অপু মৃত্যুর দায় সময়ের আলো এড়াতে পারে না : ডিইউজে

প্রকাশিত

দৈনিক সময়ের আলোর সি. সাব-এডিটর মাহমুদুল হাকিম অপুর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে)’র সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ ও সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম খান তপু। মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত না হওয়া গেলেও করোনাভাইরাসের উপসর্গ তথা জ্বর-সর্দি-কাশি নিয়ে মারা গেছে বলে পরিবারের তরফ থেকে সন্দেহ প্রকাশ করা হয়েছে।

আজ বুধবার (০৬ মে) এক বিবৃতিতে ডিইউজে নেতৃবৃন্দ বলেন, কিছুদিন আগে দৈনিক সময়ের আলো পত্রিকার সিনিয়র সাংবাদিক হুমায়ুন কবীর খোকনের করোনাভাইরাস সংক্রমণে মৃত্যুর পর, আমরা আশা করছিলাম সময়ের আলো কর্তৃপক্ষ আরও দায়িত্বশীল আচরণ করবেন। প্রতিষ্ঠানটির সকল সাংবাদিক ও কমর্চারীর করোনাভাইরাস পরীক্ষা করে প্রয়োজনীয় চিকিৎসার ব্যবস্থা করবেন কর্তৃপক্ষ। কিন্ত, কার্যত সে ধরণের কোনও ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। বাসা থেকে সাংবাদিকদের কাজ করার দায়সারা একখানা নোটিশ দিয়ে কর্তৃপক্ষ কার্যত তার দায়িত্ব এড়িয়ে গেছেন।

সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ গভীর উদ্বেগ জানিয়ে বলেন, এখনও বেশ কিছু সংখ্যক গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠান সাংবাদিকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করেনি। ঝুঁকি নিয়েই প্রতিদিন সাংবাদিকদের দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে। যা অমানবিক। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সাংবাদিকদের চিকিৎসার ব্যয় সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানকে বহন করার জন্য ইতিপূর্বে একাধিকবার ডিইউজের তরফে দাবি জানানোর পরেও করোনা সংক্রমণে আক্রান্ত কয়েকজন অভিযোগ করেছেন, তারা নিজের খরচে চিকিৎসার ব্যয় বহন করতে বাধ্য হয়েছেন।

বিবৃতিতে ডিইউজে নেতারা বলেন, করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণকারী সাংবাদিকের পরিবারের দায়ভার সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানকে বহন করতে হবে। তাছাড়া, এ ধরণের মর্মান্তিক মৃত্যুর ক্ষেত্রে সরকারেরও এগিয়ে আসতে হবে বলে ডিইউজে আশা করে।