করোনা আতঙ্কে বিশ্বজুড়ে থমকে গেছে পর্যটন!

প্রকাশিত

এওয়ান নিউজ ডেস্ক: সাংহাই ডিজনি রিসোর্টে তালা মেরে শুরুটা হয়েছিল। এরপর করোনা ভাইরাস উদ্বেগের কারণে একে একে এশিয়ার সব ডিজনি-থিম পার্ক বন্ধ হতে বেশিদিন লাগেনি। 

বিশ্বের সবচেয়ে বৃহৎ শিল্পের মধ্যে পর্যটন অন্যতম। করোনা ভাইরাস আতঙ্কে সারা পৃথিবীতে পর্যটকদের ভ্রমণ বাতিল ও বিভিন্ন বিধিনিষেধের কারণে বিরূপ প্রভাব পড়েছে এই খাতে। জার্মানির বার্লিনে এ বছর বার্ষিক পর্যটন ইভেন্ট ‘ইন্টারন্যাশনাল ট্যুরিজম এক্সচেঞ্জ’ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ভাইরাসের কারণে তা বাতিল হয়ে গেছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দাবি, চীনের উহান থেকে ছড়িয়েছে করোনা ভাইরাস। শহরটির রাস্তাঘাট যেন এখন নির্জন মরুভূমি। ভাইরাস যেন না ছড়ায় সেজন্য গত জানুয়ারি থেকেই এখানকার বাসিন্দারা নিজেদের আবদ্ধ করে রেখেছেন ঘরে।

উহানে নির্জন সড়কভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়ায় বিশ্বব্যাপী ৮৯ হাজারেরও বেশি মানুষ সংক্রমিত হয়েছে। এ কারণে বিখ্যাত পর্যটন আকর্ষণসহ বিভিন্ন আয়োজনে এর নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে, যেগুলোতে পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তের দর্শনার্থীর অংশগ্রহণ দেখা যায়।

ফ্রান্স ও ইউরোপের বিভিন্ন অংশে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ছড়িয়ে পড়ায় প্যারিসের বিখ্যাত লুভর জাদুঘর অস্থায়ীভাবে বন্ধ করা হয়েছিল। তিন দিন পর বুধবার (৪ মার্চ) এর দরজা আবারও খুলেছে।

প্রতিদিনই নতুন করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ার ঘটনা চিহ্নিত হচ্ছে, এ কারণে পর্যটন কেন্দ্র বন্ধ ও ইভেন্ট বাতিলের তালিকা দীর্ঘ হতে পারে। কোনও জায়গা বা ইভেন্ট বাতিল হলো কিনা তা জানতে সেগুলোর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে ঢোকা শ্রেয়।

লুভর জাদুঘরআকর্ষণ
দক্ষিণ কোরিয়ার অন্যতম জনপ্রিয় পর্যটন কেন্দ্র গিয়ংবোকগং প্যালেস পরবর্তী ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত সব ধরনের অফিসিয়াল গাইড ট্যুর স্থগিত করেছে। অবশ্য নিজে থেকে ঘুরে বেড়াতে চাইলে অনুমতি পাওয়া যাবে।

ইতালির মিলানে সম্প্রতি ভ্রমণে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। গত ২ মার্চ মিলান দুয়োমো পর্যটকদের জন্য ফের খুলেছে। যদিও ভিড় এড়াতে নেওয়া হয়েছে কর্মসূচি। তবে শহরটির জনপ্রিয় অপেরা হাউস তেয়াত্রো আলা স্কালা করোনা ভাইরাস আতঙ্কে আরও কিছুদিন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ফ্লোরেন্সের ক্যাথেড্রাল স্কয়ারে পর্যটকের চেয়ে কবুতর বেশিফ্লোরেন্স শহরের পিয়াৎজা দেল দুয়োমো তথা ক্যাথেড্রাল স্কয়ারে সারাবছরই কবুতরের চেয়ে পর্যটকদের ভিড় বেশি থাকে। কিন্তু এখন বিরল চিত্র। ভ্রমণপ্রেমীদের চেয়ে পাখিই বেশি। ভ্যাটিকান সিটির সেন্ট পিটার’স স্কয়ারে পর্যটকদের উপস্থিতি এখন হাতেগোনা। সব মিলিয়ে গোটা ইতালিতে হোটেল বুকিং ৫০ শতাংশেরও নিচে নেমে গেছে।

জাপানের কিয়োটো শহরের কিনকাকু-জি মন্দিরজাপানের রাজধানীতে প্রথমবার বেড়াতে যাওয়া ভ্রমণপ্রেমীদের মধ্যে বেশ জনপ্রিয় টোকিও স্কাইট্রি গত ১ মার্চ বন্ধ হয়েছে। এর ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, দর্শনার্থী ও সহযোগীদের স্বাস্থ্য ও সুরক্ষার কথা বিবেচনা করেই এই সিদ্ধান্ত। আগামী ১৫ মার্চ এটি আবারও চালু হতে পারে।

টোকিওতে পর্যটকদের ট্রেন ‘হাকোনে রোম্যান্সকার’ চলছে হাকোনে থেকে শিনজুকু স্টেশনে। কিন্তু খুব কমসংখ্যক যাত্রী এখন এটি উপভোগ করছেন। জাপানের সোনালি রঙা কিনকাকু-জি মন্দির কিয়োটোর সবচেয়ে জনপ্রিয় পর্যটন আকর্ষণের মধ্যে অন্যতম। কিন্তু এখানে পর্যটক সংখ্যা হ্রাস পেয়েছে আশঙ্কাজনক হারে।

হংকং ডিজনিল্যান্ডথিম পার্ক

গত ২৪ জানুয়ারি সাংহাই ডিজনি বন্ধ করা হয়। তবে ফের কবে এর দরজা খুলবে সেই তথ্য জানা যায়নি। বিশ্বের যেকোনও দেশের চেয়ে চীনে করোনা ভাইরাসে সংক্রমণ ও মৃতের সংখ্যা অনেক বেশি। এ পরিস্থিতিতে সাংহাই ডিজনির কার্যক্রম আবারও কখন চালু হবে তা স্পষ্ট নয়। রিসোর্টটির ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্থানীয় সরকারের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে থিম পার্কটি বন্ধ রয়েছে। পরিস্থিতি নিরাপদ মনে হলে এটি আবারও খোলার তারিখ ঘোষণা করা হবে।

গত ২৬ জানুয়ারি থেকে অস্থায়ীভাবে বন্ধ থাকা হংকং ডিজনিল্যান্ড আবারও কবে চালু হবে তা জানানো হয়নি। আরেক থিম পার্ক ও অ্যাকুরিয়াম ওশান পার্ক একইভাবে বন্ধ আছে।

এদিকে জাপানে সাম্প্রতিক সপ্তাহে ক্রমে করোনা ভাইরানের প্রাদুর্ভাব বেড়েছে। এ কারণে টোকিও ডিজনিল্যান্ড এবং ডিজনিসি বন্ধ হয়ে গেছে। সব ঠিক থাকলে আগামী ১৬ মার্চ এসব চিত্তবিনোদনের পার্ক আবারও খোলা হবে। ইউনিভার্সেল স্টুডিওস ঘোষণা দিয়েছে, এটি ১৫ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। সব মিলিয়ে ডিজনি-থিমের পার্কগুলো পর্যটকদের ভ্রমণ পরিকল্পনার ওপর প্রভাব ফেলছে।

থাইল্যান্ডের আলোচিত থিম পার্ক লেজেন্ড সিয়াম ঘোষণা দিয়েছে, দর্শনার্থী কমে যাওয়ায় ৩ মার্চ থেকে এটি বন্ধ থাকবে। ফলে থিম পার্ক কিংবা রিসোর্ট অঞ্চলকে কেন্দ্র করে বেড়ানোর পরিকল্পনা থাকলে সেগুলোর কার্যক্রম সম্পর্কে সবশেষ তথ্য জেনে নেওয়া ভালো।

ভ্যাটিকান সিটির সেন্ট পিটার’স স্কয়ারজাদুঘর
মিলান ও ভেনিসসহ ইতালির উত্তরাঞ্চলের কয়েকটি জাদুঘর সাময়িকভাবে বন্ধ রয়েছে। নতুন সুরক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে এগুলো আবারও খোলা হবে। এক্ষেত্রে উদাহরণ হিসেবে বলা যায় ভেনিসের পেগি গুগেনহাইম কালেকশনের কথা। জাদুঘরটি বড় আকারের সমাবেশে সীমাবদ্ধতা রাখবে। একইসঙ্গে দর্শনার্থীদের একে অন্যের কাছ থেকে অন্তত এক মিটারের দূরত্ব বজায় রাখার আহ্বান জানানো হবে।

করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় চীন জুড়ে জাদুঘরগুলোর দরজা সাময়িকভাবে বন্ধ রাখতে হচ্ছে। এসব জাদুঘর কর্তৃপক্ষকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সক্রিয় থেকে ডিজিটালি সেবা দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে দেশটির ন্যাশনাল কালচারাল হেরিটেজ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এনসিএইচএ)। এ তালিকায় আরও আছে বেইজিংয়ের ফরবিডেন সিটির প্যালেস মিউজিয়াম। গত ২৫ জানুয়ারি থেকে এতে তালা ঝুলছে।

জাপানের বেশ কয়েকটি জাদুঘর করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে অস্থায়ীভাবে বন্ধ আছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য টোকিওর মোরি আর্ট মিউজিয়াম এবং ন্যাশনাল মিউজিয়াম অব মডার্ন আর্ট আর কিয়োটো ন্যাশনাল মিউজিয়াম। নিউ ইয়র্ক ভিত্তিক ম্যাগাজিন আর্টনিউজ এসব তথ্য দিয়েছে।

দক্ষিণ কোরিয়ায় পরবর্তী ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ রাখা জাতীয় সংস্থাগুলোর মধ্যে রয়েছে ন্যাশনাল মিউজিয়াম অব কোরিয়া ও ন্যাশনাল মিউজিয়াম অব মডার্ন অ্যান্ড কন্টেমপোরারি আর্ট।

জাপানের চেরি ফুলইভেন্ট
বিশ্বের বৃহৎ ম্যারাথনগুলোর মধ্যে অন্যতম টোকিও ম্যারাথন গত ১ মার্চ বড় বাধার মুখে অনুষ্ঠিত হয়েছে। খুবই সীমিতসংখ্যক সেরা দৌড়বিদকে এতে অংশ নেওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়। অন্যদের জন্য ছিল ভিন্ন ব্যবস্থা।

ফ্রান্স সরকারের আদেশ অনুযায়ী, পাঁচ হাজারেরও বেশি মানুষের সব ধরনের জনসমাবেশ বাতিল করা হয়েছে। এ কারণে প্যারিসে বার্ষিক শীতকালীন হাফ ম্যারাথন হয়নি। গত ১ মার্চ এতে ৪০ হাজারের বেশি দৌড়বিদের অংশ নেওয়ার কথা ছিল।

এখন পর্যন্ত টোকিওতে আয়োজিত অলিম্পিক গেমস বাতিলের কোনও পরিকল্পনা নেই। আগামী ২৪ জুলাই এটি শুরু হওয়ার কথা। করোনা ভাইরাস আতঙ্কে জাপানের বেসবল মৌসুমের শুরুটা হয়েছে নিষ্প্রভ। টোকিও ডোম স্টেডিয়ামে প্রথম দুটি খেলায় গ্যালারি ছিল শূন্য। সাংহাইতে ইউয়েনশেন স্পোর্টস সেন্টার স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত একটি ফুটবল ম্যাচে গ্যালারিতে কাকপক্ষীও দেখা যায়নি।

সুমো কুস্তিতেও প্রভাব ফেলেছে ভাইরাসটি। গত ১ মার্চ স্প্রিং গ্র্যান্ড সুমো টুর্নামেন্টের ঘোষণা দিয়েছে জাপান সুমো অ্যাসোসিয়েশন। আগামী ৮ মার্চ শুরু হবে এই আয়োজন। তবে করোনা ভাইরাসের কারণে প্রথমবারের মতো দর্শকশূন্য বন্ধ দরজায় এটি অনুষ্ঠিত হবে। টোকিওর নাকামেগুরো চেরি ব্লসম ফেস্টিভ্যালসহ বেশ কয়েকটি বড় পরিসরের চেরি ফুলের উৎসব বাতিল করা হয়েছে।

দর্শকশূন্য টোকিও ডোম স্টেডিয়ামে বেসবল খেলাফর্মুলা ওয়ান মোটর রেস ইভেন্টের মধ্যে থাইল্যান্ড গ্রাঁ প্রিঁ স্থগিত হয়েছে। একইভাবে ভিয়েতনাম গ্রাঁ প্রিঁ আগামী ৫ এপ্রিল নির্ধারিত সময়ে হবে না বলে ধারণা করা হচ্ছে। বাতিলের খাতায় আছে কনসার্ট। বেশ কয়েকজন সংগীতশিল্পী এশিয়া ট্যুর বাতিল করেছেন। এ তালিকায় উল্লেখযোগ্য দক্ষিণ কোরিয়ান ব্যান্ড বিটিএস এবং আমেরিকান রক ব্যান্ড গ্রিন ডে। গ্রিন ডে’র ওয়েবসাইটে আভাস দেওয়া হয়েছে, এবারের বসন্তে মস্কোতে আবারও সংগীত সফর শুরুর পরিকল্পনা করছেন ব্যান্ডের সদস্যরা।

মাঠে খেলোয়াড় ও রেফারিরা, কিন্তু গ্যালারি পুরো ফাঁকাতথ্যসূত্র: ইন্টারনেট

error0