তথ্যমন্ত্রীর নির্দেশে রাঙ্গুনিয়ায় ধান কেটে দেবে কৃষকলীগ

প্রকাশিত

এওয়ান নিউজ: করোনায় একদিকে শ্রমিক-সংকট ও নগদ অর্থের অভাব, অন্যদিকে বৈশাখ মাস, যে কোনো সময় প্রবল ঝড়-বৃষ্টি এসে ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা। এ অবস্থায় পাকা ধান ঘরে তোলা নিয়ে চট্টগ্রামের প্রান্তিক উপজেলা রাঙ্গুনিয়ার কৃষকরা যে চরম দুশ্চিন্তায় ছিলেন, তার অবসান হয়েছে সেখানকার (চট্টগ্রাম -৭) সংসদ সদস্য ড. হাছান মাহমুদের ঘোষণায়।

তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদের নির্দেশে রাঙ্গুনিয়ায় কৃষকের ধান কেটে দিতে রাঙ্গুনিয়া উপজেলা ও পৌরসভা কৃষকলীগের নেতৃত্বে যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দের সমন্বয়ে একটি কমিটি করা হয়েছে। তারা রাঙ্গুনিয়া উপজেলার প্রত্যেক ইউনিয়ন, গ্রাম ও রাঙ্গুনিয়া পৌরসভার অধীন এলাকায় ধান কাটার ব্যবস্থা করে কৃষকদের সাহায্য করবেন।

এ প্রসঙ্গে পৌরসভা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক এনামুক হক বলেন, ‘রাঙ্গুনিয়ার কৃতী সন্তান তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এমপি মহোদয় যেকোনো মানবিক সঙ্কটে সাধারণ মানুষের সাহায্যে এগিয়ে আসেন। এছাড়া তার অনুসারী নেতৃবৃন্দও তাকে অনুসরণ করে সাধারণ মানুষের পাশে থাকেন। এই দুর্যোগে মন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন কৃষকের দুঃখ-দুর্দশা লাঘবে কাজ করতে। তাই পৌরসভা কৃষকলীগের উদ্যোগে কৃষকের ধান কেটে ঘরে তুলে দেওয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।’

চট্টগ্রাম উত্তর জেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক ও রাঙ্গুনিয়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম জানান, ‘করোনাভাইরাসের কারণে অর্থ সংকটের পাশাপাশি শ্রমিক সংকটে চরম বেকায়দায় পড়েছেন কৃষকরা। তথ্যমন্ত্রীর নির্দেশে কৃষকের এই সংকটে পাশে থেকে কৃষকলীগ মানবিকতার পরিচয় দেবে। এই কাজে আওয়ামী পরিবারের সকল স্তরের নেতৃবৃন্দের সহযোগিতাও চেয়েছেন তিনি।’

পৌরসভা কৃষকলীগের সিনিয়র সহসভাপতি শামসুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক রাসেল রাসু, সহসভাপতি মো. মাহমুদুল ইসলাম রাসেল, উপজেলা যুবলীগ সদস্য মো. মহসিন প্রমুখের সমন্বয়ে গঠিত এ কমিটি ইতোমধ্যেই কাজে নেমে পড়েছেন।