বিভাগ - সারাদেশ

কলাপাড়ায় কুকুরের কামড়ে নারী-পুরুষ ও শিশুসহ আহত-৯, আতঙ্কিত এলাকাবাসী

প্রকাশিত

রাসেল কবির মুরাদ , কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি ঃ কলাপাড়ায় পাগলা কুকুরের কামড়ে শিশুসহ ৯ জন আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার সকালে নীলগঞ্জ ইউনিয়নের নাওয়ভাঙ্গা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতরদের সবাইকে কলাপাড়া হাসপাতালে প্রাতমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। কুকুর পাগল হয়ে মানুষ কামড়াচ্ছে এ কথা ছড়িয়ে গেলে এলাকাবাসীদের মধ্যে একধরনের আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

স্থানীয়রা জানায়, খুব ভোরে নাওভাঙ্গা গ্রামের গাজী বাড়িতে ফারিদা বেগম(৫৫) নামের এক বৃদ্ধা ফজরের নামাজের জন্য ওজু করতে গেলে প্রথমে তাকে কালো রংয়ের একটি কুকুরে কামড় দেয়। পরে একই এলাকার ওই একই কুকুর আমিরুল(৩৫), মাহফুজা(৪০), পারুল(৫৫), জাকারিয়া(২০), দাইয়ান(৩২) সহ একটি ছাগল ও কয়েকটি মুরগিকে কামড়ায়। এছাড়া কিছুক্ষন পরে সিয়াম(১১) ও জান্নাতুল(৬) নামের দুই শিশুকে কামড়ায়। পরে স্থানীয়রা কুকরটিকে ধাওয়া করে মেরে ফেলেছে বলে জানা যায়।

এদিকে বেওয়ারিশ কুকুরের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন এলাকাবাসী। প্রায়শই কুকুরের কামড়ে কিংবা ধাওয়া খেয়ে আহত হয়েছেন অনেকেই। কলাপাড়া পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ থেকে কুকুরের নিধন কিংবা বিষমুক্ত ভ্যাকসিন দেয়ার ব্যাপরে কোন পদক্ষেপ না নেয়ায় অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

কলাপাড়া হাসপাতালের জরূরী বিভাগের সহকারী চিকিৎসক কবির হোসেন জানান, কুকুরের কামড়ে আহত হয়ে সকাল থেকে এ পর্যন্ত আটজন চিকিৎসা নিয়েছেন। হাসপাতালে কোন ভ্যাকসিন নেই।

নীলগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন মাহমুদ বলেন, বিগত দিনে এধরনের ঘটনায় গৃহপালিত কুকুরদের মালিকদের সাবধান করে দেওয়া হয়েছে, সতর্কিত না হলে ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে এবং ভবিষ্যতেও উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি আরো বলেন, কুকুর মারার উপর আদালতের নিষেধাষ্ণা থাকায় কোন ব্যবস্থা নেওয়া যাচ্ছেনা। তবে কুকুর বিষমুক্ত রাখার ব্যাপরে পদক্ষেপ নেয়া হবে।