নানা অপরাধে যারা গ্রেফতার হচ্ছেন তাদের পরিচয় অপরাধী? ফখরুলকে কাদের

প্রকাশিত

এওয়ান নিউজ: চিহ্নিত অপরাধী ছাড়া বিএনপির উল্লেখযোগ্য কোন নেতা গ্রেফতার হয়েছে তা দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল আলমগীরের কাছে জানতে চেয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ‘আমরা জানতে চাই, বিএনপির কোন শীর্ষ নেতা, তাদের ৫৯২ সদস্যের কেন্দ্রীয় কমিটির কোন নেতা জেলে গেছেন? চাল চুরিসহ যারা নানা অপরাধে যারা গ্রেফতার হচ্ছেন, তাদের পরিচয় তারা অপরাধী। সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে যারা জড়িত তারা অপরাধী। সরকার নিজেদের লোকজনকেও এ ব্যাপারে ছাড় দেয়নি।’

রবিবার (৫ জুলাই) সরকারি বাসভবনে থেকে এক ভিডিও বার্তায় তিনি এসব কথা বলেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপি প্রতিদিন অশ্লীল ভাষায় সরকারের বিরুদ্ধে বিষোদ্গার করলেও সরকার সহনশীলতার পরিচয় দিচ্ছে।’

তিনি বিএপির প্রতি পাল্টা প্রশ্ন রেখে বলেন- ‘ত্রাণের মালামাল চুরিসহ নানান অপরাধে যারা গ্রেফতার হচ্ছেন তাদের পরিচয় তারা অপরাধী। অপরাধীদের বিরুদ্ধে আইন-আদালত ব্যবস্থা কি নেবে না?’

এসময় সরকারের মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন প্রসঙ্গে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘বৈশ্বিক মহামারি করোনার কারণে দেশে উন্নয়ন কাজে কিছুটা বাধা এলেও এখনও সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন চলমান মেগা প্রকল্প বাস্তবায়নে গতি সঞ্চার রয়েছে।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘শত প্রতিকূলতার মাঝেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অগ্রাধিকার প্রকল্প পদ্মাসেতু, মেট্রোরেল রুট-৬, কর্ণফুলী টানেল, এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়েসহ অন্যান্য প্রকল্পের কাজ পুরোদমে চলছে।’

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘শেখ হাসিনা সরকার উন্নয়নমুখী সরকার, জনগণের জীবনমান উন্নয়ন ও সামাজিক নিরাপত্তায় চলমান উন্নয়ন প্রবাহ ধরে রেখেই বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে সচেষ্ট। বছরের পর বছর নানান দুর্যোগ মোকাবিলা করেই আজকের উদীয়মান অর্থনীতির দেশ বাংলাদেশ। সংকটে নেতৃত্ব দিয়ে জনগণের দৃঢ় আস্থার অপর নাম দেশরত্ন শেখ হাসিনা।’

তিনি বলেন, ‘সরকারকে এখন করোনার সংক্রমণ রোধ ও অসহায় মানুষের প্রোটেকশন, বন্যা কবলিত ১২ টি জেলার মানুষের সুরক্ষা এবং আসন্ন ঈদে মানুষের সমাগম তথা ভিড় এড়ানো এই তিনটি চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে হচ্ছে।’

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘রোজার ঈদে মানুষের অবাধ চলাচল, ভিড় ও সমাবেশে অংশগ্রহণ করোনা সংক্রমণের মাত্রাকে বাড়িয়ে দিয়েছিলো। তাই আসন্ন কোরবানির ঈদে এ সমাগম ও ভিড় যে কোনও মূল্যে এড়াতে হবে- নিজের বেঁচে থাকার স্বার্থে।’