তথ্য প্রযুক্তিতে নারীর অংশগ্রহণকে উৎসাহ দিতে কুমিল্লায় বিডিওএসএন

প্রকাশিত

এওয়ান নিউজ:তথ্য প্রযুক্তির বর্তমান যুগে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিতে প্রয়োজন নারী পুরুষের সমান অংশগ্রহণ। এই অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার পূর্বশর্ত হচ্ছে তথ্য প্রযুক্তিতে দক্ষ নারীশক্তি। আর তাই দক্ষতা অর্জনে নারীকে উৎসাহ দিতে বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক (বিডিওএসএন) এবার কুমিল্লায় আয়োজন করেছে মেয়েদের জন্য দক্ষতা উন্নয়ন কার্যক্রম। কুমিল্লার সিসিএন ইউনিভার্সিটি অব সাইন্স এন্ড টেকনোলজি-তে আয়োজিত হয়ে গেলো একটি প্রোগ্রামিং ক্যাম্প এবং একটি চাকরি প্রস্তুতিমূলক কর্মশালা। আয়োজনগুলিতে অংশ নেন বিশ্ববিদ্যালয়টির নারী শিক্ষার্থীরা।

গত ৪ মার্চ গ্রেস হপার গার্লস প্রোগ্রামিং ক্যাম্পের মধ্য দিয়ে শুরু হয় তিনদিনের কার্যক্রম। ক্যাম্পটি উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রতিষ্ঠাতা চৌধুরী, প্রতিষ্ঠানটির প্রোভিসি প্রফেসর ড. এ কে এম আসাদুজ্জামান, প্রফেসর ড. আলি হোসাইন চৌধুরী এবং কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের অধ্যাপক ইকবাল। দুইদিনব্যাপী ক্যাম্পে অংশ নেন বিশ্ববিদ্যালয়টির কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের প্রায় ৩০ জন শিক্ষার্থী। সি প্রোগ্রামিং এর প্রাথমিক ধারণা নিয়ে শিক্ষার্থীদের দুইদিনের সেশনটি পরিচালনা করেন বিডিওএসএন এর একাডেমিক কো-অর্ডিনেটর। এছাড়াও প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার অনলাইন জাজের সাথে পরিচিত হন শিক্ষার্থীরা। কিভাবে অনলাইন প্রোগ্রামিং কন্টেস্টে অংশ নিতে হয় তার খুঁটিনাটি শেখেন শিক্ষার্থীরা। দ্বিতীয় দিন ক্যাম্পের শেষ ধাপে মেয়েরা অংশ নেন একটি অনলাইন প্রোগ্রামিং কন্টেস্টে । ক্যাম্পের অনুভূতি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী উম্মে হাফসা জানান, “এতোদিন অনলাইন কন্টেস্ট একটি ভয়ের জায়গা হিসেবেই নিতাম আমি। আজ হাতে কলমে প্রোগ্রামিং এর সব শেখার পর মনে হচ্ছে এখন থেকে অনলাইন কন্টেস্টে নিজেই অংশ নিতে পারব। বাসায় বসে অনুশীলন করার একটা জেদ চেপেছে ক্যাম্পে আসার পর”।

আজ, আয়োজনের তৃতীয় দিন একটি চাকরি প্রস্তুতিমূলক ওয়ার্কশপে অংশ নেন শিক্ষার্থীরা। এখানে তারা শেখেন কিভাবে কর্মক্ষেত্রের জন্য প্রস্তুতি নেয়া যায়, কিভাবে সিভি তৈরী করতে হয় এবং চাকরি ভাইভা দেয়ার কিছু নিয়মাবলী সম্পর্কে। হার্ড স্কিলের সাথে সাথে সফট স্কিলের গুরুত্ব সম্পর্কেও ধারণা নেন তারা। বিডি ওএসএনএ রচলমান প্রকল্প ইএসডিজি এর আওতায় আয়োজিত এই কার্যক্রম গুলোমূলত তথ্যপ্রযুক্তিতে নারীর অংশগ্রহণ বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে পরিচালিত হচ্ছে।