ওয়াসিম আকরামের অবদানের কথা ভোলেননি তারা

প্রকাশিত

স্পোর্টস ডেস্ক: ১৯৯০ এর দশকে বাংলাদেশের ঘরোয়া ক্রিকেট ছিল বেশ জমজমাট। খেলা দেখতে স্টেডিয়ামে ভিড় জমাতো দর্শকরা। ১৯৯৪-৯৫ মৌসুমে বাংলাদেশের ঘরোয়া ক্রিকেটে আবাহনীর হয়ে খেলে গেছেন পাকিস্তানের সাবেক বাঁহাতি লিজেন্ড পেসার ওয়াসিম আকরাম। বাংলাদেশের ক্রিকেটে এই পেসারের কারণেই নিজেদের পারফর্ম্যান্স ভালো করতে পেরেছিলেন বলে মনে করেন বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ক আকরাম খান, মিনহাজুল আবেদিন নান্নু ও খালেদ মাসুদ পাইলট।

করোনা ভাইরাসের কারণে ঘরে বসে অবসর সময় কাটানো তামিম ইকবাল বেশ কয়েকদিন ধরেই দেশি-বিদেশি ক্রিকেটারদের নিয়ে লাইভ আড্ডায় মেতেছেন। মঙ্গলবার (১৯ মে) সেই আড্ডায় অতিথি হয়ে এসেছিলেন বাংলাদেশের সাবেক তিন অধিনায়ক খালেদ মাসুদ পাইলট, মিনহাজুল আবেদিন নান্নু ও আকরাম খান। সেখানেই সাবেক এই তিন অধিনায়ক এমন কথা বলেন। এই আড্ডায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ‘সুইং অব সুলতান’ খ্যাত ওয়াসিম আকরাম।

বাংলাদেশের ক্রিকেটে ওয়াসিমের অবদানের কথা বলতে গিয়ে নান্নু বলেন, ‘ওই সময়ে ওয়াসিম আকরামের মতো একজন বোলার আমাদের ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলেছিলেন, এটা ছিল আমাদের জন্য বড় একটা ব্যাপার। তাদের বিপক্ষে খেলার সুযোগ পেয়েছিলাম বলেই কিন্তু আমরা আত্মবিশ্বাসী হয়েছি, এবং পরে সেটা কাজেও লাগাতে পেরেছি।’

আকরাম খান বলেন, ‘এখন তো বেশি বেশি ম্যাচ হয়। আমাদের সময় কিন্তু এত ম্যাচ হতো না। দুই বছরে আমরা দুই তিনটা ওয়ানডে ম্যাচ খেলতে পারতাম। শুধু এশিয়া কাপ খেলতাম। ওয়াসিম আকরামের মতো একজন বড় ক্রিকেটার এসে আমাদের ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলেছেন, এটা আমাদের জন্য অনেক বড় পাওয়া ছিল। আমরা তাদের মতো বোলারের বিপক্ষে খেলার সুযোগ পেয়েছি।’

পাইলট বলেন, ‘ওয়াসিম আকরাম যখন আবাহনীতে খেলতে আসেন তখন আবাহনীতে আমি দারুণ কিপিং করি। দারুণ একটা ক্যাচও নিয়েছিলাম। তখন ওয়াসিম এসে আমাকে বললেন, তুই তো মঈনের (খান) মতো ক্যাচ নিয়েছিস, এটাই আমাকে আরও ভালো খেলার অনুপ্রেরণা দিয়েছিলো।