অস্ট্রেলীয় প্রধানমন্ত্রী ক্যারিয়ারের কথা ভেবে মেয়ের ধর্ষণের কথা গোপন রাখে!

প্রকাশিত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মেয়ে ধর্ষণের শিকার হওয়ার পরও নিজের রাজনৈতিক ক্যারিয়ার ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কায় তাকে চুপ থাকতে বলেছিলেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী বব হক; চার দশক পর সেই অভিযোগ নিয়ে সামনে এসেছেন রোজলিন ডিলন।তার অভিযোগ, গত শতকের আশির দশকে বব হকের দল লেবার পার্টির এমপি বিল ল্যান্ডারইউ তাকে ধর্ষণ করেন।

বব হক ও বিল ল্যান্ডারইউ, দুই জনই এখন মৃত। আর ৫৯ বছর বয়সী ডিলন তার বাবার সম্পদ থেকে ৪০ লাখ অস্ট্রেলীয় ডলার দাবি করে মামলা লড়ছেন।বিবিসি জানিয়েছে, ডিলনের অভিযোগ সংক্রান্ত আদালতের নথি দেখেছে অস্ট্রেলিয়ার নিউজ সাইট নিউ ডেইলি।

সেখানে একটি হলফনামায় ডিলন বলেছেন, ১৯৮৩ সালে তিনি যখন ল্যান্ডারইউয়ের দপ্তরে কাজ করছিলেন এবং বব হক লেবার পার্টির নেতৃত্ব পাওয়ার চেষ্টা করছিলেন, তখনই ওই ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।হলফনামার ভাষ্য অনুযায়ী, ওই সময় তিনবার যৌন হেনেস্থার শিকার হয়েছিলেন ডিলন। তৃতীয়বার একই ঘটনা ঘটার পর তিনি বাবাকে বিষয়টি জানান এবং পুলিশে অভিযোগ করতে চান।

ডিলনের ভাষ্য অনুযায়ী, তার বাবা তখন উত্তর দেন- “তুমি এটা করতে পার না। এই মুহূর্তে আমি কোনো বিতর্ক চাই না। আমি দুঃখিত, কিন্তু আমি লেবার পার্টির নেতৃত্বের লড়াইয়ে নামছি।”ডিলনের বোন সু পিটার্স হক নিউ ডেইলিকে বলেছেন, ওই ঘটনা পরিবারের সবাই জানতো। কিন্তু আইনি পথে আর যাওয়া হয়নি।তবে পরিবারের অন্য কেউ এ ঘটনা নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার গণমাধ্যমের কাছে মন্তব্য করতে চাননি।

শ্রমিক ইউনিয়নের সাবেক নেতা ল্যান্ডারইউ ১৯৭৬ থেকে ১৯৯২ সাল পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার পার্লামেন্ট সদস্য ছিলেন। হক প্রধানমন্ত্রী থাকাকালে পুরোটা সময় তার সঙ্গে ল্যান্ডারইউয়ের সম্পর্ক ভাল ছিল বলেই সাধারণভাবে ধারণা করা হয়।হক আশির দশকে অস্ট্রেলিয়ার রাজনীতির প্রভাবশালী ব্যক্তি ছিলেন। চারটি সাধারণ নির্বাচনে জয়লাভ করেছিলেন তিনি।