চালের মুল্যবৃদ্ধির সিন্ডিকেটের সাথে কৃষিমন্ত্রী জড়িত : লেবার পার্টি

প্রকাশিত

এওয়ান নিউজ: চালের লাগামহীন মুল্যবৃদ্ধি নিয়ে কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাকের কান্ডজ্ঞানহীন ও সাধারন মানুষকে তুচ্ছ তাচ্ছিল্য করে দেয়া বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশ লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডাঃ মোস্তাফিজুর রহমান ইরান ও ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব লায়ন ফারুক রহমান বলেছেন, তার বক্তব্য প্রমান করে চালের মুল্যবৃদ্ধির সাথে ভোট চোর কৃষিমন্ত্রী জড়িত। জনগনের ভোটে নির্বাচিত না হওয়া ভোট চোর সরকারের কৃষিমন্ত্রী বলেছেন, ”চালের মুল্যবৃদ্ধির ঘটনায় সরকার বিব্রত নয় বরং খুশি হয়েছে”। আমরা তার বিবেক বুদ্ধি বর্জিত বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। সরকার দ্রব্যমুল্যের উর্ধ্বগতি নিয়ন্ত্রনে চরম ভাবে ব্যর্থ। কৃষিমন্ত্রী ব্যর্থতা আড়াল করতেই জনদুর্ভোগ নিয়ে বল্গাহীন বক্তব্য অমার্জনীয় অপরাধ। জনগনের ভোটে নির্বাচিত হলে র্নিবোধের মতো বক্তব্য রাখতে পারতেন না।

আজ (রবিবার, ৮ ডিসেম্বর) বাংলাদেশ লেবার পার্টির দফতর সম্পাদক আমানুল্লাহ মহব্বত সাক্ষরিত যুক্ত বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় একথা বলেন। নেতৃদ্বয় বলেন, দ্রব্যমুল্যেও লাগামহীন উর্ধ্বগতিতে জনগন দিশেহারা। শেখ হাসিনার ১০ টাকার চাল এখন ৭০ টাকা। ২৫ টাকার পিয়াজ এখন ২৫০ টাকা। নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমুল্যের আকাশচুম্বি উর্ধ্বগতি নিয়ন্ত্রনে ব্যর্থতার দায় না নিয়ে উল্টো সরকার জনর্দুভোগ নিয়ে উপহাস করছে। বিদ্যুতের মুল্যবৃদ্ধিও প্রক্রিয়া চলছে, নতুন বছরের শুরু থেকে বাড়ীভাড়া বাড়ছে। এমতবস্থায় ভোটারবিহীন দখলদার সরকার জনদুর্ভোগ থেকে জনসাধারনের দৃষ্টি আড়াল করতে বিরোধী শক্তি নির্মূলে ব্যস্ত। নেতৃবর্গ রাষ্ট্রীয় সম্পদ লুন্ঠনকারী লুটেরা দুর্নীতিবাজ সরকারের বিরুদ্ধে দেশপ্রেমিক জনগনকে রাজপথে নেমে প্রতিবাদ ও প্রতিরোধে অংশ নেয়ার আহবান জানান।