গত বছর দেশে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় ১৮৫ জনের মৃত্যু ও আহত ৫৮৬: ইসাব

প্রকাশিত

এওয়ান নিউজ: গত বছর দেশে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় ১৮৫ জনের মৃত্যু ও ৫৮৬ জন আহত হয়েছেন । আর এতে সম্পদহানী হয়েছে ৩৩০ কোটি ৪১ লাখ ২৮ হাজার ৭৪৪ টাকার। ইলেকট্রনিক্স সেফটি অ্যান্ড সিকিউরিটি অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ইসাব) আজ জাতীয় প্রেস ক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য তুলে ধরে।

আগামী ১৩ থেকে ১৫ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিতব্য ‘ইন্টারন্যাশনাল ফায়ার সেফটি অ্যান্ড সিকিউরিটি এক্সপো-ইফসি-২০২০’ সম্পর্কে গণমাধ্যমকে জানানোর জন্য ইসাব এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। ইসাব সভাপতি মো. মোতাহার হোসেন খান সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলেন, ‘বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের তথ্যমতে, ২০১৯ সালে দেশে ছোট বড় মিলিয়ে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে মোট ২৪ হাজার ৭৪টি।’

তিনি বলেন, ‘এসময়কালে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে ১৮৫ জনের, আর আহত হয়েছেন ৫৮৬ জন। সম্পদহানী হয়েছে ৩৩০ কোটি ৪১ লাখ ২৮ হাজার ৭৪৪ টাকার। মানবসম্পদ ও অর্থসম্পদের এই বিশাল ক্ষতি অপূরনীয়।’ ইসাব সভাপতি বলেন, ক্রেতাদের চাপে তৈরি পোশাক শিল্পে অগ্নিনিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করলেও এর ব্যবস্থাপনায় আরো দক্ষ হওয়া জরুরী। এছাড়া অন্যান্য শিল্প কারখানা সুউচ্চ ভবন থেকে শুরু করে বাসাবাড়িসহ সর্বত্রই অগ্নিনিরাপত্তা ব্যবস্থা আরো জোরদার করা এখন সময়ের দাবি।

তিনি বলেন, দেশে অগ্নি নিরাপত্তা সম্পর্কে সামজিক সচেতনতা সৃষ্টির জন্য ইসাব ৭ম বারের মত তিন দিনব্যাপী ইন্টারন্যাশনাল ফায়ার সেফটি অ্যান্ড সিকিউরিটি এক্সপো-ইফসি-২০২০ আয়োজন করতে যাচ্ছে। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে মেলার উদ্বোধন করবেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের মহাপরিচালক ব্রি: জেনারেল মো. সাজ্জাদ হোসাইন, এফবিসিসিআই সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম ও বিজিএমইএ সভাপতি ড. রুবানা হক। তিন দিনব্যাপী মেলার ৭ম আসরে বরাবরের মত কো-পার্টনার থাকছে বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্স।

এক্সপোতে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, জার্মানি, ইতালি, তাইওয়ান, তুরস্ক, ইউএই, পর্তুগাল, স্পেন, পোল্যান্ড, সুইজারল্যান্ড, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর ও ভারতসহ ২৫টি দেশের বিভিন্ন ব্রান্ডের ফায়ার সেফটি অ্যান্ড সিকিউরিটি সরঞ্জাম পণ্য প্রদর্শন করা হবে। এক্সপোতে মোট স্টল থাকবে ৭৫টি। এবারে প্রদর্শনীতির পাশাপাশি চারটি বিশেষ সেমিনার থাকবে। মেলার প্রথম দিন বেলা ২ টায় অনুষ্ঠিত হবে অগ্নি-নির্বাপনের বিশেষ মহড়া।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে জানানো হয়, এবার মেলার “ইসাব সেফটি এক্সসিলেন্স অ্যাওয়ার্ড-২০২০” প্রদান করা হবে। বাণিজ্যিক, শিল্প ও আবাসিকএই তিনটি ক্যাটাগরীতে মোট ৯ প্রতিষ্ঠানকে অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হবে। সচেতনতা তৈরির লক্ষ্যে হাতে নেয়া এ কার্যক্রমের পুরস্কার মেলার দ্বিতীয় দিন রাত ৮টায় নির্বাচিতদের হাতে তুলে দেয়া হবে। এই আয়োজনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান।বিশেষ অতিথি থাকবেন বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের মহাপরিচালক ব্রি: জেনারেল মো. সাজ্জাদ হোসাইন ও র‌্যাব মহাপরিচালক ড. বেনজির আহমেদ।

মোতাহার হোসেন খান জানান, ২০১৯ সালের এক্সপোতে দর্শনার্থীদের সংখ্যা ছিল ৮ হাজার। এই ধারাবাহিকতায় এবারের এক্সপোতে আমরা ১০ হাজারেরও বেশি দর্শনার্থীর সমাগম ঘটবে বলে প্রত্যাশা করছি। দর্শনার্থীরা নাম রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে কোন ধরণের ফি ছাড়াই প্রদর্শনীতে অংশ নিতে পারবেন। এর মাধ্যমে আমরা অগ্নি নিরাপত্তা বিষয়ে সামাজিক সচেতনতা তৈরির প্রচেষ্টা করছি যা আগামী দিনে অব্যহত থাকবে।

সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের মহাপরিচালক ব্রি: জেনারেল মো. সাজ্জাদ হোসাইন, ইসাব মহাসচিব মোহাম্মদ মাহমুদ, ইন্টারন্যাশনাল ফায়ার সেফটি অ্যান্ড সিকিউরিটি এক্সপো-ইফসি-২০২০ এর কনভেনর জাকির উদ্দিন আহমেদ, কো-কনভেনর মাহমুদ-ই-খোদা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

error0