স্বপ্ন দেখাচ্ছে ‘স্বপ্নের বাংলাদেশ’


এ ওয়ান ডেস্ক : সম্ভাবনার আলোতে আলোকিত আমাদের এই তারুণ্য। ইতিবাচক নানা ধরনের কাজের পাশাপাশি স্বেচ্ছাসেবার মানসিকতা নিয়ে সমাজের নানা প্রান্তে কাজ করে যাচ্ছে তরুণ-তরুণীরা। তেমনি একজন স্বপ্নবাজ তরুণীর নাম বদরুন নাহার রক্সি। পড়াশোনা করছেন ফ্যাশন ডিজাইনিং এর উপর। আলোকিত এই তরুণী দেশ ও মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। গড়ে তুলেছেন “স্বপ্নের বাংলাদেশ” নামক একটি অলাভজনক সমাজসেবামূলক প্রতিষ্ঠান। সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের সমাজের মূল স্রোতে নিয়ে আসতে তাদের জন্য মৌলিক, নৈতিক, ধর্মীয় ও কারিগরি শিক্ষার জন্য কাজ করছেন তিনি। পাশাপাশি নারী উন্নয়নের লক্ষ্যে গ্রামীণ পিছিয়ে পরা নারীদের হস্তশিল্প প্রশিক্ষণ, নারী ও শিশু স্বাস্থ্য উন্নয়নের জন্যও কাজ করছে রক্সি ও তার প্রতিষ্ঠান “স্বপ্নের বাংলাদেশ”।

২০১৪ সাল থেকে সমাজের পিছিয়ে পরা মেয়েদের প্রতিভাকে বিকশিত করে তাদের জীবনমান উন্নয়নে তাদের খুজে বের করে হস্ত ও কুটির শিল্পে প্রশিক্ষণ দেয়ার কাজ শুরু হয়। এ পর্যন্ত ২০০০ এর অধিক মেয়ে হস্তশিল্পে প্রশিক্ষিত হয়েছে এই সংগঠনের উদ্যোগে। যখনই তিনি সময় বের করতে পারেন তখনই বিভিন্ন গ্রামে ছুটে যান মেয়েদের কাজ শিখাতে।

এই কাজটি করতে করতে কেটে যায় তিনটি বছর। সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে কিভাবে শিক্ষার আলো পৌছে দেয়া যায়, সেই ভাবনা থেকে ২০১৭ সালে ঢাকার নিকুঞ্জতে চালু করেন “স্বপ্নের পাঠশালা”।

৩০ জন সুবিধাবঞ্চিত শিশুকে বিনামূল্যে প্রাথমিক শিক্ষা দেয়া হয় “স্বপ্নের পাঠশালা” তে। বিনামূল্যে এদের শিক্ষার সকল উপকরণ, টিফিন, পোষাক দেয়ার পাশাপাশি কুরআন শিক্ষা, চিত্রাঙ্কন ও নাচ গান শেখানো হয়। এছাড়া নারী ও শিশু স্বাস্থ্য উন্নয়নে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প করা হয় যাতে করে সমাজের পিছিয়ে পরা নারী ও শিশুরা চিকিৎসার অভাবে কষ্ট না পায়।

​স্বপ্নের বাংলাদেশ তাদের কার্যক্রমকে সারাদেশে ছড়িয়ে দেয়ার পরিকল্পনা করছে। এর আওতায় প্রথমে নিজের জেলা কুমিল্লা এবং ঢাকায় আরো প্রসারিত করা, পর্যায়ক্রমে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে কার্যক্রম বাড়ানো, যাতে করে সারাদেশব্যাপী অসহায়, দরিদ্র, সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারে। পাশাপাশি নারী ও শিশু স্বাস্থ্য উন্নয়ন, বাল্যবিবাহ রোধ, মাদকের ভয়াবহ ছোবল থেকে যুব সমাজকে রক্ষা করা, নারী উদ্যোক্তা তৈরি করে চাকরির বাজারে চাপ কমানোর জন্য কাজ করে যাওয়ার পরিকল্পনা আছে স্বপ্নের বাংলাদেশ ও তার প্রতিষ্ঠাতা বদরুন নাহার রক্সির। #ভিওএ

 


footer logo

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের  কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।