ছাতকে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পাশে ইউএনও

প্রকাশিত

হাসান আহমদ,ছাতক থেকে::কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাস নিয়ে সারাবিশ্ব এখন উৎকন্ঠিত। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শ বিবেচনায় রেখে নানাবিধ পদক্ষেপের মাধ্যমে বিশ্ব মহামারীর করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ঐকান্তিক প্রচেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছে সরকার পক্ষে অগ্নিকান্ডে ক্ষতি গ্রস্ত অসহায় হতদরিদ্রদের ঘরে ঘরে খাবার পৌছে দিচ্ছেন ইউএনও। ছাতকে পরিবারের রান্না ঘরের চুলা থেকে আগুন লেগে ৫টি বসত ঘর পুড়ে চাই। এ ঘটনায় অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ৪ টি অসহায় হতদরিদ্র পরিবারের পাশে দাড়ালেন ইউএনও গোলাম কবির। গত শুক্রবার রাতে উপজেলার চরমহল্লা ইউনিয়নের হাসারুচর গ্রামের শুকুর আলীর বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে। এ খবর পেয়ে গত শনিবার সকালে সরকারি ত্রাণ সামগ্রীর ৪টি প্যাকেট নিয়ে হাসারুচর গ্রামে শুকুর, ছমক আলী, আসকর আলী, আবদর আলীসহ বাড়িতে গিয়ে হাজির হয়েছেন ছাতক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ গোলাম কবির। তাদের বাড়িতে টুকে ৪টি পবিরারের হাতে সরকারি বরাদ্ধে প্যাকেট চাল, সয়াবিন তেল, মসুরের ডাল, আলু, লবণ, সাবান ও মাস্ক রয়েছে। অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের ৪টি আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে পরবর্তীতে ৪টি ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে ৮০হাজার সরকারি বরাদ্ধে আশ্বাস দেন তিনি। এসময় চরমহল্লা ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হাসনাত, উত্তর খুরমা ইউপির চেয়ারম্যান বিল্লাল আহমদ, মাওলানা কামরুজ্জামান, আমেরতল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি শিপলু আহমদ, ইউপি সদস্য নুর উদ্দিনসহ উপস্থিত ছিলেন।পরে উপজেলা জাউয়াবাজার সহ নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ গোলাম কবিরের নেতত্বে ছাতক উপজেলা প্রশাসন করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সরকারের নির্দেশনার পাশাপাশি উপজেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটি, জনপ্রতিনিধি, আইন শৃংখলা বাহিনী, সেনাবাহিনী, সাংবাদিক, সহযোগী উনśয়ন সংস্থা, ধর্মীয়নেতা ও সুশীলসমাজের মধ্যে কার্যকরী সমন্বয় বজায় রেখে ব্যাপক ব্যতিক্রমী উদ্যোগ গ্রহন করেছে। ভয় নয় করোনায় আসুন সর্তক হই নিয়মনীতি মেনে মরনব্যাধি এ ভাইরাস সংক্রমণ রোধে প্রত্যহ ছুটে যাচ্ছেন উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে। মানুষের মধ্যে জনসচেতনতা সৃষ্টি করতে গ্রাম ও বিভিনś হাটবাজারে নিজেই মাইক হাতে প্রচার-প্রচারণা করছেন। হাট বাজারে গ্রামে গ্রামে গিয়ে ও সকলশ্রেনীর মানুষকে আহবান করছেন সরকারের নির্দেশ মেনে ঘরে অবস্থান করতে ও সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে অনুরোধ করেন।