বিভাগ - সারাদেশ

নিজেকে আসল মুক্তিযোদ্ধা দাবী করে হাফিজুরের সাংবাদিক সম্মেলন

প্রকাশিত

রাসেল কবির মুরাদ , কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি ঃ কলাপাড়ায় একই নাম থাকায় আসল মুক্তিযোদ্ধা হয়েও সামাজিকভাবে বারংবার হেয় প্রতিপন্ন ও লাঞ্চিত হচ্ছেন । মঙ্গলবার কলাপাড়া প্রেসক্লাব মিলনায়নতে এক সংবাদ সম্মেলনে এমন দাবি করেন কলাপাড়ার মুক্তিযোদ্ধা হাফিজুর রহমান। পরিবার-পরিজন নিয়ে সমাজে দারুন অশান্তি ভোগসহ হুমকির মুখে দিন অতিবাহিত করছেন।

লিখিত বক্তব্যে হাফিজুর রহমান বলেন, ৭২৭ নং গেজেটর ম-৯৪০৮৫ নং সাময়িক সনদপত্র ধারী প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে ২০০৬ সাল থেকে ৪৮ নং বইয়ের মাধ্যমে কলাপাড়া সোনালী ব্যাংক থেকে তিনি ভাতা উত্তোলন করেছেন। অথচ কলাপাড়ার জনৈক হাফিজ মোল্লার সাথে তার নাম ও পিতার নামের মিল থাকায় হাফিজ মোল্লার মেয়ে পরিচয় দিয়ে লাইলী বেগম নামের এক মহিলা তাকেসহ তার পরিবার এবং কলাপাড়া মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের মুক্তিযোদ্ধাদের জড়িয়ে নানা ধরনের বিষোদাগারসহ মিথ্যা অপ্রচার চালাচ্ছেন।

লিখিত বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, প্রকৃত পক্ষে কলাপাড়ার লতাচাপলি ইউনিয়নের হাফিজ মোল্লা সাময়িক মুক্তিযোদ্ধা সনদ গ্রহন করে ২১/বি নং বইর মাধ্যমে মুক্তিযোদ্ধা ভাতা উত্তোলন করেন। এনিয়ে বিরোধ সৃস্টি হলে পটুয়াখালী জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড যাচাই বাছাই শেষে ২০১২ সালে তাকে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা হিসাবে স্বীকৃতি প্রদান করেন এবং পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা হিসাবে তার নামে ভাতা প্রদান চালু করেন।

উল্লেখ্য, ত্রান সচিবের স্বাক্ষর জাল করে টিন ও টাকা আতœসাতের ঘটনায় হাফিজ মোল্লা জেল হাজতে থাকা অবস্থায় ২০১২ সালের ০৬ আগস্ট মৃত্যুবরণ করেন।