সমৃদ্ধ ও উন্নত বাংলাদেশের জন্য ৪র্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার বিকল্প নেই


রাশেদ রোকনঃ সমাজকল্যাণমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এমপি বলেছেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়নের মহাসড়কে বাংলাদেশকে সমৃদ্ধ ও উন্নত বাংলাদেশে এগিয়ে নিতে ৪র্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় আমাদের তৈরি হতে হবে। মন্ত্রী বলেন, সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে বর্তমান ও ভবিষ্যত শ্রমবাজারের চাহিদা বিবেচনায় জনশক্তির দক্ষতা উন্নয়নে সরকার কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষার প্রসারে ব্যাপক পরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। তিনি বলেন, ৪র্থ শিল্প বিপ্লবের প্রেক্ষিতে আগামীতে কর্মক্ষেত্রে যে পরিবর্তন সূচিত হবে সেখানে আধুনিক প্রযুক্তিনির্ভর দক্ষতা না থাকলে কর্মনিশ্চয়তা ও জাতীয় উৎপাদনশীলতা ব্যাহত হবে। মন্ত্রী আজ কাকরাইলে ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লেমাা ইঞ্জিনীয়ার্স, বাংলাদেশ (আইডিইবি) আয়োজিত গণপ্রকৌশল দিবস ও আইডিইবি’র ৪৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী’র সপ্তাহব্যাপী কর্মসূচি ও বর্ণাঢ্য র‌্যালির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন।

 
আজ  ৮ নভেম্বর সকালে রাজধানীর কাকরাইলে আইডিইবি ভবনে সংগঠনের সভাপতি এ কে এম এ হামিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ এবং সম্মানিত অতিথি ছিলেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর ফরিদউদ্দিন আহমেদ রতন। 
স্বাগত বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক মোঃ শামসুর রহমান। তিনি ৪র্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে বাংলাদেশের চলমান অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখার জন্য ১২টি সুপারিশ উপস্থাপন করেন। 
আলোচনা অনুষ্ঠানের পর মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এমপি আইডিইবি ভবন প্রাঙ্গনে পায়রা ও বেলুন উন্মুক্তকরণের মাধ্যমে গণপ্রকৌশল দিবস ও আইডিইবি’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী’র সপ্তাহব্যাপী কর্মসূচি ও বর্ণাঢ্য র‌্যালির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এরপর মন্ত্রীর নেতৃত্বে দিবসের একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি আইডিইবি ভবন থেকে জাতীয় প্রেসক্লাবের অভিমুখে যাত্রা করে। এসময় আইডিইবি’র সভাপতি এ কে এম এ হামিদ ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ শামসুরসহ ৫ সহস্রাধিক নেতা-কর্মী অংশ নেন। র‌্যালিটি জাতীয় প্রেসক্লাব থেকে পুনরায় আইডিইবি ভবনে এসে শেষ হয়।


footer logo

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের  কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।