বিভাগ - সারাদেশ

অস্থায়ী চাকরী-আবেদন ৩০০০; কাউনিয়ায় শিক্ষিত বেকারের হার আশংকা জনক হারে বাড়ছে

প্রকাশিত

সারওয়ার আলম মুকুল,কাউনিয়া (রংপুর) প্রতিনিধি ঃ রংপুরের কাউনিয়া উপজেলায় দিনদিন আশংকা জনক হরে বৃদ্ধি পাচ্ছে শিক্ষিত বেকারের সংখ্যা। দেশে চাকুরী নামক সোনার হরিনের পিছে ছুটতে গিয়ে হাপিয়ে পড়েছে শিক্ষিত বেকার যুবক যুবতীরা। বানিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্শি এমপির এলাকায় দৃশ্যমান বেকারের সংখ্যা বাড়ছে। এ উপজেলায় অস্থায়ী একটি চাকরীর জন্য আবেদন পড়েছে প্রায় ৩ হাজার।

সরেজমিনে কাউনিয়া উপজেলা ক্যাম্পাসে গিয়ে দেখা গেছে সম্প্রতি বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো’র জনশুমারি ও গৃহগণনা ২০২১ প্রকল্পের অধিন উপজেলার ১টি পৌরসভা সহ ৬টি ইউনিয়নে মাঠ পর্যায়ে তথ্য সংগ্রহের জন্য অস্থায়ী ভিত্তিতে কিছু সংখ্যক তালিকাকারী/গণনাকারী ও সুপারভাইজার পদে নিয়োগের আবেদন চাওয়া হলে উপজেলার শিক্ষিত বেকাররা হুমরি খেয়ে পরে। দরখাস্তকারীর যোগ্যতা চাওয়া হয়েছে এইচএসসি সেখানে আবেদ পড়েছে বেশীরভাগই মাস্টার ডিগ্রী/ডিগ্রী পাশ। উপজেলায় প্রায় ৩ হাজারেরও বেশী আবেদন পড়েছে এই চাকরীর জন্য। চাকুরীরর পরীক্ষা আগামী ৩১ জানুয়ারী হওয়ার কথা। সেই অনুয়ারী চাকুরী পরীক্ষার প্রবেশ পত্র নেয়ার জন্য উপজেলা ক্যাম্পাসে হাজার হাজার বেকার যুবক যুবতীর লম্বা লাইন স্বরণ করিয়েদেয় দেশের চাকুরীর বাজারের কি অবস্থা, আর কি পরিমান শিক্ষিত বেকার বৃদ্ধি পেয়েছে। এই অস্থায়ী চাকুরীর জন্য রাজনৈতিক নেতাসহ প্রশাসেনর কর্তাদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছে চাকুরী প্রত্যাশিরা। চাকুরি বিজ্ঞপ্তিটি আরও ব্যাপক প্রচার হলে চাকুরী প্রার্থীর সংখ্যার আরও দ্বিগুন হতো বলে অনেকে মন্তব্য করেছেন। এঅঞ্চলে শিল্প কল-কারখানা না থাকায় বেকারত্বের হার আরও বৃদ্ধি পাচ্ছে। চাকুরির বাজার মন্দা হওয়ায় শিক্ষিত বেকার যুবক-যুবতিরা হতাশা গ্রস্থ হয়ে পরছে। কাউনিয়া উপজেলা পরিসংখ্য্যান অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) মুন্না জানান সারাই ইউনিয়নে ২৬২, হারাগাছ ২৭৭,কুর্শা ৪৬৩, শহীদবাগ ২৯৭,বালাপাড়া ৫৯৭,টেপামধুপুর ৪৪২ ও হারাগাছ পৌরসভায় ৬৪৩ জন প্রার্থী অবেদন করেছেন। তাদের পরীক্ষা তিনটি কেন্দ্রে আগামী ৩১ জানুয়ারী অনুষ্ঠিত হবে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সভাপতি জনশুমারি ও গৃহগণনা ২০২১ প্রকল্প মোছাঃ উলফৎ আরা জানান, প্রায় ৩ হাজার আবেদন পড়েছে, প্রথম পর্যায়ে ২৫ থেকে ৩০ জন এবং পরবর্তিতে প্রায় ৪শ’ জন স্বচ্ছতার সাথে নিয়োগ দেয়া হবে। তাদের কাজ কতদিন হবে এবং বেতন কত পারে তা এখনও সঠিক ভাবে জানা যায়নি।