বিভাগ - বিএনপি

দেশে এমন নির্লজ্জ সরকার আর কখনও আসে নাই: সৈয়দ আলাল

প্রকাশিত

নিজস্ব প্রতিবেদক: বর্তমান ক্ষমতাসীন সরকারের সমালোচনা করে বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব ও যুবদলের সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেছেন, ‘দেশে এমন নির্লজ্জ সরকার আর কখনও আসে নাই। শেখ মুজিবুর রহমান যদি বেঁচে থাকতেন তাহলে হয় এদেরকে বিষ খাওয়াতেন আর না হলে নিজে আত্মহত্যা করতেন। কারণ বর্তমান সরকার শেখ মুজিবুর রহমানের নাম বিক্রি করতে করতে দেশটাকে অধঃপতনে নিয়ে গেছে।’

ইসির সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনের মেরুদণ্ড আছে, সেটা আমরা জানি। সেই মেরুদন্ডওয়ালা ইসি ইভিএমের মাধ্যমে ভোট চুরির কাজে তাদের মস্তিষ্ক নিয়োজিত করেছেন।’

মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গণতন্ত্র ফোরাম এর উদ্যোগে ঢাকা সিটি করপো‌রেশন নির্বাচনে ইভিএম বাতিলের দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।

আলাল বলেন, ‘ইভিএম নিয়ে যে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে সেই বিতর্ক সৃষ্টি করেছে সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান নির্বাচন কমিশন নিজেই। সাধারণত আমরা সমাজ ব্যবস্থায, মানবিকতায়, বায়তুল মোকাররমের ইমাম ও দেশের বিশিষ্ট গুণীজন যারা আছেন তাদের কথা শুনে থাকি। তেমনই একটি দেশের জনগণ রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর কথায় উৎসাহিত হন এবং লজ্জিতও হন। গত ১২ বছর ধরে এ দেশের জনগণ প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতির কথায় নির্যাতিত, লজ্জিত এবং দুঃখিত।’

তি‌নি ব‌লেন, ‘নির্বাচনের সময় আওয়ামী লীগের ক্যাডাররা ভোটারদের বাধ্য করেন আঙু‌লের ছাপ দি‌তে এবং ব‌লে ‘ছাপ দিয়েছেন এখন চলে যান’। গতকাল চট্টগ্রামে এ জিনিসই আমরা দেখেছি। এই বিতর্কিত ইভিএম আমাদের ওপর জোর করে চাপিয়ে দেয়া হয়েছে।’

সরকারের প্রতি প্রশ্ন রেখে মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, ‘জনগণের টাকায় পরিচালিত দেশ লুটপাট কেন? জনগণের ওপর অত্যাচার কেন? প্রেসক্লাবের সামনে যে ভিক্ষা করেন এ দেশের অর্থনীতিতে তার অবদান আছে। সারা দিন কষ্ট করে উপার্জন করে যে টাকা দিয়ে চাউল কিনতে যায় সেই চাউলের দোকানদার তার কাছ থেকে ভ্যাট নেয় এবং সেই ভ্যাটের টাকা সরকারের খাতায় জমা হয়। তাহলে তারও এই দেশের অর্থনীতিতে অবদান আছে। সেজন্য আপনারা যা খুশি তাই করতে পারেন না। অথচ একের পর একটা অগণতান্ত্রিক কাণ্ডকলাপ করেই যাচ্ছেন। সর্বশেষ চট্টগ্রামের সিটি নির্বাচনেও তা করেছেন।’

বিএন‌পির এই নেতা ব‌লেন, ‘বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা অপরাধে আটক করে রেখেছে সরকার। তারেক রহমানকে মিথ্যা অপরাধে মামলা দিয়েছে দেশে আসতে দিচ্ছে না। সেই জায়গায় আমাদের চিন্তা করতে হবে এ সরকারের রাজত্ব আর কতদিন চলবে।’

‌তি‌নি ব‌লেন, ‘ইভিএমের মাধ্যমে দেশের জনগণের ভোটের অধিকার কেড়ে নেয়া হবে এটা আমরা মানি না। বিএনপির সিদ্ধান্তহীনতার কারণে দেশের জনগণ ভুগবে, এটাও হতে পারে না। বিএনপিকে আজ সিদ্ধান্ত নিতে হবে। তাদেরকে জনগণের কাছে মাফ চেয়ে বলতে হবে- কী কারণে তারা পারছে না।’

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ভিপি ইব্রাহিমের সভাপতিত্বে ও মৎস্যজীবী দলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ইসমাইল হোসেন সিরাজীর সঞ্চালনায় মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, কৃষকদলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য লায়ন মিয়া মোহাম্মদ আনোয়ার ও কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন প্রমুখ।