কিশোরীগঞ্জে চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত: লকডাউন বিভিন্ন এলাকা

প্রকাশিত

নীলফামারী প্রতিনিধি: নীলফামারী জেলার কিশোরীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একজন চিকিৎসকের করোনা পজেটিভ হওয়ায় ওই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সহ উপজেলার বেশকিছু এলাকা লকডাউন ঘোষনা করা হয়েছে। ঘটনায় মঙ্গলবার(৭ এপ্রিল)বিকেল ৫টার দিকে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ ও উপজেলা প্রশাসন ক্যাম্পাস সহ বেশকিছু এলাকা লকডাউন ঘোষনা করেছেন। জানা গেছে, ওই চিকিৎসকের বাড়ি ঢাকায় হওয়ায় তিনি গত ২৫ মার্চ ছুটিতে ঢাকা যান। গত শুক্রবা(৩রা এপ্রিল) ঢাকা থেকে ফিরে এসে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দায়িত্ব পালন করছিলেন। এ অবস্থায় তিনি জ্বর,সর্দি,হাচি কাশিতে আক্রান্ত হয়ে পড়েছিলেন।

গত সোমবার(৬ এপ্রিল) নীলফামারী জেলার করোনা সন্দেহে সাত জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়। ওই সাতজনের মধ্যে একজনের পজেটিভ প্রতিবেদন মঙ্গলবার নীলফামারী জেলা স্বাস্থ্য বিভাগে আসে। ওই একজন হলেন কিশোরীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা কর্মকর্তা। তাকে উক্ত উপজেলা হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নীলফামারী সিভিল সার্জন ডাঃ রনজিৎ কুমার বর্মন বলেন, মঙ্গলবার(৭এপ্রিল)বিকেল ৫টার দিকে ওই স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি লকডাউন করা হয়েছে। ওই চিকিৎসকের সংস্পর্সে আশাদের চিহিৃত করার সহ স্বাস্থ্য কেন্দ্রে যারা আছেন তাদের কোয়ারেণ্টিন করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ক্যাম্পাস, মেডিকেল মোড় থেকে পূর্বদিকে শহীদ মিনার ও উত্তরের ধাইঝান নদীর ব্রিজ এলাকা পর্যন্ত লকডাউন করা হয়েছে।