বিভাগ - সারাদেশ

তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী সাংবাদিক মীর জাকির হোসেন

প্রকাশিত

নিজস্ব প্রতিবেদক: আগামী ৮ ডিসেম্বর রোববার অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বাষিক সম্মেলন। এ নিয়ে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মাঝে। কাউন্সিলের মাধ্যমে দলের তৃর্ণমূলের নেতাকর্মীরা নতুন নেতৃত্বের প্রত্যাশা করছেন। তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান সাংগাঠনিক সম্পাদক,সাতক্ষীরা জেলা পরিষদ সদস্য, তালা রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি মীর জাকির হোসেন প্রধানমন্ত্রীর দূর্নীতি বিরোধী অভিযানকে বেগবান ও তৃর্ণমূল সংগঠনকে আরো শক্তিশালী করার প্রত্যয়ে তালা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব নিতে চান।

সোমবার সকালে এক আলাপচারিতায় তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারন করে ১৯৯০ (এরশাদ বিরোধী আন্দোলন) থেকে আওয়ামী ছাত্র রাজনীতে প্রবেশ করি। এর পর সুদীর্ঘ প্রায় ২৫টি বছর সুনামের সাথে উপজেলা ছাত্রলীগ ও যুবলীগের সভাপতির দায়িত্ব নিরলস ভাবে পালন করেছি। বর্তমানে তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্বরত আছি। এছাড়া শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদ এবং বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদ ও বঙ্গবন্ধু স্মৃতি পাঠাগার’র উপজেলা সভাপতির দায়িত্ব পালন করছি।

তিনি বলেন, সাংবাদিকতার পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন,যেমন বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন, উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা, তালা বাজার বনিক সমিতি’র দু-বার নির্বাচিত সভাপতি হওয়ায় সফল ভাবে দায়িত্ব পালন করেছি। তিনি বলেন, ১৯৯১ থেকে ১৯৯৫ পর্যন্ত বাংলাদেশ ছাত্রলীগের তালা সরকারী কলেজ শাখার সভাপতি, ১৯৯৬ সাল থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত ২ বার তালা উপজেলা ছাত্রলীগ’র সভাপতি নির্বাচিত, ২০০৪ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত দু-বার উপজেলা যুবলীগের সভাপতির নির্বাচিত হয়ে নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করেছি।

এক প্রশ্নের জবাবে জাকির বলেন, এরশাদ বিরোধী আন্দোলন থেকে শুরু করে সকল আন্দোলন সংগ্রামে নেতা কর্মীদের সাথে আছি এবং থাকব। তিনি সংগঠনকে শক্তিশালী করতে তৃর্ণমূল নেতাকর্মীদের মূল্যায়নের অঙ্গিকার করে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দূর্নীতি বিরোধী অভিযানকে বেগবান করার প্রত্যয়ে আমি তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের হাল ধরতে চাই।

আগামী ৮ ডিসেম্বর তালা উপজেলার কুমিরা হাইস্কুল মাঠে তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বাষিক সম্মেলনে তালা উপজেলা সম্মনিত সকল কাউন্সিলার,জেলা ও উপজেলার নেতৃবৃন্দের দোয়া আর্শিবাদ ও সমর্থন কামনা করছি। সাথে সাথে কাউন্সিল অধিবেশনে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দকে আশু-সুদৃষ্টি কামনাসহ জননেত্রীর হাতকে শক্তিশালী করতে নেতৃবৃন্দ যে সিন্ধান্ত দিবে তা আমি অবশ্যই মেনে নেব।