নির্বাচন কমিশনের ব্যর্থতা সরকারকেই বহন করতে হবে : মোর্ত্তজা

প্রকাশিত

নির্বাচন কমিশনের ব্যর্থতা সরকারকেই বহন করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এনডিপি চেয়ারম্যান খোন্দকার গোলাম মোর্ত্তজা। শনিবার (১৮ জানুয়ারী) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি ইউনিয়ন পরিষদ থেকে শুরু করে আর কোন নির্বাচন এই নির্বাচন কমিশনের অধিনে অনুষ্ঠিত না করার জন্য মহামান্য রাষ্ট্রপতির হস্তক্ষেপ কামনা করে বলেন, অতিসম্প্রতি চট্টগ্রাম ৮ আসনের উপনির্বাচনে নির্বাচন কমিশনের ঘোষণা মতে ২৩% ভোট কাষ্ট হয়েছে। সেখানে ইভিএমের মাধ্যমে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সাধারণ ভোটারদেরকে ভোট কেন্দ্রে নিতে চরম ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। কারণ, তাদের প্রতি সাধারণ মানুষের কোন আস্থা ও বিশ্বাস নেই। নিজেদের খেয়াল-খুশি মত সুস্থ সামাজিক ব্যবস্থাকেও ভেঙ্গে তছনছ করে দেবার পায়তারা করছে।

তিনি বলেন, স্বরসতি পূজার দিন ভোট গ্রহনের তারিখ ঘোষনা করে নির্বাচন কমিশন ইতিমধ্যে প্রমান করেছে তারা দেশের হিন্দু সম্প্রদায়ের ধর্মীয় অনুভূতির প্রতিও শ্রদ্ধাশীল নয়। কারো ধর্মীয় অনুভূমির প্রতি অশ্রদ্ধাশীল এই নির্বাচন কমিশনের আসল উদ্শ্যে নিয়েই জনমনে প্রশ্নসৃষ্টি হয়েছে।

ব্যর্থ এই নির্বাচন কমিশনের পদত্যাগ দাবী করে তিনি বলেন, গণতন্ত্রের প্রধান অধিকার হচ্ছে জনগনের ভোটাধিকার। সেই অধিকার শপথ নেয়ার পর থেকেই তারা একের পর এক লঙ্ঘন করে চলছে। নির্বাচন কমিশনের দুই সদস্যও প্রধান নির্বাচন কমিশনারের কর্মকান্ড নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। ফলে, সাংবিধানিক এই পদে থাকার সকল নৈতিক অধিকারই তারা হারিয়েছেন।

এনডিপি চেয়ারম্যান আরো বলেন, নির্বাচন কমিশনের অসাংবিধানিক ও অনৈতিক কর্মকান্ডের দায়ভার সরকার এড়াতে পারে না। আসন্ন সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটাররা নিবিগ্নে ভোট দেবে এমন পরিবেশ নিশ্চিত করারও তাদের কোন অঙ্গীকার ও পদক্ষেপ দেশবাসী লক্ষ্য করছে না। সুতরাং এই ব্যর্থ কমিশনের অধিনে আর কোন নির্বাচন নয়।