নির্বাচন পেছানোর দাবিতে অনশনে থাকা ঢাবির ১২ শিক্ষার্থী অসুস্থ

প্রকাশিত

এওয়ান নিউজ: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যে আমরণ অনশনরত শিক্ষার্থীদের মধ্যে ১২ জন অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। সরস্বতী পূজার কারণে আগামী ৩০ জানুয়ারি ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের দাবিতে গত ১৬ জানুয়ারি থেকে আমরণ অনশন করছেন তারা।

শনিবার (১৮ জানুয়ারি) দুপুর ১২টা পর্যন্ত টানা ৪৬ ঘন্টা আমরণ অনশনে ১২ জন শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। এছাড়া, জগন্নাথ হল ছাত্রলীগের সহসম্পাদক ও মার্কেটিং বিভাগের শিক্ষার্থী অভিদাস প্রীতম ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। বাকি অসুস্থ শিক্ষার্থীদের রাজু ভাস্কর্যের নিচে স্যালাইন লাগিয়ে রাখা হয়েছে।

এদের মধ্যে রয়েছেন- জগন্নাথ হল ছাত্র সংসদের জিএস কাজল দাস ও সমাজসেবা সম্পাদক প্রদীপ দাস, থিয়েটার এন্ড পারফরম্যান্স স্টাডিজ এর শিক্ষার্থী অপূর্ব চক্রবর্তী ও মৃত্তিকা, পানি ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী অর্ক সাহা, জগন্নাথ হল সংসদের ভিপি উৎপল বিশ্বাস, বহিরাঙ্গণ ক্রিয়া সম্পাদক অর্ণব হোড়, জগন্নাথ হলের শিক্ষার্থী জয়ন্ত বণিক, সবুজ কুমার, সুকেশ দেবনাথ, ভবতোষ চন্দ্র রায় ও মহসিন হলের শিক্ষার্থী রবিউল ইসলাম রবি।

এ বিষয়ে জগন্নাথ হল ছাত্র সংসদের ভিপি উৎপল বিশ্বাস বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের ভরসার প্রতীক। তিনি অসাম্প্রদায়িক চেতনা লালন করেন। আশা করি তিনি বিষয়টি বিবেচনা করবেন। আমাদের দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত অনশন কর্মসূচি চলবে।’

তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত আমাদের ১২ জন শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়ছে। আপনারা দেখছেন- তাদেরকে স্যালাইন লাগিয়ে রাখা হয়েছে। যারা শুরু থেকে অনশন করে আসছেন, তাদের অধিকাংশ অসুস্থ হয়ে পড়ছেন। হাসপাতালে নিতে চাইলেও তারা দাবি না মানা পর্যন্ত এ স্থান ত্যাগ করতে রাজি নন।

সিটি নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের দাবিতে গত বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) দুপুর দুইটা থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে আমরণ অনশনে বসেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী। সময় বাড়ার সাথে সাথে একের পর এক শিক্ষার্থী অসুস্থ পড়ছেন, তবুও দাবি আদায়ের সিদ্ধান্তে অনড় তারা।