বিভাগ - সারাদেশ

কলাপাড়ায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ, আহত – ৫

প্রকাশিত

রাসেল কবির মুরাদ , কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি ঃ কলাপাড়ায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে অন্তত ৫ জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে ইলিয়াস(২৫), ইদ্রিস(২৭), পলাশ(১৯) ও শাকিব(২০) কে উদ্ধার করে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে। এছাড়া শান্ত(১৯) কে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। শনিবার রাত আটটায় শহরের কলাপট্টি ও রাত নয়টায় হাসপাতাল চত্বরে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

যুবলীগ নেতা শাহরিয়ার সবুজ জানায়, সংসদ সদস্য মহিববুর রহমান ঢাকা থেকে কলাপাড়ায় আগমন উপলক্ষে ইলিয়াস ধুলাসার থেকে কলাপাড়ায় আসেন। এসময় পৌর শহরের কলাপট্টি খেয়াঘাট এলাকায় টিয়াখালী ইউপি চেয়ারম্যান শিমু মীরার লোকজন ইলিয়াসকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। ইলিয়াসকে উদ্ধার করে কলাপাড়া হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে দ্রুত বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেন। এসময় রাত নয়টায় হাসপাতাল চত্বরে ফের শিমুর উপস্থিতিতে ইদ্রিসকে কুপিয়ে আহত করে তার বাহিনী।

টিয়াখালী ইউপি চেয়ারম্যান যুবলীগ নেতা শিমু মীরা পাল্টা অভিযোগ করে জানান, পলাশ এবং শাকিবকে কুপিয়ে আহত করেছে পৌর ছাত্রলীগ’র সাধারণ সম্পাদক খালিদ ও তার বাহিনী। বর্তমানে আহত দুজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল পাঠানো হয়েছে।

অপরদিকে ছাত্র নেতা খালিদের অভিযোগ, তার আপন ছোট ভাই নুরকে বেশ কয়েকবার চরথাপ্পর মেরেছেন শিমু। এছাড়া ছাত্রলীগ কর্মী শান্তকে শিমু নিজ হাতে ছুড়িকাঘাত করেছেন। কলাপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম বলেন, তিন জন আহত হওয়ার খবর জানতে পেরেছি। ঘটনার পরপরই পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এখন পর্যন্ত পরিবেশ শান্ত রয়েছে।