এবার আর আগের রাতেই ভোট হবে না, মহাজোট নেত্রী অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচন দিবেন: মিলন

প্রকাশিত

নিজস্ব প্রতিবেদক: এবার আর আগের রাতেই ভোট হবে না বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির (জাপা) মনোনীত ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র প্রার্থী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন। মহাজোট নেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচন দিবেন বলে আশাবাদী তিনি।

মিলন বলেন, ইভিএম বা জেনারেল ভোট- এটা নিয়ে আমার কোনো আপত্তি অনাপত্তি কিছু নেই। মূল বিষয় হলো সরকার না চাইলে ইভিএম বলেন আর জেনারেল বলেন নির্বাচন কমিশন কোনাভাবেই সুষ্ঠু ভোট দিতে পারবে না।

আজ সোমবার দুপুরে রাজধানীর কাকরাইলে জাতীয় পার্টির কার্যালয়ে নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণাকালে এসব কথা বলেন পার্টি মনোনীত মেয়র প্রার্থী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন। রাজধানী ঢাকাকে যানজট মুক্ত রাখাসহ ১৭ দফা নির্বাচনী ইশতেহার পেশ করে তিনি বলেন, মেয়র নির্বাচিত হলে কোনো বেতন নেবো না। ঢাকা সিটির উন্নয়নে ২০ বছরের মহা পরিকল্পনা গ্রহণ করা হবে।

এক প্রশ্নের জবাবে সাইফুদ্দিন মিলন বলেন, আমি ঢাকার মানুষ, পরিচিত লোক। যদি সুষ্ঠু ভোট হয় তাহলে আমি বিজয়ী হবো। কারণ ঢাকার সবাই আওয়ামী লীগ-বিএনপি করে না। সর্বশেষ যে ভোট হয়েছে সেখানে ২২ শতাংশ ভোট পড়েছে। ৪০ শতাংশের বেশি লোক আওয়ামী লীগ-বিএনপি করে না। ৬০ শতাংশ লোক নিরপেক্ষ। যেহেতু ভোট আগের রাতেই হয়ে যায়, এ কারণে ভোটের প্রতি মানুষের আগ্রহ হারিয়ে গেছে। প্রচারণাকালে অনেকে বলেছেন, আপনি ভাল লোক। কিন্তু আপনাকে ভোট দিয়ে কি হবে? ভোট তো আগের রাতেই হয়ে যায়।

তিনি আরো বলেন, আমার মনে হয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবারের নির্বাচন নিরপেক্ষ করবেন। কারণ নিরপেক্ষ না করলে মানুষ তো ভোটকেন্দ্রে যায় না। সেক্ষেত্রে দেখা যাবে, ভোটকেন্দ্র শূন্য হয়ে যাবে। আর আমরা বিরোধী দল হলেও মনে রাখতে হবে জাপা মহাজোটেরই অংশ। জনগণের কল্যাণের জন্য যেসব কাজ নয় সরকারের এসব কর্মকাণ্ডের আমরা বিরোধীতা করি। সরকারের ভালো কাজের প্রশংসা করি।

মিলন বলেন, সিটি নির্বাচনে মহাজোটগতভাবে আমরা চেয়েছিলাম দক্ষিণের মেয়রটা জাপাকে দেয়া হোক। আওয়ামী লীগের সাথে বসেও ছিলাম। তখন একটা পরিস্থিতি হয়েছিল যে, মেয়র নয় আমাদের কিছু কাউন্সিলর দেবে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আমাদের কাউন্সিলরও দেয়া হয়নি। মহাজোট এবং জাপার সিদ্ধান্তে মেয়র পদে নির্বাচন করছি।

নির্বাচন থেকে সরে যাবেন কিনা এবং সুষ্ঠু ভোট নিয়ে কতটুকু আশাবাদী জানতে চাইলে মিলন বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা যেভাবে আশ্বস্ত করছেন আমার মনে হয় এবারের নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে। সরকার না চাইলে নির্বাচন কমিশনের পক্ষে সুষ্ঠু নির্বাচন করা সম্ভব নয়। আমরা যতই বলি নির্বাচন কমিশন নিরপেক্ষ কিন্তু যে সরকারই ক্ষমতায় থাকে তারা না চাইলে নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না।

গতবারের সিটি নির্বাচনের অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরে জাপার এই মেয়র প্রার্থী বলেন, যে নির্বাচন গতবার হয়েছে সেটাকে আমি নির্বাচনই মনে করি না। কারণ ওইদিন (২০১৫ সালের সিটি নির্বাচনের দিন) সকাল ৯টাতেই বলেছিলাম যে ভোট আগের রাতেই হয়ে গেছে। প্রচার করা হয়েছিল যে আমি বসে গেছি। অথচ আমি বসে যায়নি। আমি বিশ্বাস করি ঢাকাতে এক লাখের উপরে ভোট আছে। আমি যেহেতু ঢাকার ছেলে তাই বিশ্বাস করি আমি পাশের মতো ভোট পাবো। সারা পৃথিবীতে সরকারের একটা নেতিবাচক পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। আগের রাতের ভোটের বিষয়টি নিয়ে সরকারও বেকায়দায়। সিটি নির্বাচনে সরকারের প্রার্থীরা হেরে গেলেও সরকারের পতন হবে না। তাই আমি বিশ্বাস করি এবারের নির্বাচন আগের রাতেই ভোট হবে না।

জাপার মেয়র প্রার্থী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলনের এই ইশতেহার পেশ অনুষ্ঠানে পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুস সবুর আসুদ, আলমগীর শিকদার লোটন, জহিরুল হক রুবেল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

error0