বিভাগ - সারাদেশ

কা‌দিয়ানী‌দের কা‌ফের ঘোষনা ক‌রো, নয়‌তো পা‌শে থাক‌বো না: প্রধানমন্ত্রীর উ‌দ্দে‌শ্যে আল্লামা শফী

প্রকাশিত

নারায়ণগঞ্জ প্রতি‌নি‌ধি: কাদিয়ানী‌দের অমুস‌লিম ঘোষনার দাবী‌তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হা‌সিনার উ‌দ্দে‌শ্যে হেফাজতে ইসলামের আমীর আল্লামা শাহ আহমদ শফি ব‌লে‌ছেন, ‘আগেও বলেছি, কাদিয়ানীদের সরকারি ভাবে অমুসলিম ঘোষণা করা হোক। বার বার জানানো হয়েছে, তারপরেও কোন কর্ণপাত করছো না। এখনও বলছি, অতি সত্তর কাদিয়ানীদের কাফের ঘোষণা করো। তবেই আমরা আপনাদের সাথে থাকবো, নয়তো থাকবো না। এ দেশ কি হবে জানি না। ‘

শনিবার (১ ফেব্রুয়ারি) মাগ‌রিব আজা‌নের কিছু সময় আগে নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে এ কথা বলেন হেফাজতে ইসলামের আমীর।কাদিয়ানী‌দের দে‌শে থাক‌তে হ‌লে অমুসলিম হ‌য়ে থাক‌তে হ‌বে ব‌লে জানান আল্লামা শ‌ফি। তার ভাষ্য ম‌তে, ‘কাদিয়ানীরা এ দেশে থাকবে, এতে আমাদের কারো আপত্তি নেই। কিন্তু থাকতে হলে অমুসলমান হয়ে থাকতে হবে। মুসলমান হয়ে থাকতে পারবে না।’

কওমী মাদ্রাসার শিক্ষক-ছাত্রদের সংগঠন আন্তর্জাতিক মজলিসে তাহাফফুজে খতমে নবুওয়াত বাংলাদেশের নারায়ণগঞ্জ শাখার উদ্যোগে এ ইসলামী সম্মেলনটির আয়োজন করা হয়। এতে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও এর আশপাশ থেকে লাখ লাখ তৌহিদী জনতা অংশনেন। সম্মেলনকে ঘিরে নারায়ণগঞ্জ শহর ও আশপাশে সকাল থেকে ব্যাপক নিরাপত্তা জোরদার ছিলো।

সম্মেলনে উপস্থিত সকলের উদ্দেশ্যে আল্লামা শাহ আহমদ শফি বলেন, হযরত মোহাম্মদ (সাঃ)কে যারা শেষ হিসেবে নবী মানেন না; তারা কাফের। তাদেরকে মুসলমানের কবরস্থানে দাফন করা যাবে না। তাদের সাথে আত্মীয়তা করা যাবে না। তাদের মহিলাদের বিবাহ্ করা যাবে না।

সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন হেফাজতে ইসলামীর মহাসচিব জুনায়েদ বাবুনগরী, হেফাজতে ইসলামীর ঢাকা মহানগরের সভাপতি নূর হোসাইন কাশেমী, সাইদুর রহমান, আব্দুল হামিদ, আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী, মিজানুর রহমান চৌধুরী, নূরুল ইসলাম জিহাদী, আবদুল্লাহ মুহাম্মদ হাসান, জুনায়েদ আল হাবীব, ইমাদুদ্দীন, আবদুল বারী, আশরাফ আলী, আবদুল কুদ্দুস, তাফাজ্জুল হক, নূরুল ইসলাম ওলিপুরী, মুহাম্মদ ওয়াক্কাস, আশেকে এলাহী, আব্দুল হাই মেশকাত, মুহাম্মদ ইসহাক, মামুনুল হক, নজরুল ইসলাম কাশেমী, ওবায়দুর রহমান খাঁন নদভী, মাহবুবুল হক কাশেমী, শফিকুল ইসলাম, আব্দুল আউয়াল, আবদুল কাদির ও আবু তাহের জিহাদী প্রমুখ।

বেলা দেড়টা থেকেই আয়োজিত সমাবেশে নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন এলাকা থেকে কেন্দ্রীয় ঈদগাহে আসতে থাকেন কাদিয়ানি বিরোধী হেফাজত নেতৃবৃন্দ। বিকেল ৪টার কিছু সময় আগে সমাবেশস্থলে যোগ দেন হেফাজতের কেন্দ্রীয় আমির মাওলানা আহমদ শফী।

এ‌দি‌কে, সমাবেশকে কেন্দ্র করে যাতে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি না হয় সে জন্য শহরের বিভিন্ন সড়কসহ গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে সতর্ক অবস্থায় দেখা গে‌ছে আইন শৃঙ্খলা-বাহিনীর সদস্যদের। আহমদীয়া মুসলিম জামাতের মসজিদের নিরাপত্তায় ছি‌লো পুলিশি প্রহরা। তাছাড়া সম্মেলনকে কেন্দ্র করে চাষাঢ়ায় বাঁশের লাঠি হাতে অবস্থানরত দেখা গে‌ছে মজলিসে তাহাফ্ফুজে খতমে নবুওয়াত বাংলাদেশ নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার কর্মীরা‌দের।

অপরদিকে, নিরাপত্তার জন্য সকাল থেকেই চাষাঢ়ার কাদেয়ানী মসজিদের গেইট বন্ধ করে ভিতরে অবস্থান করছে কাদেয়ানীপন্থীরা। কাউকে ভিতরে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। মসজিদের প্রধান ফটকের সামনে পুলিশি পাহাড়ায় জোর দার করা হয়েছে।