বিভাগ - সারাদেশ

কলাপাড়ায় আওয়ামীলীগের সম্মেলনে নতুন কমিটি ঘোষনা হলেও সাময়িক স্থগিত

প্রকাশিত

রাসেল কবির মুরাদ , কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি ঃ আনন্দ-উদ্দিপনা, উত্তাপ, শংকা-আশংকা সবকিছুকে ছাড়িয়ে শেষপর্যন্ত কলাপাড়ায় ব্যাপক বর্নাঢ়্য আয়োজনে আওয়ামীলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার স্থানীয় শহীদ মিনার চত্বরে কলাপাড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে পটুয়াখালী সদর আসনের সংসদ সদস্য, সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ও জেলা আ.লীগের সভাপতি এ্যাড. শাহজাহান মিয়া বলেন, দখিনের অবহেলিত জনপদে উন্নয়নের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। শেখ হাসিনা সেনা নিবাস, শের-এ-বাংলা নৌ-ঘাঁটি, পায়রা সমুদ্র বন্দর, কয়লা ভিত্তিক বেশ কয়েকটি তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র র্নিমান করেছেন। পায়রা বন্দরকে ঘিরে এ অঞ্চলে তৈরি হচ্ছে একটি শািক্তশালী অর্থনৈতিক জোন। যেখানে কর্মসংস্থান হচ্ছে কয়েক লক্ষ মানুষের, ঘটবে ব্যবসায়ীক সম্প্রসারন। এসময় তিনি আরো বলেন, পায়রা বন্দরকে ঘিরে কলাপাড়া হবে দেশের তৃতীয় অর্থনৈতিক জোন। দেশের একমাত্র উপজেলা কলাপাড়াকে ঘিরে বেশ কয়েকটি মেঘা উন্নয়ন প্রকল্প চালু করেছেন। কয়েক হাজার কোটি টাকার বরাদ্ধ দিয়েছেন। এ অঞ্চলের মানুষের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর গভীর ভালবাসা থেকেই তিনি এসব করেছেন। ভবিষ্যতেও এ উন্নয়ন ধারা অব্যাহত রাখবেন।

এ সম্মেলনের উদ্ভোধন করেন কেন্দ্রীয় আওয়ামীগের তথ্য ও গবেষনা বিষয়ক সম্পাদক এ্যাড. আফজাল হোসেন। শেষপর্যন্ত সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে কলাপাড়া উপজেলা আ.লীগের সভাপতি, সাবেক পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী মাহাবুবুর রহমান তালুকদারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এ্যাড.শাহজাহান মিয়া। কলাপাড়া উপজেলা আ.লীগের সাধারন সম্পাদক রাকিবুল আহসানের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পটুয়াখালী-৪ আসনের সাংসদ অধ্যক্ষ মহিব্বুর রহমান মহিব। জাতীয় সংগীতের সুরে দলীয় ও জাতীয় পতাকা উত্তোলনসহ কোরআন তেলোয়াত, গীতা পাঠ, ত্রিপিটক পাঠের মধ্য দিয়ে সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা অওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক কাজী আলমগীর হোসেন।

শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন স্থানীয় এমপি আলহাজ মহিব্বুর রহমান মহিব। আরো বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল মান্নান, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট গোলাম সরোয়ার, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট সুলতান আহম্মেদ মৃধা, কলাপাড়া উপজেলা সাংগঠনিক সম্পাদক মঞ্জুরুল ইসলাম, অধ্যাপক মঞ্জুরুল আলম। এসময় পটুয়াখালী পৌরসভার মেয়র মহিউদ্দিন আহম্মেদ, কলাপাড়া পৌরসভার মেয়র বিপুল চন্দ্র হাওলাদার, কলাপাড়া মহিলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ ফাতেমা আক্তার রেখা, সাবেক (ভারপ্রাপ্ত) সভাপতি আলহাজ্ব সুলতান মাহমুদ, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোতালেব হোসেন তালুকদার, অধ্যক্ষ শহীদ বিশ্বাস, অধ্যক্ষ সৈয়দ নাসির, সৈয়দ আখতারুজ্জামান কোক্কা, সাবেক উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভানেত্রী প্রীতি রহমান, কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের উপ-সম্পাদক আবদুল্লাহ আল ইসলাম লিটন, উপ-সম্পাদক নিহার রঞ্জন মিল্টন সরকার, ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিনের সহ-সভাপতি মুরসালিন আহমেদ, সাবেক কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা এডভোকেট শামীম আল সাইফুল সোহাগসহ প্রমুখ জেলা-উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সকল সহযোগী অংগ-সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

দ্বিতীয় অধিবেশনে এমপি মহিব্বুর রহমানকে সভাপতি এবং আবদুল মোতালেব তালুকদারকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করার কিছুক্ষণ পরেই আবার কেন্দ্রের সঙ্গে আলোচনার কথা বলে চুড়ান্ত সিদ্ধান্তের কথা জানান জেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ। জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) কাজী আলমগীর হোসেন জানান, যেহেতু কন্ঠভোটে কাউন্সিলররা স্থানীয় এমপি মহিব্বুর রহমানকে সভাপতি নির্বাচিত করেছেন। ওই কারণে আপাতত কেন্দ্রের নির্দেশনা অনুসারে কমিটি ঘোষণা স্থগিত রাখা হয়েছে। কেন্দ্রের সিদ্ধান্তমতে পরবর্তী ব্যবস্থা গৃহীত হবে।