চীন থেকে আর কাউকে ফেরত আনা হবে না: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত

এওয়ান নিউজ: স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, চীন থেকে আর কাউকে ফেরত আনা হবে না। তিনি বলেন, চীন থেকে কেউ আসতে চাইলে তাদের নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে। যারা ছুটিতে চীনে গেছেন এই মুহূর্তে তাদের আপাতত ভিসা দেওয়া বন্ধ রাখা হয়েছে।বৃহস্পতিবার (০৬ ফেব্রুয়ারি) সচিবালয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে করোনা ভাইরাস বিষয়ে ডাকা সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, চীনাদের অন এরাইভাল ভিসা আপতত বন্ধ। চায়না থেকে যারা ভিসা নিয়ে আসবে তাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার রিপোর্ট দিতে হবে। গত কয়েক দিনে সাড়ে ৭ হাজার চীনা নাগরিক এসেছে। তারা নিজ দায়িত্বে নিজেদের পর্যবেক্ষণে রয়েছেন।‘দেশের কোথাও চীনা নাগরিক অসুস্থ হলে তা সিভিল সার্জন বা স্থানীয় প্রশাসনকে জানানোর পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। দেশে কেউ আক্রান্ত হলে তাদের চিকিৎসায় সর্বাত্মক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা করে আমাদের এখানে বেশ কিছু দিন আগে থেকে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। আমাদের বিমানবন্দর, স্থলবন্দর, নৌবন্দরগুলোতে স্ক্যানিং মেশিন বসানো হয়েছে। জনবল বাড়ানো হয়েছে যেন ২৪ ঘণ্টা সেবা দেওয়া যায়।

‘করোনা ভাইরাস পরীক্ষার জন্য আমাদের এখানে আগে থেকেই ব্যবস্থা ছিল। সেটাকে আরও আধুনিক করা হয়েছে। করোনা ভাইরাস কিটস আনা হয়েছে। ফলে অল্প সময়ে পরীক্ষা করা সম্ভব হচ্ছে।’স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, চীন থেকে ১৭০ জন বাংলাদেশি দেশে ফিরতে চায়। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছে।

তিনি বলেন, চীনে যারা আছেন তারা কোয়ারেন্টাইনে আছে। সেখানে অসুস্থ হলে চিকিৎসা ভালো হবে। তাই সেখানে থাকাটা অনেক বেটার হবে। আমি মনে করি এই অবস্থায় বাংলাদেশি নাগরিকদের সেখানে থাকা ভালো।এছাড়া চীন থেকে ফেরত আনা ৩১২ জন বাংলাদেশি নাগরিকদের আশকোনা হজ ক্যাম্প থেকে ১৪ ফেব্রুয়ারি ছেড়ে দেওয়া হবে।

error0