চীনে করোনা ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১০৬, আক্রান্ত ৪৫১৫

প্রকাশিত

এওয়ান নিউজ: সারা বিশ্বের ঘুম উড়িয়েছে করোনা ভাইরাস। হু হু করে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, করোনা ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ১০৬ ৷ আর এই মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে প্রায় ৪৫১৫ জন ৷ ১৭০০ জনের মধ্যে এই ভাইরাসের সংক্রমণ দেখা দিয়েছে একদিনে।

চিনের বাইরেও ছড়াচ্ছে করোনা। এখনও পর্যন্ত কমবেশি ৪৭টি প্রদেশে ছড়িয়েছে করোনা ভাইরাস। জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, থাইল্যান্ড, আমেরিকা, সিঙ্গাপুর, ভিয়েতনাম, তাইওয়ান, নেপাল, ফ্রান্স, অস্ট্রেলিয়া, সৌদি আরব, শ্রীলঙ্কা ও নেপালে ছড়িয়েছে করোনা ভাইরাস।

মারণ ভাইরাস করোনার কারণে চিন থেকে বিচ্ছিন্ন ইউহান ৷ করোনা ভাইরাসের মূল কেন্দ্রই এই ইউহান৷ সংক্রমণ থেকে দেশের অন্যান্য জায়গাকে বাঁচানোর জন্য বন্ধ করা হয়েছে ইউহানের যাতায়াত পরিষেবা৷ ইউহানে বন্ধ ফেরি, ট্রেন, বাস পরিষেবা বন্ধ ইউহান বিমানবন্দরেও ৷ করোনার জেরে বন্ধ করা হয়েছে চিনা নববর্ষের উৎসবও ৷

করোনার জেরে ভারতেও জারি হল হাই-অ্যালার্ট। বিমানবন্দরে থার্মাল স্ক্রিনিংয়ের পাশাপাশি চূড়ান্ত সতর্কতা থাকছে। প্রতিবেশী দেশ নেপালেও হাজির করোনা ভাইরাস। নেপালে এক ব্যক্তির দেহে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ মেলার পর চিন্তা বাড়ল ভারতের। করোনা নিয়ে ভারতেও হাই অ্যালার্ট জারি। বিমানবন্দরেই চিন, হংকং, ভিয়েতনামের মতো দেশ থেকে আসা যাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা হচ্ছে।

সেই কাজ দেখবে স্বাস্থ্যমন্ত্রকের বিশেষজ্ঞ দল । তবে নেপালে করোনা ভাইরাস আক্রান্তের খোঁজ মেলায় বাড়তি সতর্কতা নিয়েছে স্বাস্থ্যমন্ত্রক। ভারত, নেপাল সীমান্ত সংলগ্ন রাজ্যগুলিকে সতর্ক করেছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক। উত্তরাখণ্ডের ক্ষেত্রে বাড়তি সতর্কতা।

করোনা মোকাবিলায় চালু হয়েছে ২৪ ঘণ্টার কন্ট্রোল রুম ও টোল ফ্রি নম্বর। টোল ফ্রি নম্বর +91-11-23978046 নম্বরে যোগাযোগ করতে হবে।

error0