তালায় পিতা-মাতার উপর অভিমান করে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা

প্রকাশিত

তালা (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি : সাতক্ষীরার তালায় পিতা-মাতার উপর অভিমান করে নিজ ঘরের আড়ার সাথে ওড়না পেচিয়ে গলায় ফাঁস নিয়ে রুপা খাতুন (১৪) নামে এক স্কুল ছাত্রী আত্মহত্যা করেছে। রবিবার এ ঘটনা ঘটে। নিহত রুপা খাতুন উপজেলা লালচন্দ্রপুর গ্রামের মোঃ রেজাউল গাজীর কন্যা ও পাটকেলঘাটা আদর্শ বহুমুখী উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর ছাত্রী।

নিহতের পিতা রেজাউল গাজী জানান, প্রতিদিনের ন্যায় রুপা আজও সকালে স্কুলে প্রাইভেট পড়তে গিয়েছিল। সেখান থেকে বাড়ি ফিরে তার মায়ের কাছে প্রাইভেট পড়ার টাকা চাইলে অভাবের তাড়নায় মা তাকে দু-এক-কথায় বকা ঝকা করে। এরপর তার মা বাড়ির বাইরে গেলে রুপা কাউকে কিছু না বলে ঘরের ভিতরে ঢুকে আড়ার সাথে গলার ওড়না পেচিয়ে আতœহত্যা করে। কিছুক্ষন পরে তার নানী-দাদীরা তাঁকে ডাকাডাকি করে কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে ঘরের জানালা দিয়ে তাকিয়ে দেখতে পায় রুপা গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলছে। এরপর তাদের চিৎকারে বাড়ির আশে পাশের সবাই ছুটে এসে দরজা ভেঙ্গে নামিয়ে নিয়ে তকে স্থানীয় ক্লিনিক লোকনাথ নাসিং হোমে নিয়ে যায়। সেখানে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষনা করে। সে পরিবারের ২ মেয়ে ও ১ ছেলের মধ্যে বড় মেয়ে বলে জানায় তার পিতা। তার অকাল এই মৃত্যুতে এলাকায় ও গোটা পরিবারে গভীর শোকের ছায়া নেমে এসেছে। পাটকেলঘাটা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কাজী ওয়াহিদ মুর্শেদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, খবর পাওয়া মাত্র পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

error0