বিভাগ - সারাদেশ

তেঁতুলিয়ায় এক গৃহবধূর উপর স্বামীর পাশবিক নির্যাতন

প্রকাশিত

ডিজার হোসেন বাদশা, পঞ্চগড় প্রতিনিধি: পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলায় এক গৃহবধূকে বাড়ি ছাড়া করতে হাত-পা বেধে পাশবিক নির্যাতন চালিয়েছে স্বামীসহ শ্বশুর বাড়ির লোকজন। নির্যাতন সইতে না পেরে জ্ঞান হারিয়ে পড়ে গেলে মৃত ভেবে ওই গৃহবধূকে রাস্তার পাশে ফেলে চলে যান শ্বশুর বাড়ির লোকজন।

বুধবার (০১ জুলাই) দুপুরে তেঁতুলিয়া উপজেলার বুড়াবুড়ি ইউনিয়নের হারাদিঘী কাজিপাড়া গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। পরে স্থানীয়রা তাকে পড়ে থাকতে দেখে ইউনিয়ন পরিষদসহ গণমাধ্যমকর্মীদের খবর দেন।

নির্যাতনের শিকার ওই গৃহবধূর নাম রৌশনারা বেগম (২১)। সে গ্রামের আনোয়ারের স্ত্রী। অভিযুক্ত আনোয়ার ওই ইউনিয়নের মোতালেব হোসেনের ছেলে।

জানা যায়, ওই গ্রামের ১ সন্তান্তের জননী রৌশনারাকে গত ৬ মাস থেকে বাড়ি ছাড়া করতে নানান ভাবে নির্যাতন চালায় শ্বশুর বাড়ির লোকজন। এর মাঝে গত ৬ দিন আগে স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকের নির্যাতনে বাড়ি ছাড়া হয়ে বাবার বাড়ি অবস্থান করছিলেন। পরে বুধবার দুপুরে স্বামীর বাড়িতে ফিরলে তার হাত-পা বেধে তার উপর অতর্কিত হামলা শুরু করে স্বামী আনোয়ার হোসেন, শ্বশুর, ননদসহ পরিবারের সদস্যরা। এসময় অভিযুক্ত আনোয়ার ও তার বাবা মোতালেবসহ পরিবারে লোকজনদের সাথে কথা বলতে গেলে পড়ে কাউকে বাড়িতে পাওয়া যায় নি। তবে ঘটনারবেশ কয়েক ঘন্টা অতিবাহীত হলেও আহত অবস্থায় রাস্তার পাশে পড়ে থাকতে দেখা যায় রৌশনারাকে।

রৌশনারার অভিযোগ, কোন কারণ ছাড়াই গত কয়েক মাস ধরে তার উপর এমন নির্যাতন চালাচ্ছে স্বামীসহ শ্বশুর বাড়ির লোকজন। আমি সমাজের কাছে এর বিচার চাই।

এদিকে বুড়াবুড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান (ইউপি) তারেক হোসেন জানান, ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্যকে এ ঘটনার সমাধানের জন্য দায়িত্ব দিয়েছি।

তেঁতুলিয়া মডেল থানার ওসি তদন্ত আবু সাঈদ জানান, খবর পেয়ে আমরা ওই নারীর চিকিৎসার জন্য স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে জানিয়েছে। তবে এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোন অভিযোগ পাওয়া যায় নি।