনাজপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে আরো জানা যায়, এবার প্রতি হেক্টর জমিতে ৪ দশমিক ৭৫ থেকে ৫ মেট্রিক টন ধান উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে কৃষি বিভাগ। বোরো চাষে জেলার সব চাষাবাদ জমিতে সেচ কাজে ২ হাজার ৮৫৭টি বিদ্যুৎচালিত গভীর নলকূপ, ১৩ হাজার ৪৬৬টি অগভীর নলকূপ, ৬২ হাজার ৬৬৯টি ডিজেল চালিত নলকূপ ও ৩৮৬টি ললিত পাম্প ব্যবহার করা হবে। 

দিনাজপুর সদর উপজেলার ৯ নং আস্করপুর ইউনিয়নের জামালপুর গ্রামের বর্গা চাষি মো. আনোয়ার হোসেন বাংলানিউজকে জানান, তীব্র শীত ও ঘন কুয়াশার কারণে বীজতলার চারাগুলো হলুদ হয়ে যাচ্ছে। চারা রক্ষায় কৃষি বিভাগের পরামর্শ অনুযায়ী বালাইনাশক প্রয়োগ করা হয়েছে। কিন্তু তাতে প্রতিকার পাওয়া যাচ্ছেনা। উৎপাদনে অতিরিক্ত খরচও হচ্ছে। চারা রক্ষা করতে না পারলে এবার বোরো চাষ অনিশ্চিত। 

দিনাজপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. গোলাম মোস্তফা বাংলানিউজকে জানান, শীত ও কুয়াশার হাত থেকে বীজতলার চারা রক্ষায় প্রয়োজনীয় সব সহযোগিতা ও পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন কৃষি বিভাগের কর্মকর্তা ও মাঠকর্মীরা।

 



এ সম্পর্কিত খবর

ছাদে বিভিন্ন ফসলের চাষ করে সফল শিক্ষিকা ললিতা

ছাদে বিভিন্ন ফসলের চাষ করে সফল শিক্ষিকা ললিতা

আমিনুল ইসলাম বজলু,পাইকগাছা (খুলনা): খুলনার পাইকগাছায় ছাদে বাগান করে সফল হয়েছেন শিক্ষিকা ললিতা নাথ। তিনি

১৩নং ওয়ার্ডের বয়স্ক ও প্রতিবন্ধীদের মাঝে ভাতা বই বিতরণ

১৩নং ওয়ার্ডের বয়স্ক ও প্রতিবন্ধীদের মাঝে ভাতা বই বিতরণ

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১৩নং ওয়ার্ডে রবিবার ২১শে অক্টোবর সকাল ১১.০০টায় কাউন্সিলরের কার্যালয় মাসদাইর

কাউনিয়ায় কৃষকের মাঝে বিনামূল্যে সার-বীজ বিতরণ

কাউনিয়ায় কৃষকের মাঝে বিনামূল্যে সার-বীজ বিতরণ

কাউনিয়া (রংপুর) প্রতিনিধি ঃ কাউনিয়া উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আয়োজনে ৩৬০ জন সরিষা চাষির মাঝে


আমন ক্ষেতে পোকার আক্রমনে দিশেহারা কৃষক

আমন ক্ষেতে পোকার আক্রমনে দিশেহারা কৃষক

অনিরুদ্ধ রেজা,কুড়িগ্রাম: কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার সাতটি ইউনিয়নের বিস্তীর্ণ এলাকার জমির আমন ক্ষেতে মাজরা পোকা, পাতা

ডা. জাফরুল্লাহর বিরুদ্ধে এবার চুরির মামলা

ডা. জাফরুল্লাহর বিরুদ্ধে এবার চুরির মামলা

দুটি চাঁদাবাজির মামলার পর গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা: জাফরুল্লাহ চৌধুরীর বিরুদ্ধে এবার চুরির

এক হার না মানা যোদ্ধার অবিশ্বাস্য গল্প

এক হার না মানা যোদ্ধার অবিশ্বাস্য গল্প

আবির রহমান: “নিক, নিক! কী করছো তুমি? সর্বনাশ! কতক্ষণ ধরে পানিতে ডুব দিয়ে আছো সোনাটা!


পুলিশের চাকুরী পেতে নারীদের ‘কুমারিত্বের পরীক্ষা’!

পুলিশের চাকুরী পেতে নারীদের ‘কুমারিত্বের পরীক্ষা’!

এওয়ান ফিচার ডেস্ক: পুলিশ বাহিনীতে নারীদের নিয়োগের ক্ষেত্রে এক অদ্ভুত শর্ত জুড়ে দেওয়া হয়েছে ইন্দোনেশিয়ায়।

রৌমারীর তাঁত শিল্প বন্ধ হওয়ার উপক্রম 

রৌমারীর তাঁত শিল্প বন্ধ হওয়ার উপক্রম 

অনিরুদ্ধ রেজা,কুড়িগ্রাম: কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার ব্রহ্মপুত্র নদের অববাহিকার প্রত্যন্ত চরাঞ্চল চরকাজাইকাটা গ্রামের নিজ বাড়িতে নিজের

"আইয়ুব বাচ্চু কেন এভাবে কাঁদালেন আমায়?"

ঘটনাটা ৯৫ সালের জুলাইয়ের দিকে। আইয়ুব বাচ্চুর সাক্ষাতকার নেয়ার পরিকল্পনা করলাম। যোগাযোগ করলাম সাপ্তাহিক ম্যাগাজিন



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ








কাউনিয়ায় নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা

কাউনিয়ায় নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা

২২ অক্টোবর, ২০১৮ ২১:০৯