সোমবার 20 মে 2019 - ৬, জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬

দাবিটি মোটেও অযৌক্তিক নয়

০৮ অক্টোবর, ২০১৮ ১৫:৪৭:৩৬

সরকারের সড়ক ও সেতুমন্ত্রী এবং ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি এবং এর সহযোগীদের নির্দলীয় ও নিরপেক্ষ সরকার গঠনের দাবি সম্পূর্ণ অযৌক্তিক ও সংবিধান পরিপন্থী।  তিনি এ প্রশ্নও তুলেছেন, দেশে এমন কী পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে যে এখন বিশেষ সরকারের প্রয়োজন পড়েছে? গত রবিবার সকাল সচিবালয়ে এবং সন্ধ্যায় ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে পৃথক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেছেন।( সূত্র: দৈনিক ইত্তেফাক, ০১ অক্টোবর, ২০১৮)।

এটা ঠিক, আমাদের বর্তমান সংবিধানে নির্বাচনকালীন নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের বিধান নেই। আওয়ামী লীগ সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতার সুযোগে তারা ওই বিধানটি তুলে দিয়েছেন। ২০১১ সালে সংবিধান সংশোধন করে নির্বাচনকালীন তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থাটি বাতিল করে দেয়া হয়। সংবিধানে পুনরায় তত্তাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা ফিরিয়ে আনার জন্য এক সময় এ ব্যবস্থার বিরোধিতাকারী দল বিএনপি আন্দোলনে নামে এবং এ দাবিতে তারা ২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন বর্জন করে। কিন্তু আন্দোলনে তারা সফলতা পায়নি। সরকারের কঠোর অবস্থানের কারণে বিএনপি তাদের আন্দোলনকে যৌক্তিক পরিণতিতে নিয়ে যেতে পারেনি। ফলে ২০১৪ সালের একটি বিতর্কিত নির্বাচনের ফলাফলের ওপর দাঁড়িয়ে পুরো মেয়াদ রাষ্ট্রক্ষমতায় আসীন আছে আওয়ামী লীগ। 

সাংবিধানিক রীতি অনুযায়ী বর্তমান সরকারের অধীনেই একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে তাতে দ্বিমত পোষণের অবকাশ নেই। কিন্তু ২০১৪ সালের নির্বাচনের দৃষ্টান্তকে সামনে রেখে অনেকেই বলছেন যে, দলীয় সরকারের অধীনে নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠান অসম্ভব। বিশেষ করে বর্তমান সরকারের আমলে কয়েকটি সিটি কর্পোরেশন, উপজেলা এবং ইউপি নির্বাচনের অবস্থা দেখে অনেকেই মন্তব্য করেছেন, জাতীয় নির্বাচনকে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে হলে নির্বাচনকালীন নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের বিকল্প নেই। বিএনপি এবং সরকারের বাইরে থাকা অন্যান্য দলগুলো এ দাবিতে আন্দোলন গড়ে তোলার চেষ্টা করছে।

ওবায়দুল কাদের বিএনপির নির্দলীয় সরকারের দাবিকে অযৌক্তিক বলেছেন।  অবাক হওয়ার কিছু নেই। সবসময় ক্ষমতাসীনরা বিরোধী দলের দাবি সম্বন্ধে এ ধরনের কথাই বলে থাকেন। পেছন ফিরে তাকালে আমরা তেমন দৃষ্টান্তই দেখতে পাবো। মন্ত্রী মহোদয়ের নিশ্চয়ই স্মরণ থাকার কথা, ১৯৯৫-৯৬ সালে যখন তারা বিরোধী দলে থাকা অবস্থায় একই দাবিতে রাজপথে কাঁপাচ্ছিলেন, তখন তৎকালীন ক্ষমতাসীন দল বিএনপি নেতারা বলছিলেন-ওই দাবি অসাংবিধানিক, অযৌক্তিক ইত্যাদি। কথা একই। শুধু কথক পরিবর্তন হয়েছে।

রাজনৈতিক দলগুলোর সব দাবি সবসময় সাংবিধানিক হবে এমন কোনো কথা নেই। একটি বা একাধিক রাজনৈতিক দল যে কোনো দাবি উত্থাপন করতে পারে। ওবায়দুল কাদের সাহেবরা যখন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে আন্দোলন করেছিলেন, তখন সেটাও সংবিধানে ছিল না, অর্থাৎ সংবিধান পরিপন্থী ছিল। কিন্তু তারা তৎকালীন সরকারের ওপর প্রচ- চাপ সৃষ্টি করে ওই দাবি আদায় করে সংবিধানে অন্তর্ভূক্ত করিয়েছিলেন। অনেকেরই স্মরণ থাকার কথা, সে সময় আজকের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এটাও বলেছিলেন, ‘সংবিধান কোনো ধর্মগ্রন্থ নয় যে, তা পরিবর্তন করা যাবে না’। সুতরাং এটা প্রমানিত যে, একটি দাবি যদি গ্রহণযোগ্য হয়, তাহলে তা বাস্তবায়নের জন্য সংবিধান সংশোধন করা কোনো অপরাধ নয়। এখানে প্রয়োজন রাজনৈতিক সদিচ্ছা। ১৯৯৬ সালে ১৫ ফেব্রুয়ারির নির্বাচনের পর বিএনপি ইচ্ছা করলে সরকার চালিয়ে যেতে পারত। তাতে দেশে আরো হানাহানি হতো, বিশৃঙ্খলা হতো। বিএনপি তা চায়নি বলেই তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সে গণদাবিকে মেনে নিয়ে বিতর্কিত নির্বাচনের মাধ্যমে গঠিত সংসদে সংবিধান সংশোধন করে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বিধান সংযোজন করেছিল। 

বাস্তবতা হলো, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে ’৯৬ সালে আওয়ামী লীগ রাজপথে যে ধরনের আন্দোলন গড়ে তুলতে পেরেছিল, বিএনপি এখনও পর্যন্ত তা পেরে ওঠেনি। বিএনপির এ দুর্বলতাই এখন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের অন্যতম পুঁজি। আর এটাও ঠিক যে, দেশের বিদ্যমান পরিস্থিতে বিএনপিসহ রাষ্ট্রক্ষমতার বাইরে থাকা দলগুলোর নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সরকারের দাবিকে অযৌক্তিক বলে উড়িয়ে দেয়ার সুযোগ নেই।  বিগত দিনগুলোতে অনুষ্ঠিত নির্বাচন সমূহের চালচিত্র এ দাবিকে যৌক্তিক ভিত্তি দিয়েছে।

কথায় আছে- ‘এভরি থিং ইজ ফেয়ার, ইন লাভ এন্ড ওয়ার’-অর্থাৎ প্রেম এবং যুদ্ধে সবই শুদ্ধ। তেমনি রাজনীতিতেও নাকি সবকিছুই হালাল। তাছাড়া অতীতে যেটাকে হালাল ভেবে আদায় করে নিয়েছিলেন, এখন সেটাকে হারাম ভাবাটা কি যৌক্তিক? 

 লেখক: সাংবাদিক ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক।  


 



এ সম্পর্কিত খবর

বাংলাদেশের উন্নয়নে জাপানের সহযোহিতা অব্যাহত থাকবে : হিরোইয়াসু ইজুমি

বাংলাদেশের উন্নয়নে জাপানের সহযোহিতা অব্যাহত থাকবে : হিরোইয়াসু ইজুমি

এওয়ান নিউজ: বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত হিরোইয়াসু ইজুমি বলেছেন, জাপান বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে তার চলমান

মনোনয়নপত্র জমা দিলেন ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা

মনোনয়নপত্র জমা দিলেন ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা

নিজস্ব প্রতিবেদক: একাদশ জাতীয় সংসদে বিএনপির জন্য নির্ধারিত একটি সংরক্ষিত নারী আসনে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন

খালেদা জিয়াকে আজীবন জেলে রাখার প্রতিজ্ঞা বাস্তবায়ন করছেন প্রধানমন্ত্রী: রিজভী

খালেদা জিয়াকে আজীবন জেলে রাখার প্রতিজ্ঞা বাস্তবায়ন করছেন প্রধানমন্ত্রী: রিজভী

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ‘বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয়


বিএনপি এখন ধার করা নেতৃত্ব দিয়ে চলছে: হাছান মাহমুদ

বিএনপি এখন ধার করা নেতৃত্ব দিয়ে চলছে: হাছান মাহমুদ

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিএনপি এখন ধার করা নেতৃত্ব দিয়ে চলছে বলে মন্তব্য করে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান

মির্জা ফখরুল সংসদে থাকলে বিরোধী দলের অবস্থা আরও শক্তিশালী হতো: কাদের

মির্জা ফখরুল সংসদে থাকলে বিরোধী দলের অবস্থা আরও শক্তিশালী হতো: কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জাতীয় সংসদে থাকলে বিরোধী দলের অবস্থা আরও

আমরা কোথায় আছি

আমরা কোথায় আছি

আমরা এমন একটি সময়ে এমন একটি সমাজে আছি, যেখানে এখন নিরাপদে বসবাস দুঃসাধ্য হয়ে উঠেছে।


পাঁচ দুর্ধর্ষ নারী গোয়েন্দা

পাঁচ দুর্ধর্ষ নারী গোয়েন্দা

এওয়ান নিউজ ডেস্ক:চ্যালেঞ্জিং পেশা গুপ্তচরবৃত্তি। নারীরাও এতে পিছিয়ে নেই। গোপনীয় তথ্য জোগাড় করতে কখনো তারা

সংরক্ষিত নারী আসনে বিএনপির মনোনয়ন পেলেন ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা

সংরক্ষিত নারী আসনে বিএনপির মনোনয়ন পেলেন ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা

এওয়ান নিউজ: একাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনে বিএনপির মনোনয়ন পেয়েছেন দলের সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক

এবার কানের লালগালিচায় কালোদের জয়জয়কারের প্রতিচ্ছবি

এবার কানের লালগালিচায় কালোদের জয়জয়কারের প্রতিচ্ছবি

বিনোদন ডেস্ক: যে যেভাবে ইচ্ছে নাচতে শুরু করেছে। প্রত্যেকের গায়ে বিচিত্র পোশাক। অথচ কানের লালগালিচায় ছেলেদের



আরো সংবাদ









আজকের সমাজ

আজকের সমাজ

০৯ মে, ২০১৯ ১২:৪৩





ব্রেকিং নিউজ








আমরা কোথায় আছি

আমরা কোথায় আছি

২০ মে, ২০১৯ ১২:৫১