কালীগঞ্জে যৌথ অভিযানে লাঠিচার্জ ও জরিমানা আদায়

প্রকাশিত

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃ ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ শহরে সেনা, পুলিশ ও উপজেলা প্রশাসনের যৌথ অভিযান চালানো হয়েছে। এ সময়ে অকারনে বাজারে ঘোরাঘুরি ও আড্ডাবাজদের ছত্রভঙ্গ করতে লাঠিচার্জ করা হয়। এ খবরে মানুষের দৌড়াদৌড়িতে নিমিশেই ফাকা হয়ে পড়ে শহর। শুক্রবার বিকালে আকস্মিকভাবে শহরের মেইন বাজার সহ প্রধান প্রধান গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলিতে এ অভিযানে নামে সেনাবাহিনীর টহল টিম ও পুলিশ সদস্যরা। এছাড়াও তারা উপজেলার বিভিন্ন গ্রামাঞ্চলের বাজার গুলিতেও টহল ও অভিযান চালায়। এ অভিয়ানে কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সূবর্ণা রানী সাহা, সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ হামিদুল হক, কালীগঞ্জ থানার অফিসার্স ইনচার্জ মাহফুজুর রহমান মিয়া ও থানার সকল অফিসার সহ উপজেলা প্রশাসনের অন্নান্য কর্মকর্তাগন উপস্থিত ছিলেন। শুক্রবার আকস্মিক যৌথ বাহিনীর সাথে ওই অভিযানে অংশ নেওয়া ইউএনও সূবর্ণা রানী সাহা জানান, মহামারি করোনা প্রতিরোধে সরকারীভাবে বাজার ও বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলিতে লোকসমাগম নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এরপরও কিছু মানুষ নিষেধ অমান্য করে বাজারে জড়ো হয়ে জটলা করছে। তাই সেনাবাহিনী ও পুলিশের যৌথ উপস্থিতিতে বাজারগুলিতে এ অভিযান চালানো হয়। তারা এ অভিযানকালে বাজারের কয়েকটি দোকান ছাড়াও কাগজপত্র না থাকায় কয়েকটি মটরসাইকেল আরোহীকে জরিমানা করা হয়। তাদের এ অভিযান অব্যহত থাকবে বলেও তিনি জানান। এ অভিযান টিমে অংশ নেওয়া যশোর ক্যান্টনমেন্ট সেনা সদর থেকে আগত ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ হামিদুল হক জানান, কালীগঞ্জে অভিযান চালানো ছাড়াও সেনা টহল টিমটি কোটচাদপুর উপজেলাতেও অভিযান চালায়। তারা করোনা প্রতিরোধে মাঠ পর্ষায়ে পরোদমে কাজ করে যাবেন।