করোনায় মৃত্যুবরণকারীদের আত্মার মাগফিরাত ও শান্তি কামনা মির্জা আলমগীরের

প্রকাশিত

এওয়ান নিউজ: করোনাভাইরাসে মৃত্যুবরণকারীদের আত্মার মাগফিরাত ও শান্তি কামনা করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। একইসঙ্গে এই ভাইরাস রোধে বাংলাদেশ সরকার উদাসীন বলে দাবি করেন তিনি। রবিবার(২৯ মার্চ) রাতে বিএনপির সহদফতর সম্পাদক মুনির হোসেন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতায় বিশ্ববাসী এখন সীমাহীন আতঙ্কে দিন অতিবাহিত করছেন। করোনা ভাইরাসের মহাআতঙ্কে সমগ্র বিশ্ব এক চরম অনিশ্চয়তার মধ্যে হাবুডুবু খাচ্ছে। প্রতি মুহুর্তে নতুন আক্রান্ত আর লাশের সারি যেন লম্বা হয়েই যাচ্ছে। লকডাউন, আইসোলেশন, সেলফ কোয়ারেন্টাইনে সম্পূর্ণরুপে স্তব্ধ হয়ে পড়েছে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। চীন থেকে প্রথম ছড়িয়ে পড়া এই মহামারি ভাইরাস রোধে বাংলাদেশ সরকার উদাসীন না থাকলে এদেশে এর তীব্রতা হয়তো এতো প্রকট হতো না।’

তিনি বলেন, ‘পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্রে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বেশি সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশি মৃত্যুবরণ করেছেন। আশঙ্কা করা হচ্ছে-এই মহামারিটি আরও কঠিন আকার ধারণ করে বাংলাদেশসহ বিশ্ববাসীকে গ্রাস করতে লাগামহীন হয়ে ধেয়ে আসছে। প্রাণসংহারী এই ভাইরাসের আতঙ্কে বাংলাদেশসহ বিশ্ববাসী চরম উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে। এই অবস্থার দ্রুত অবসান না হলে মানবসভ্যতার ভবিষ্যৎ কি হবে তা সহজেই অনুমেয়। বর্তমান পরিস্থিতি সন্দেহাতীতভাবে একটি বৈশ্বিক সমস্যা ও সকল রাষ্ট্রের জন্য সেটি জাতীয় সংকট। এই মহা-সংকট ও দুর্যোগময় পরিস্থিতিতে দেশ এবং জনগণের স্বার্থে সবাইকে যেকোন মূল্যে ঐক্যবদ্ধ ভূমিকা রাখার আহবান জানাচ্ছি।’

ফখরুল বলেন, ‘সরকারের সমন্বিত উদ্যোগে দলমত, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে প্রতিটি মানুষকে ‘লকডাঊন’ ‘কোয়ারেন্টাইন’ কিংবা ‘সেলফ আইসোলেশন’ প্রক্রিয়া সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা দিতে হবে। নইলে এটি রোধ করা আদৌ সম্ভবপর নয়।’

তিনি বলেন, ‘করোনা ভাইরাসের আগ্রাসী ছোবল থেকে ইউরোপ, আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া, আফ্রিকা, মধ্যপ্রাচ্য, এশিয়া কিংবা বাংলাদেশসহ বিশ্বাস প্রতিটি মানুষকে রক্ষার জন্য মহান আল্লাহর করুণা ভিক্ষা চাইছি। পাশাপাশি এই মরণঘাতি ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বের বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশি ও বিশ্বের অগণিত মৃত্যুবরণকারীদের আত্মার মাগফিরাত ও শান্তি কামনা করছি।’