আমরা শঙ্কিত ভোটের দিন কী ঘটতে যাচ্ছে: ইশরাক

প্রকাশিত

এওয়ান নিউজ: বিএনপি নয়, আওয়ামী লীগ ভোটকেন্দ্র দখল করতে, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করতে জেলা কমিটি থেকে ঢাকায় লোক পাঠাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী ইশরাক হোসেন। তিনি বলেন, ‘ভোটের দিন কী হতে যাচ্ছে তা নিয়ে আমরা শঙ্কিত।’ বৃহস্পতিবার (৩০ জানুয়ারি) বিকালে রাজধানীর গোপীবাগে নিজ বাড়ির সামনে থেকে প্রচারণা শুরুর আগমুহূর্তে তিনি এ অভিযোগ করেন।

দক্ষিণ সিটিতে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস অভিযোগ করেছেন, ১৭০টি কেন্দ্র দখল করার জন্য আপনারা (বিএনপি) প্রস্তুতি নিয়েছেন এবং তার জন্য সন্ত্রাসী ভাড়া করেছেন। এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ইশরাক হোসেন বলেন, ‘এটা একেবারে অবাস্তব একটা ব্যাপার। বরং আমার কাছে এই রকম একটা ডকুমেন্ট আছে যে ঢাকার বাইরে থেকে আওয়ামী লীগ জেলা কমিটি থেকে লোক পাঠাচ্ছে। সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করার জন্য তারা লঞ্চ-ভর্তি নেতাকর্মী জড়ো করছে। ঢাকা শহরে তারা এই কাজটি করেছে। আমরা শঙ্কিত ভোটের দিন কী ঘটতে যাচ্ছে!’

আওয়ামী লীগ যা করে তা আগে থেকেই বলে দেয়, এমন মন্তব্য করে বিএনপির এই মেয়র প্রার্থী বলেন, ‘তারা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করবে বলেই এখন বিএনপির নাম বলছে।’

গতকাল বুধবার (২৯ জানুয়ারি) রাতে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবদলের সভাপতির বাসায় তল্লাশি চালানো হয়েছে দাবি করে তিনি বলেন, ‘এছাড়া আরও নেতাকর্মীদের বাসায় তল্লাশি চালানো হয়েছে। কয়েকদিন আগে এখানে আমাদের ওপর যে হামলার ঘটনা ঘটেছে, সেখানে অনেক আহত হয়েছে। তাদের বাসায়ও তল্লাশি চালানো হচ্ছে। এগুলো স্থানীয়ভাবে হচ্ছে। আমরা জানি না, নির্বাচনে দিন কী হবে!’

নির্বাচনের দিন পোলিং এজেন্ট দেওয়া নিয়ে কোনও সমস্যা দেখছেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে ইশরাক বলেন, ‘সকাল থেকে আমি দাফতরিক কাজে ব্যস্ত ছিলাম। কারণ, গত কয়েকদিন বিভিন্ন জায়গায় আমাদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। প্রচারে বাধা দিয়ে ব্যতিব্যস্ত রেখেছে। পোলিং এজেন্ট নিয়ে কোনও সমস্যা হবে না। কেন্দ্র পরিচালনায় কমিটি নিয়েও কোনও সমস্যা নাই। আমাদের যথেষ্ট নেতাকর্মী রয়েছে। তারা পুরোপুরি মাঠে থাকবেন এবং একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য তারা সচেষ্ট ও সক্রিয় রয়েছেন। সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য ভোটারদের যা যা সহযোগিতা দরকার, তা করবেন।’

পুলিশের এক সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়েছে, অস্ত্রসহ আপনার ব্যক্তিগত সহকারীকে আটক করেছে। এ বিষয়ে ইশরাক হোসেন বলেন, ‘আমার ব্যক্তিগত কোনও সহকারী নাই। আমি বিএনপির পক্ষ থেকে দলীয়ভাবে নির্বাচন করছি। হাজার হাজার নেতাকর্মী আসছেন, তারা স্বপ্রণোদিত হয়ে আমার বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে অংশ নিচ্ছে। ফলে এ নিয়ে বাইরের কে কী বললো, তা আমি জানি না। শুধু এইটুকু বলতে পারি, আমাদের পক্ষে যে ব্যাপক জনস্রোত তৈরি হয়েছে, তা দেখে নির্বাচনকে ভিন্ন খাতে প্রভাবিত করা জন্য জনগণের দৃষ্টিকে ভিন্ন দিকে নিতে এ ধরনের অপপ্রচার চালানো হচ্ছে।’