ইরানি জনগণ আরেকটি ঐতিহাসিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে: রুহানি

প্রকাশিত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইরানে বিদেশি উসকানিতে দাঙ্গা সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে আপামর জনসাধারণ যে কঠোর প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন তাতে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। তিনি বলেছেন, অর্থনৈতিকভাবে চাপের মধ্যে থাকা সত্ত্বেও ইরানি জনগণ শত্রুর ধ্বংসাত্মক তৎপরতার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়ে আরেকটি ঐতিহাসিক পরীক্ষায় বিজয়ী হয়েছে।

প্রেসিডেন্ট রুহানি গতকাল (বুধবার) তেহরানে মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, ইরানি জনগণ প্রমাণ করেছে তারা অর্থনৈতিক দুরবস্থাসহ অন্য যত সমস্যার মধ্যেই থাকুক না কেন তারা কখনো বিদেশিদেরকে এদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে নাক গলাতে দেবে না।

ইরানে গত শুক্রবার রাত থেকে তেলের বর্ধিত মূল্য কার্যকর করা হয়। এর প্রতিবাদ জানাতে রাজধানী তেহরানসহ দেশের বিভিন্ন শহরের মানুষ রাস্তায় নেমে আসে। এ সময় সুযোগসন্ধানী কিছু দুস্কৃতকারী বিক্ষোভের নামে জনগণের জানমালের ব্যাপক ক্ষতি করার চেষ্টা চালায়।ইরানের ইসলামি সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করার স্বপ্নে বিভোর মার্কিন সরকার সুযোগ বুঝে দাঙ্গাকারীদের প্রতি প্রকাশ্যে সমর্থন জানায়।

অথচ ইরানের শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারীরা অতি দ্রুত নিজেদেরকে দাঙ্গাকারীদের থেকে আলাদা করে ফেলেন এবং মঙ্গলবার থেকে দেশের বিভিন্ন শহরে নাশকতামূলক তৎপরতায় জড়িতদের বিরুদ্ধে বিশাল মিছিল করেন।

জনগণের স্বতঃস্ফূর্ত এই মিছিলকে স্বাগত জানিয়ে প্রেসিডেন্ট রুহানি বলেন, ইরানের সাম্প্রতিক ঘটনাপ্রবাহে এদেশে সংঘাত বাধানোর ক্ষেত্রে শত্রু কতটা সক্ষমতা রাখে তা যেমন প্রমাণিত হয়েছে তেমনি ইরানি জনগণও বিশ্ববাসীকে তাদের প্রজ্ঞা, দূরদর্শিতা ও শত্রুর ষড়যন্ত্র ব্যর্থ করে দেয়ার ক্ষমতা দেখিয়ে দিয়েছে।